Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার ২১ মে ২০১৯, ০৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ১৫ রমজান ১৪৪০ হিজরী।

স্ত্রীকে হত্যার পর স্বামীর আত্মহত্যা

গাজীপুর জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৩ এপ্রিল, ২০১৯, ১২:২৬ পিএম

শ্বশুরবাড়ি বেড়াতে গিয়ে স্ত্রীকে গলা টিপে হত্যার পর এক অটোরিক্সা চালক যুবক নিজে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছে। দাম্পত্য কলহের জেরে এ ঘটনা ঘটেছে বলে পুলিশের ধারণা। সোমবার গাজীপুরের কাপাসিয়ায় এই ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলো- গাজীপুরের কাপাসিয়া উপজেলার বড়চালা এলাকার মনির হোসেনের ছেলে ব্যাটারী চালিত অটোরিক্সা চালক রোমান (২১) ও তার স্ত্রী ফাহিমা আক্তার (১৮)। নিহত ফাহিমা টোক ইউনিয়নের আড়ালিয়া খালপাড় এলাকার আইসক্রীম বিক্রেতা ফজলুল হকের মেয়ে।

কাপাসিয়া থানার এসআই শফিকুল ইসলাম ও স্থানীয়রা জানান, প্রায় ৯ মাস আগে কাপাসিয়ার বড়চালা এলাকার অটোরিক্সা চালক রোমানের সঙ্গে পার্শ্ববর্তী আড়ালিয়া খালপাড় গ্রামের আইসক্রীম বিক্রেতা ফজলুল হকের মেয়ে ফাহিমা আক্তারের বিয়ে হয়। বিয়ের পর হতেই নানা বিষয় নিয়ে স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকজনের সঙ্গে ফাহিমার পাবারিক কলহ শুরু হয়।

একপর্যায়ে বনিবনা না হওয়ায় বিয়ের কিছুদিন পর স্বামীর বাড়ি থেকে ফাহিমা বাবার বাড়িতে এসে বসবাস শুরু করে। রোববার রোমান শ্বশুরবাড়ি বেড়াতে যায়। সোমবার সকালে ঘুম থেকে উঠে রোমান ও তার স্ত্রী হাত-মুখ ধুয়ে গোসল করে। পরে তারা ঘরে গিয়ে ভিতর থেকে দরজা বন্ধ করে শুয়ে পড়ে।

এসময় রোমানের শ্বশুর ও শাশুড়ি বাজারে যায়। বাজার থেকে ফিরে এসে রোমান ও ফাহিমাকে নাস্তা খাওয়ার জন্য ফাহিমার মা ডাকাডাকি করতে থাকেন। কিন্তু তাদের কোনো সাড়া না পেয়ে দুপুরে স্বজনরা ঘরের টিনের বেড়ার ফাঁক দিয়ে বিছানায় ফাহিমার এবং আড়ের সঙ্গে গলায় ওড়না দিয়ে রোমানের ঝুলন্ত লাশ দেখতে পায়।

খবর পেয়ে পুলিশ বিকেলে ঘটনাস্থলে গিয়ে ঘরের দরজা ভেঙ্গে ভিতরে প্রবেশ করে নিহতেদের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আত্মহত্যা


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ