Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর ২০১৯, ০৬ কার্তিক ১৪২৬, ২২ সফর ১৪৪১ হিজরী

বাবা বেঁচে আছেন: মাহফুজ উল্লাহর মেয়ে

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২১ এপ্রিল, ২০১৯, ৮:৩২ পিএম

সিনিয়র সাংবাদিক মাহফুজ উল্লাহ মারা গেছেন বলে দেশের বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত ও প্রচারিত সংবাদকে গুজব বলে দাবি করেছেন তার মেয়ে নুসরাত হুমায়রা। রবিবার বিকেলে তিনি জানান,''বাবা বেঁচে আছেন। বাবার পাশেই আমি বসে আছি।”

এর আগে, বিভিন্ন গণমাধ্যমে মাহফুজ উল্লাহর মৃত্যুর খবর প্রকাশিত হয়। এমনকি অনেক জায়গা থেকে তার মৃত্যুর শোক বার্তাও গণমাধ্যমে আসতে থাকে। এরই প্রক্ষিতে বাবা এখনও বেঁচে থাকার কথা জানালেন সাংবাদিক মাহফুজ উল্লাহর মেয়ে। একই কথা বলেছেন মাহফুজ উল্লাহর ভগ্নিপতি তালুকদার মহিবুল হোসেনও।

তালুকদার মহিবুল হোসেন বলেন, গত কয়েকদিন তাকে লাইফসাপোর্টে রাখা হয়। আজ রবিবার দুপুরে লাইফ সাপোর্ট খুলে দেয়া হয় এবং বলা হয়, তোমরা তাকে দেশে নিয়ে যেতে পারো। তার সঙ্গে মেয়ে নুসরাত হুমায়রা মেঘলা আছে।
তিনি জানান, মেঘলা বলেছেন, উনার (মাহফুজ উল্লাহর) লাইফ সাপোর্ট খুলে দেয়া হয়েছে। তবে এখনো বেঁচে আছেন। আজ রাতই হয়তো উনার শেষ রাত হতে পারে।

এর আগে, মেঘলা নিজের ফেসবুকে মাহফুজ উল্লাহর সবশেষ শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে একটি পোস্ট দেন। যেখানে তিনি বলেন, আমাদের জাতীয় চ্যানেলগুলোতে দেখানো হচ্ছে যে, মাহফুজ উল্লাহ মারা গেছেন। আমি হাসপাতালে উনার সঙ্গে আছি। উনি এখনো বেঁচে আছেন। তবে চিকিৎসকরা তার সব ধরণের চিকিৎসা বন্ধ করে দিয়েছেন যাতে তিনি শান্তিতে চলে যেতে পারেন।

গত ২ এপ্রিল নিজ বাসায় হৃদরোগে আক্রান্ত হলে ৬৯ বছর বয়সী মাহফুজ উল্লাহকে রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখা‌নে তাকে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) রাখা হয়। পরে শারীরিক অবস্থার উন্নতি না হওয়ায় ১১ এপ্রিল অসুস্থ মাহফুজ উল্লাহকে ব্যাংককে নেয়া হয়। সেখানকার বামরুনগ্রাদ হাসপাতালে তাকে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। তিনি হৃদরোগের পাশাপাশি কিডনি ও উচ্চ রক্তচাপজনিত বিভিন্ন সমস্যায় ভুগছেন দেশের প্রথিতযশা এই সাংবাদিক। সূত্র: সময় টিভি



 

Show all comments
  • আমিনুর রহমান ২২ এপ্রিল, ২০১৯, ৩:৪৬ পিএম says : 0
    দেশপ্রেমিক এবং ন্যায়ের পক্ষের একজন বুদ্ধিজীবি। আল্লাহ উনার হায়াত বাড়িয়ে দিন।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন