Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার ১৭ জুন ২০১৯, ৩ আষাঢ় ১৪২৬, ১৩ শাওয়াল ১৪৪০ হিজরী।

দখল-দূষণে তুরাগ

চিঠিপত্র

| প্রকাশের সময় : ২৭ এপ্রিল, ২০১৯, ১২:০৬ এএম

দখল আর দূষণের কবলে পড়ে তুরাগ নদ মৃতপ্রায়। আশপাশের কারখানার রাসায়নিক বর্জ্য, বাসাবাড়ির পয়ঃবর্জ্য, পাম্প হাউসের দূষিত পানি ও ডায়িং কারখানার দূষিত তরল বর্জ্যে তুরাগের অবস্থা কাহিল। দীর্ঘদিন ধরে ড্রেজিং না করায় নদটি ধীরে ধীরে ভরাট হয়ে যাচ্ছে। তুরাগের বুকজুড়ে এখন দখল আর দূষণের অত্যাচার। বিভিন্ন ধরনের প্লাস্টিক, পলিথিন, বাসাবাড়ির ময়লা-আবর্জনা প্রতিদিনই ফেলা হচ্ছে এ নদে। দূষিত আর দুর্গন্ধযুক্ত পানিতে মাছ তো দূরে থাক, কোনো পোকাও টিকতে পারছে না! নদের আশপাশে ছড়িয়ে পড়ছে দূষণের প্রভাব। টঙ্গী-গাজীপুর এলাকায় তুরাগের তীর ঘেঁষে গড়ে ওঠা শিল্পকারখানার বর্জ্য সরাসরি এখানে এসে পড়ছে। এ ছাড়া মিরপুর-উত্তরার বাসাবাড়ির ময়লা-আবর্জনার একাংশ নদে এসে পড়ছে। একসময় তুরাগ নদের সৌন্দর্য দেখতে বিকেলবেলা দর্শনার্থীদের আনাগোনা দেখা যেত; কিন্তু এখন চারপাশজুড়ে শুধুই দুর্গন্ধ। দূষণ আর দখলের কবলে পড়ে ধীরে ধীরে তুরাগ মরা নদে পরিণত হচ্ছে। তাই এখনই পরিকল্পিত উদ্যোগের মাধ্যমে দখলদারদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে হবে।
সাধন সরকার
সাবেক ছাত্র, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: চিঠিপত্র


আরও
আরও পড়ুন