Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর ২০১৯, ০৬ কার্তিক ১৪২৬, ২২ সফর ১৪৪১ হিজরী

নারীসহ ৬ সন্দেহভাজনের ছবি প্রকাশ করল শ্রীলঙ্কা

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৬ এপ্রিল, ২০১৯, ৩:৫৭ পিএম

ইস্টার সানডে হামলায় ছয় সন্দেহভাজনের ছবি প্রকাশ করেছে শ্রীলঙ্কা, যার মধ্যে তিনজন নারী রয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে দক্ষিণ এশিয়ার ইতিহাসে সবচেয়ে মারাত্মক বিস্ফোরণের ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগ রয়েছে, যে হামলায় প্রায় ২৫৩জন নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় শুক্রবার পর্যন্ত পুলিশ ৭৬জনকে গ্রেফতার করেছে।

যে নয়জন আত্মঘাতী হামলাকারীর ছবি প্রকাশ করা হয়েছে তারা স্থানীয় জাতীয় তৌহিদ জামাত (এনটিজে) দলের সদস্য বলে মনে করে স্থানীয় নিরাপত্তা বাহিনী, তারা ইস্টার সানডের দিনে তিনটি গীর্জা এবং তিনটি বিলাসবহুল হোটেলে সিরিজ বোমা হামলা চালায়। পুলিশ রোববারের হামলায় জড়িত সন্দেহভাজনদের নাম ও ছবি বৃহস্পতিবার প্রকাশ করে জনগণের কাছ থেকে তথ্য চেয়েছে।

গ্রেফতারকৃতদের অনেকেই এনটিজের সাথে যুক্ত বলে সন্দেহ করা হচ্ছে যে গোষ্ঠীকে বোমা হামলার জন্য দায়ী করা হচ্ছে। তবে, আইএসআইএস হামলার দায় স্বীকার করেছে এবং আত্মঘাতী বোমা হামলায় জড়িতদের তাদের সদস্য বলে শনাক্ত করেছে। পুলিশের অনুসন্ধান অপারেশন চালনায় সাহায্য করার জন্য কর্তৃপক্ষ হাজার হাজার সৈন্য নিযুক্ত করেছে। দেশজুড়ে ৫ সহস্রাধিকেরও বেশি সেনা মোতায়েন করা হয়েছে।
দেশটির সামরিক মুখপাত্র ব্রিগেডিয়ার সুমিথ আতাপাত্তু বলেন, ‘গত ২৪ ঘণ্টার মধ্যে কোনো বড় ধরনের ঘটনা ঘটেনি। আমরা ৬ হাজার ৩০০ এরও বেশি সেনা মোতায়েন করেছি, যার মধ্যে বিমান বাহিনী থেকে ১০০০ এবং নৌবাহিনীর ৬০০ জন রয়েছে।’

কলম্বো থেকে ৪০ কিলোমিটার উত্তরে পুগোদায় ম্যাজিস্ট্রেটের আদালতের পিছনে একটি ছোটখাটো বিস্ফোরণ ঘটে। পুলিশ জানায়, বিস্ফোরণটি একটি আবর্জনা ডাম্পে ঘটে এবং এতে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। কারণ অনুসন্ধানে একটি তদন্ত চালু করা হয়েছে। সন্দেহভাজনদের সম্পত্তি অনুসন্ধান, গ্রেপ্তার ও আটক রাখা এবং এই ধরনের অপারেশনগুলোর জন্য সড়ক অবরোধের ব্যবস্থা করা হয়েছে নতুন জরুরি আইনের আওতায়।
বুধবার দেশটির সংসদে কোন ভোট ছাড়াই এই নিয়ম গৃহীত হয়। রাত ১০টার দিকে কারফিউ শুরু হবে। স্থানীয় ক্যাথলিক গির্জার প্রধান ম্যালকম কার্ডিনাল রঞ্জিত বলেছেন, পরিস্থিতি পরিবর্তিত না হওয়া পর্যন্ত সকল গীর্জা জনসাধারণের জন্য বন্ধ রাখা হচ্ছে। বুধবার শ্রীলঙ্কান সরকার স্বীকার করেছে যে, গোয়েন্দা সংস্থার অক্ষমতাই ‘প্রধান’ কারণ, যার ফলে এমন সমন্বিত হামলার ঘটনা ঘটেছে। সূত্র: এনডিটিভি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: শ্রীলঙ্কা

২৭ আগস্ট, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ