Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার ২২ জুলাই ২০১৯, ০৭ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৮ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

পাবনায় তিন দিনব্যাপী জাতীয় নজরুল সম্মেলন ও বইমেলা শুরু

পাবনা থেকে স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৬ এপ্রিল, ২০১৯, ৬:৪০ পিএম

‘কবি মাইকেল মধুসূদন দত্তের যখন সাহিত্যের খ্যাতি সর্বত্র ঠিক সেই সময় এলেন কবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর । রবির কিরণ যখন চারদিকে ছড়িয়ে যাচ্ছে’ সেই মুহূর্তে এক হাতে বিষের বাঁশরী আর এক হাতে রণতুর্য নিয়ে কালো বৈশাখীর মত্ত ঝাপটার মত কবি কাজী নজরুল ইসলাম এলেন আমাদের বাংলা সাহিত্যের অঙ্গনে। ঝড় তুললেন গানে ও কবিতায়, নাটকে, প্রবন্ধে ,গল্প-উপন্যাসে । তিনি দ্রোহ-বিদ্রোহের কবি, আমাদের জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম।’

বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে পাবনায় শুরু হলো তিনদিনব্যাপি জাতীয় নজরুল সম্মেলন ও ৮ দিনব্যাপী জেলা বইমেলা। এ উপলক্ষে শুক্রবার সকাল ১১টায় শহরের স্বাধীনতা চত্বর’র সামনে থেকে র‌্যালী বের হয়ে শহরের প্রধান প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে।
পরে সরকারী এডওয়ার্ড কলেজ মাঠে ফিতা কেটে, বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে অনুষ্ঠানটির উদ্বোধন করেন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব ড. আবু হেনা মোস্তফা কামাল এনডিসি।

পরে জেলা প্রশাসক জসিম উদ্দিনের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. বিশ্বজিৎ ঘোষ, জাতীয় গ্রন্থাগারের পরিচালক শওকত আলী, কবি নজরুল ইন্সটিটিউট এর নির্বাহী পরিচালক আব্দুর রাজ্জাক ভূঞা, সরকারী এডওয়ার্ড কলেজের অধ্যক্ষ ড. হুমায়ন কবির মজুমদার, ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার গৌতম কুমার বিশ্বাস, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) শাফিউল ইসলাম, বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ও পাবনা সরকারি এডওয়ার্ড কলেজের বাংলা বিভাগের সাবেক প্রধান , প্রফেসর কামরুজ্জামান ।স্বাগত বক্তব্য দেন, কবি নজরুল ইনস্টিটিউটের সচিব ও প্রকল্প পরিচালক মো: আব্দুর রহিম।
সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের পৃষ্টপোষকতায়, নজরুল ইন্সটিটিউট ও জাতীয় গ্রন্থকেন্দ্রের উদ্যোগে এবং জেলা প্রশাসনের আয়োজনে মেলায় ৪৪টি স্টল বসেছে। সরকারি ছুটির দিন সকাল ১১টা হতে রাত ৯টা পর্যন্ত এবং অন্যান্য দিন বিকেল ৩টা হতে রাত ৯টা পর্যন্ত মেলা চলবে। প্রতিদিন সন্ধ্যা ৬টা থেকে স্থানীয় ও ঢাকার বিশিষ্ট শিল্পীরা বইমেলায় সঙ্গীত ও নৃত্য পরিবেশন করবেন।

সম্মেলন ও বইমেলায় নজরুল সঙ্গীত প্রশিক্ষণ, নজরুলের জীবন ভিত্তিক তথ্যচিত্র প্রদর্শনী, আলোচনা সভা, গ্রন্থমেলা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, স্কুল পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের নিয়ে কুইজ প্রতিযোগিতা, কবিতা আবৃত্তি, উপস্থিত বক্তৃতা, কবি কন্ঠে কবিতা আবৃত্তি ইত্যাদির আয়োজন রয়েছে।
বইমেলায় বাংলা একাডেমি, ইসলামিক ফাউন্ডেশন, চলচ্চিত্র প্রকাশনা অধিদপ্তর,কবি নজরুল একাডেমী, বাংলাদেশ শিশু একাডেমী, বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রের স্টল সহ বাংলাদেশ সৃজনশীল প্রকাশক সমিতি, বাংলাদেশ পুস্তক প্রকাশক ও বিক্রেতা সমিতির অংশগ্রহণ করেছে।
এছাড়াও পাবনার সকল উপজেলার ৫০ জন শিল্পীকে স্বনামধন্য শিল্পী ফাতেমাতুজ জোহরা ও সালাউদ্দিন আহমেদ দ্বারা দেয়া হচ্ছে নজরুল সঙ্গীত প্রশিক্ষণ। ইতোমধ্যে পাবনার ১০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নজরুল বিষয়ক রচনা, আবৃত্তি, সঙ্গীত ও নৃত্য প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এদের মধ্যে ১২০ জনকে পুরস্কার দেয়া হবে ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ