Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ২৮ জুলাই ২০২১, ১৩ শ্রাবণ ১৪২৮, ১৭ যিলহজ ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

ঝালকাঠিতে ডায়ারিয়ার প্রকোপ তিনদিনে আক্রান্ত পাঁচ শতাধিক

ঝালকাঠি জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২১ এপ্রিল, ২০১৯, ৯:১২ পিএম

ঝালকাঠিতে তীব্র গরমে ডায়রিয়ার প্রকোপ দেখা দিয়েছে। গত তিনদিনে আক্রান্ত হয়েছেন পাঁচ শতাধিক মানুষ। সদর হাসপাতালে সংকুলন হচ্ছে না চিকিৎসাসেবা। বিছানা না পেয়ে মেঝেতে চিকিৎসা নিচ্ছেন ভর্তি রোগীরা।
চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, ঝালকাঠি সদর হাসপাতালে ডায়ারিয়া আক্রান্ত হয়ে ভর্তি হয়েছে ৩২০ জন রোগী। এছাড়া নলছিটি, রাজাপুর ও কাঁঠালিয়ায় দুই শতাধিক রোগী ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছেন। যাদের মধ্যে শিশু ও বৃদ্ধের সংখ্যাই বেশি। বিছানায় জায়গা না পেয়ে একশ শয্যার এ হাসপাতালটিতে আজ রবিবার মেঝেতে চিকিৎসা নিতে হচ্ছে অসংখ্য ভর্তি হওয়া রোগীকে। আর বাড়তি রোগীর চাপে হিমশিম খেতে হচ্ছে চিকিৎসা সেবায় নিয়জিত চিকিৎসক ও নার্সদের। এদিকে ডায়রিয়া বৃদ্ধি পাওয়ায় হাসপাতালগুলোতে আইভি স্যালাইন সংকট দেখা দিয়েছে। ভর্তি রোগীদের বাইরের ফার্মেসি থেকে স্যালাইন কিনে আনতে হচ্ছে বলে রোগীর স্বজনরা অভিযোগ করেছেন। গরমে ফুটপাতের পঁচাবাসি খাবার থেকে দূরে থাকার পাশাপাশি স্বাস্থ্যসম্মত খাবার ও বেশি করে পানি খাওয়ার পরামর্শ দিচ্ছেন চিকিৎসকরা। তীব্র রোদে প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে বাইরে বের না হওয়ারও পরামর্শ চিকিৎসকের।
ঝালকাঠি সদর হাসপাতালে ভর্তি রোগী উত্তম দাস বলেন দুইদিন ধরে ডায়ারিয়া আক্রান্ত হয়ে ভর্তি হয়েছি। হাসপাতাল থেকে মাত্র একটি স্যালাইন দিয়েছে। আর কসল ওষুধ বাহির থেকে কিনতে হয়েছে।
বিছানা না পেয়ে মেঝেতে ভর্তি রোগী মারুফ হাওলাদারের বাবা রুবেল হাওলাদার বলেন, রোগীর চাপ সামলাতে পারছে না সদর হাসপাতাল। আমরা সিট পাইনি, তাই মেঝেতে চারদ বিছিয়ে চিকিৎসা নিচ্ছি। আমার ছেলেকে মাত্র একটি স্যালাইন দিয়েছে এখান থেকে, আরো দুটি স্যালাইন কিনতে হয়েছে। এখনো ভাল হয়নি। চিকিৎসকরাও সময় মতো আসেন না। নার্সরাই এখানের চিকিৎসক।
ঝালকাঠি সদর হাসপাতালের জরুরী বিভাগের চিকিৎসক মো. মেহেদী হাসান বলেন, গরমে ফুটপাতের পঁচাবাসি খাবার থেকে দূরে থাকার পাশাপাশি স্বাস্থ্যসম্মত খাবার ও বেশি করে পানি খেতে হবে। প্রয়োজনে খাবার গরম করে খেতে পারেন। জরুরী কাজ না থাকলে রোদে বেশিক্ষণ না থাকাই ভালো। আইভি স্যালাইন পর্যাপ্ত নেই। রোগীর চাপ বেশি থাকায় একটি করে স্যালাইন দেওয়া হচ্ছে। বেশি লাগলে বাইরে থেকে কিনতে হচ্ছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ