Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার , ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ০৮ রবিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

পাওয়া না পাওয়ার হিসাব-নিকাশ

১৩৭তম জন্মদিনে খুলনা

খুলনা ব্যুরো : | প্রকাশের সময় : ২৬ এপ্রিল, ২০১৯, ১২:০৪ এএম

শিল্প ও বন্দরনগরী খুলনার ১৩৭তম জন্মদিন ছিল গতকাল বৃহস্পতিবার। দেশের দক্ষিণ-পশ্চিম কোনে বঙ্গোপসাগরের কুলজুড়ে খুলনার অবস্থান। নদ-নদী বিধৌত হযরত খানজাহান আলীর (রহ.) স্মৃতিবিজড়িত শহর, সুন্দরবনের কোল ঘেঁষা অপরূপ এ জেলাটি লম্বা আকৃতির ও চৌকা ধরনের।
ইতিহাস ও ঐতিহ্যের খুলনার ১৩৭ বছর পূর্তিতে দিবসটি পালনে চার দিনের কর্মসূচি হাতে নিয়েছে বৃহত্তর খুলনা উন্নয়ন সংগ্রাম সমন্বয় কমিটি। এ উপলক্ষে গতকাল বৃহস্পতিবার উন্নয়ন ভবন মাঠে চার দিনব্যাপী ‘খুলনা দিবস মেলা-২০১৯’র উদ্বোধন করা হয়। এছাড়া ২৭ এপ্রিল সকাল ৯টায় বর্ণিল আয়োজনে খুলনার ইতিহাস-ঐতিহ্য ও প্রাকৃতিক দৃশ্য সম্বলিত বর্ণাঢ্য র‌্যালি এবং সন্ধ্যায় নগরীর শহিদ হাদিস পার্কে আলোচনা ও মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হবে।
এদিকে, জন্মলগ্ন থেকেই দীর্ঘপথ পরিক্রমায় দেশের অন্যান্য অঞ্চলের তুলনায় দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল তথা খুলনা উন্নয়নের দিক থেকে অনেক অনেক গুণ পিছিয়ে থাকায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন খুলনার উন্নয়ন কর্মীরা। সম্প্রতি খুলনায় গ্যাস সরবরাহ করার জন্য যে পাইপ লাইন বসানো হয়েছিল, সে প্রকল্পটি সম্পূর্ণরূপে বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। এছাড়াও খুলনা বিমানবন্দর দ্রুত বাস্তবায়ন, খুলনা মেডিকেল কলেজকে ১০০০ বেডে উন্নীতকরণসহ মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় ঘোষণা, শহররক্ষা বাঁধ, রূপসা ও ভৈরব নদীর তীর ঘেঁষে রিভারভিউ রোড ও পার্ক নির্মাণ, খুলনার স্টেডিয়ামগুলোর অবকাঠামোগত উন্নয়ন, মেরিন একাডেমী, ক্যাডেট কলেজ, বয়রা মেইন রোড সম্প্রসারণসহ খুলনা টেক্সটাইল পল্লী দ্রুত বাস্তবায়ন, মংলা সমদ্র্রবন্দর ও ভোমরা স্থলবন্দরের আধুনিকায়ন, ভৈরব নদীতে আধুনিক ঝুলন্ত সেতু নির্মাণ এবং ভৈরব নদীর তলদেশে টানেল নির্মাণ, আধুনিক পাবলিক হল নির্মাণ, খুলনার শিক্ষা ব্যবস্থা উন্নয়ন, স্বাস্থ্য সেবার মানোন্নয়ন, সুন্দরবন ঘিরে পর্যটন শিল্প প্রসারসহ খুলনার ১৩৭ তম জন্মদিনে বিভিন্ন দাবি জানিয়েছেন খুলনার উন্নয়ন কর্মীরা।
উল্লেখ্য, ১৮৪২ সালে ভৈরব-রূপসা বিধৌত পুণ্যভূমি নয়াবাদ থানা ও কিসমত খুলনা কেন্দ্র করে নতুন জেলার সদর দপ্তর স্থাপিত হয় খুলনায়। খুলনা মহকুমা প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পর ব্রিটিশদের প্রশাসনিক এলাকা বৃদ্ধি এবং ভৌগলিক অবস্থার কারণে খুলনা গুরুত্বপূর্ণ হয়ে ওঠে। মাত্র ৪০ বছরের ব্যবধানে ৪ হাজার ৬৩০ বর্গমাইল এলাকা, ৪৩ হাজার ৫০০ জনসংখ্যা অধ্যুষিত খুলনা, বাগেরহাট ও সাতক্ষীরা নিয়ে ১৮৮২ সালের ২৫ এপ্রিল গেজেট নোটিফিকেশনের মাধ্যমে খুলনা জেলা প্রতিষ্ঠিত হয়। আর সেই পরিসংখ্যান অনুযায়ী খুলনার ১৩৭তম শুভ জন্মদিন ছিল গতকাল। এর আগে খুলনা ছিল যশোর জেলার মহকুমা। ব্রিটিশ শাসক ডাবিøউ এম ক্লে জেলার প্রথম ম্যাজিস্ট্রেটের দায়িত্ব পালন করেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ