Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার , ১১ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১৩ রবিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

জন্মদিনে গুগলের ডুডল

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৪ এপ্রিল, ২০১৯, ১২:০৪ এএম

বাংলা চলচ্চিত্রের স্বর্ণযুগ হিসেবে পরিচিত সত্তরের দশকে শক্তিমান অভিনয়শিল্পী ছিলেন রোজী আফসারী। তার ৭৩তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে বিশেষ ডুডল প্রদর্শন করছে জনপ্রিয় সার্চ ইঞ্জিন গুগল।
গতকাল মঙ্গলবার গুগলের হোমপেজে রোজী আফসারীকে নিয়ে গুগলের ডুডল চোখে পড়ে। ডুডলে গুগল লোগোটিকে রঙিন পর্দায় তুলে ধরা হয়েছে। যেখানে গুগলের ইংরেজি বানানের একটি ‘ও’ অক্ষরের জায়গায় বসানো হয়েছে রোজী আফসারীকে। এ ডুডলে রোজী আফসারীর ক্যারিয়ারকে তুলে ধরা হয়েছে। বাংলাদেশের চলচ্চিত্র জগতে প্রথম নারী পরিচালক হয়ে নারীদের এ পথে আসার বাধা ভেঙে ফেলেন। ১৯৮৬ সালে ‘আশা নিরাশা’ চলচ্চিত্র দিয়ে পরিচালক হিসেবে তার অভিষেক হয়। ২০০৫ সালে তার সর্বশেষ চলচ্চিত্র মুক্তি পায়।
রোজীর প্রকৃত নাম শামীমা আক্তার রোজী। ১৯৪৬ সালের ২৩ এপ্রিল লক্ষীপুর জেলায় জন্মগ্রহণ করেন তিনি। অভিনয় জীবন শুরু করেন ১৯৬৪ সালে রোজী সামাদ নামে। পরবর্তী সময়ে স্বামী মালেক আফসারীর নামের শেষাংশ ব্যবহার করেন নিজের নামের শেষে। সেই থেকে রোজী আফসারী হয়ে ওঠেন তিনি। ১৯৬৪ সালে ‘এই তো জীবন’ চলচ্চিত্র দিয়ে তার কর্ম জীবন শুরু। ১৯৬৪ সালেই তৎকালীন পাকিস্তানের প্রথম রঙিন চলচ্চিত্র জহির রায়হানের ‘সঙ্গম’ ছবিতে দেখা যায় রোজীকে।
১৯৭৩ সালে মুক্তি পায় তার অভিনীত চলচ্চিত্র ‘তিতাস একটি নদীর নাম’। বাংলার পাশাপাশি উর্দু ছবিতেও অভিনয় করেছেন তিনি। মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে ছবি ‘আলোর মিছিল’-এ অভিনয় করেছেন ১৯৭৪ সালে। ১৯৭৫ সালে ‘লাঠিয়াল’ ছবিতে অভিনয়ের জন্য সেরা পার্শ্ব অভিনেত্রী হিসেবে জাতীয় পুরস্কার লাভ করেন রোজী আফসারী।
প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান রোজী ফিল্মসের ব্যানারে অনেক ছবি তৈরি করেন বাংলাদেশের গুণী এ পরিচালক। ২০০৭ সালের ৯ মার্চ তিনি মারা যান।



 

Show all comments
  • Md. Bappy Mollah ২৪ এপ্রিল, ২০১৯, ১:৪২ এএম says : 0
    আমার কাছে অসাধারন লাগে উনারে।।কন্ঠ এত মিষ্টি।
    Total Reply(0) Reply
  • Farhatul Jannat ২৪ এপ্রিল, ২০১৯, ১:৪৩ এএম says : 0
    আম্মুর পছন্দের অভিনেত্রী। এই মুহূর্তে আমার 'জীবন থেকে নেওয়া' মুভিটার কথা মনে পড়ছে। জহির রায়হানের সিনেমা।
    Total Reply(0) Reply
  • Rashed Imam ২৪ এপ্রিল, ২০১৯, ১:৪৪ এএম says : 0
    তিতাস একটি নদীর নাম- এই ছবির মাধ্যমে উনাকে খুব ভালভাবে চিনেছি। আগে পরে যদিও অনেক ছবিতে দেখেছি হয়তো, কিন্তু ভালো করে চিনতাম না। "তিতাস একটি নদীর নাম" দেখে গুগল ঘেটে উনার সম্মন্ধে অনেক কিছু জানতে পারি। তারপর আরেকটা ছবি দেখেছি, "লাঠিয়াল" (১৯৭৫), পুরুষ্কার প্রাপ্ত ছবি।
    Total Reply(0) Reply
  • Riaz Khan ২৪ এপ্রিল, ২০১৯, ১:৪৪ এএম says : 0
    তিনিই একমাত্র অভিনেত্রী যার গলার কন্ঠস্বরের কোন নকল ছিল না,,'
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ