Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার ২১ মে ২০১৯, ০৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ১৫ রমজান ১৪৪০ হিজরী।

তেল আমদানিতে নিষেধাজ্ঞা

জন কেরি ইরানকে অত্যন্ত খারাপ পরামর্শ দিয়েছেন : ট্রাম্প

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৪ এপ্রিল, ২০১৯, ১২:০৪ এএম

ইরান থেকে জ্বালানি তেল আমদানিকারক দেশগুলোকে খুব শিগগিরিই আমদানি বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। গেলো বছর কয়েকটি আমদানিকারক দেশের জন্য নিষেধাজ্ঞা শিথিল করা হলেও আবার তা পুনর্বহাল করা হচ্ছে বলেও জানায় যুক্তরাষ্ট্র। সম্প্রতি ডোনাল্ড ট্রাম্প জানিয়েছেন, নিষেধাজ্ঞার শিথিলতা আর কার্যকর রাখতে চায় না যুক্তরাষ্ট্র। পরমাণু চুক্তি ইস্যুতে ২০১৫ সালে ইরানের জ্বালানি খাতে নিষেধাজ্ঞা পুনর্বহাল করে যুক্তরাষ্ট্র। তবে চীন, ভারত, জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া, তাইওয়ান, ইতালি ও গ্রিসকে কিছু শর্ত সাপেক্ষে জ্বালানি তেল আমদানির অনুমতি দেয় যুক্তরাষ্ট্র। এ ঘোষণার পর বিশ্ববাজারে ৩ শতাংশ বেড়েছে জ্বালানির দর। অপরদিকে, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের অভিযোগ, সাবেক মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরি ইরানকে অত্যন্ত খারাপ পরামর্শ দিয়েছেন। ইরানকে ওই পরামর্শ দেয়ার মাধ্যমে কেরি যুক্তরাষ্ট্রের আইন লঙ্ঘন করে থাকতে পারেন বলেও আভাস দিয়েছেন ট্রাম্প। মার্কিন প্রেসিডেন্ট সোমবার এক টুইটবার্তায় লিখেছেন- জন কেরি ইরানকে অত্যন্ত খারাপ পরামর্শ দিয়েছেন। ২০১৫ সালের জুলাই মাসে আমেরিকাসহ ছয় বিশ্বশক্তি ইরানের সঙ্গে পরমাণু সমঝোতা স্বাক্ষর করে। আমেরিকার পক্ষে ওই সমঝোতায় স্বাক্ষর করেন তৎকালীন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরি। কিন্তু গত বছরের মে মাসে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘন করে ওই সমঝোতা থেকে আমেরিকাকে বের করে নেন। সেই সময় ট্রাম্পের এ পদক্ষেপের তীব্র সমালোচনা করেন জন কেরি। পরমাণু সমঝোতার আলোচনায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালনকারী জন কেরি ওই সমঝোতাকে ‘সবচেয়ে শক্তিশালী, সবচেয়ে জবাবদিহিমূলক এবং বিশ্বের সবচেয়ে স্বচ্ছ পরমাণু সমঝোতা’ বলে উল্লেখ করেন। মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রীর দায়িত্ব ছেড়ে দেয়ার পরও কেরি ইরানের সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষা করেন এবং তিনি ট্রাম্পের ক্ষমতা চলে যাওয়া পর্যন্ত তেহরানকে অপেক্ষা করার পরামর্শ দেন বলে গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবর থেকে জানা যায়। পার্স নিউজ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইরান


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ