Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ১৭ আগস্ট ২০১৯, ০২ ভাদ্র ১৪২৬, ১৫ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

শেরপুরের নালিতাবাড়ীতে চেয়ারম্যানের গুলিতে নিহত ১, আটক ৫

শেরপুর জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৫ এপ্রিল, ২০১৯, ৬:০২ পিএম

শেরপুরের নালিতাবাড়ীতে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে দুই পক্ষের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ায় ইউপি চেয়ারম্যান পক্ষের গুলিতে ইদ্রিস আলী (৪৫) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছে। নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে দাবী করা হয় যোগানিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান হবির গুলিতেই ইদ্রিস আলী মারা গেছে। আাজ ২৫এপ্রিল বৃহ্স্পতিবার বিকেলে যোগানিয়া ইউনিয়নের কুত্তামারা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত ইদ্্িরস আলী যোগানিয়া ই্উনিয়নের কুত্তামারা গ্রামের ফজর রহমানের পুত্র। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে গুলির খোসা উদ্ধার করে। সেই সাথে পাঁচ জনকে আটক করে । ইদ্রিস হত্যায় অভিযুক্ত চেয়ারম্যান পলাতক রয়েছে।
প্রত্যক্ষদর্শী ও নিহতের পরিবার সুত্রে জানা গেছে, ২৫ এপ্রিল বৃহস্পতিবার দুপুর ১ টায় বোরো ধান কাটা নিয়ে ইউপি চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান হবি ও একই গ্রামের সোরহাব আলীর মধ্যে বিরোধকে কেন্দ্র করে কুত্তামারা ব্রিজের কাছে উভয় পক্ষের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া শুরু হয়। এ সময় চেয়ারম্যান হাববুর রহমান হবির নেতৃত্বে একদল সশস্ত্র লোক ইদ্রিস আলীর বাড়ীতে হামলা করে। এতে উভয় পক্ষের মধ্যে শুরু হলে চেয়ারম্যানের গুলিতে ইদ্রিস আলী ঘটনাস্থলেই নিহত হয়। বেলা ৩ টায় তাকে নালিতাবাড়ী হাসপাতালে আনা হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ইদ্রিসকে মৃত ঘোষণা করেন।
পুলিশ হাসপাতাল থেকে লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে গেছে। হত্যা মামলার প্রস্তুতি চলছে। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে গুলির খোসা উদ্ধার করেছে। ইদ্রিস হত্যায় অভিযুক্ত চেয়ারম্যান পলাতক রয়েছে।
নালিতাবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) আবুল খায়ের ইদ্রিস নিহতের ঘটনাটির সত্যতা নিশ্চিত করে হত্যা ঘটনায় অভিযুক্ত ৫ ব্যক্তিকে আটক করেছেন বলে জানান।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: সংঘর্ষে নিহত


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ