Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৫ অক্টোবর ২০১৯, ৩০ আশ্বিন ১৪২৬, ১৫ সফর ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

প্রিমিয়ার লিগে ভাগ্য বদলের রাত

ম্যানচেস্টার ডার্বি

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৩ এপ্রিল, ২০১৯, ৮:২৭ পিএম

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে আগামীকাল মুখোমুখি হতে যাচ্ছে নগর প্রতিদ্বন্দ্বী ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ও ম্যানচেস্টার সিটি। এমনিতেই ঐতিহ্যের ম্যাচে সবকিছু পেছনে ফেলে জয়টাই মূখ্য হয়ে দাঁড়ায়। তার উপর মৌসুমের শেষ ভাগে এসে দুই দলের জন্যই ম্যাচটি হয়ে উঠেছে খুবই গুরুত্বপূর্ণ। পয়েন্ট তালিকার শীর্ষ চারের আশা টিকিয়ে রাখতে গত ম্যাচে এভারটনের কাছে মৌসুমের সবচেয়ে বাজে হারের জবাব দিতে হবে ইউনাইটেডকে। আর সিটির লক্ষ্য টানা এগারোতম জয়ে প্রিমিয়ার লিগের শিরোপাভাগ্য নিজেদের হাতে রাখা।
গত নভেম্বরে দু’দলের প্রথম লেগের ম্যাচে ঘরের মাঠে ৩-১ গোলে জিতেছিল সিটি। তখন ওল্ড ট্রাফোর্ডের দলের দায়ীত্বে ছিলেন হোসে মরিনহো। পর্তুগিজ কোচকে ছাটাই করে একই দায়ীত্বে আনা হয় ওলে গানার সুলশারকে। নরওয়ের এই কোচের শুরুটা ছিল স্বপ্নীল। তবে সব প্রতিযোগিতা মিলে শেষ আট ম্যাচে ছয় হারে কঠিন বাস্তবতার মুখোমুখি দাঁড়িয়ে সুলশার। গত ম্যাচে এভারটনের কাছে মৌসুমের সবচেয়ে বড় পরাজয় (৪-০) বরণ করে ইউনাইটেড। এরপর থেকে সুলশারকে নিয়ে শুরু হয় সমালোচনাও।
ওদিকে পেপ গার্দিওলার সিটি লিগে দারুণ সময় পার করছে। পয়েন্ট তালিকার তিন নম্বর দল টটেনহাম হটস্পারের কাছে হেরে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ থেকে বিদায় নেয়ার তিন দিন পর স্পার্সদের হারিয়ে লিগে টানা ১০ ম্যাচ জয় অব্যহত রাখে ইতিহাদের দলটি। লিভারপুলের চেয়ে এক ম্যাচ কম খেলে সিটিজেনরা দুই পয়েন্ট পিছিয়ে। আজ পয়েন্ট হারালেই শিরোপাভাগ্য আর নিজেদের হাতে থাকবে না গার্দিওলার দলের, জিতলে উঠে আসবে শীর্ষে। সুলশারের ইউনাইটেডকে শুভকামনা জানিয়ে গার্দিওলা বলেন, ‘ডার্বি ম্যাচ সবসময়ই স্পেশাল এবং খেলোয়াড়রা তাদের সমর্থক ও ক্লাবের জন্য সেরাটা উজাড় করে দেয়।’
ম্যান ইউ’র লড়াইটা শীর্ষ চারে থাকা নিয়ে। চারে থাকা চেলসির চেয়ে ইতোমধ্যে তারা দুই পয়েন্ট পিছিয়ে ছয়ে। এমনিতেই নিজেদের ভাগ্য আর নিজেদের হাতে নেই ‘রেড ডেভিল’ খ্যাত দলটির। আজ হারলে বাকি থাকবে তিন ম্যাচে। সেক্ষেত্রে অনেক যদি কিন্তুর উপর নির্ভর করবে আসছে মৌসুমে তাদের চ্যাম্পিয়ন্স লিগে জায়গা পাওয়া না পাওয়ার বিষয়টি।
লিগে ঘরের মাঠে টানা ১৪ ম্যাচ অপরাজিত থাকলেও মাত্র দুই ম্যাচে তারা নিজেদের জাল অক্ষত রাখতে পারে, পয়েন্ট তালিকার তলানীর দল ফুলহামের সঙ্গে যা মৌসুমের সবচেয়ে বাজে রেকর্ড। আগুয়েরো-জেসুস-স্টালিং-মানেদের মত ভয়ঙ্কর আক্রমণভাগের সামনে যে পরিসংখ্যান সমর্থকদের মনে ভয় ধরিয়ে দেওয়ার মত। অবশ্য নিজেদের দিনে পগবা-লুকাকু-র‌্যাশফোর্ডরা কি করতে পারেন তাও নিশ্চয় জানা আছে সিটির। তাছাড়া দুই ম্যাচের নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে লাল বাহিনীতে দলে যোগ দেবেন লুক শ।
হঠাৎই ছন্দ হারানো ২০ বারের চ্যাম্পিয়ন ইউনাইটেডকে পথ দেখাতে পারবেন বলে আত্মবিশ্বাসী সুলশার। সংবাদ সম্মেলনে গতকাল ভক্তদের এমন আশ্বাসই দিলেন তিনি। বিশেষ করে টানা ব্যর্থতার পর যখন চারিদিকে সমালোচনা ডালপালা মেলতে শুরু করেছে। সেখানে এমন প্রশ্নও তাকে শুনতে হয়েছে, ম্যানচেস্টারের জন্য তিনি যোগ্য ব্যাক্তি কি না। এমন প্রশ্নের জবাবে দলটির সাবেক এই খেলোয়াড় বলেন, ‘আমি সেটাই (যোগ্য) মনে করি। আমি এই ছেলেদের পছন্দ করি- তাদের ভালোবাসি।’ তিনি বলেন, ‘আমরা সেদিনের ম্যাচের পর আলোচনায় বসেছি। সব খেলোয়াড়রাই অনেক হতাশ এবং তাদের পারফশ্যান্সে তারা ব্যাথিত। এই ব্যাথা ভুলবার জন্য সিটি ম্যাচটা হলো আদর্শ।’ সুলশারের আশা, ১৭৮তম ম্যানচেস্টার ডার্বি ম্যাচে আক্রমনাত্মক ফুটবল খেলবে পেপ গার্দিওলার দল, ‘তাদের পাসিং ফুটবল ও আক্রমণ রুখে দেওয়ার জন্য আমরা প্রস্তুত আছি।’ ৪৬ বছর বয়সী বলেন, ‘আমি বলতে পারি এটা হলো সেরা ম্যাচ।’
ক্স প্রিমিয়ার লিগে এ পর্যন্ত ৪৩ বার মুখোমুখি হয়েছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ও ম্যানচেস্টার সিটি। জয় পরাজয়ের পরিসংখ্যানে ২১-১৪ ব্যবধানে এগিয়ে ইউনাইটেড, ৮ ম্যাচ হয়েছে ড্র। সব মিলে ১৭৭ বারের মুখোমুখিতেও ৭৩-৫২ ব্যবধানে এগিয়ে ম্যান ইউ, ৫২ ম্যাচ হয়েছে ড্র।
ক্স ওয়েন রুনির ইউনাইটেড অধ্যায় শেষ হওয়ায় ইংলিশ ফরোয়ার্ডকে ছাড়িয়ে ডার্বি ম্যাচে সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ড নিজের করে নেয়ার সুযোগ সার্জিও আগুয়েরোর সামনে। দুজনের গোলই এখন সমান ১১টি করে।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন