Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ০২ এপ্রিল ২০২০, ১৯ চৈত্র ১৪২৬, ০৭ শাবান ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

শ্রীলঙ্কায় বাড়তি নিরাপত্তা চাইলেন শতাধিক এমপি

গির্জা বন্ধ, টিভির সামনে প্রার্থনায় যোগ দিলেন ক্যাথলিকরা

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৯ এপ্রিল, ২০১৯, ১২:০৫ এএম

শ্রীলঙ্কায় সিরিজ বিস্ফোরণের ঘটনার এক সপ্তাহ পূর্ণ হলো রবিবার। বিস্ফোরণের পর নতুন হামলার আশঙ্কায় বন্ধ রয়েছে গির্জাগুলো। এদিন তাই টেলিভিশন স¤প্রচারে ধর্মোপদেশ দিয়েছেন কলম্বোর আর্চবিশপ কার্ডিনাল ম্যালকম রঞ্জিত। আর বাড়িতে টিভির সামনে বসেই প্রার্থনায় যোগ দেন দেশটির ক্যাথলিক খ্রিস্টানরা। হামলার এক সপ্তাহের মাথায় রবিবার কলম্বোতে নিজ বাড়িতে একটি ছোট চ্যাপেলে বসে ধর্মযাজক ও দেশের নেতাদের সামনে ধর্মীয় বাণী দেন কার্ডিনাল ম্যালকম রঞ্জিত। বাড়িতে বসেই সে প্রার্থনায় যোগ দেন ক্যাথলিক খ্রিস্টানরা। বিস্ফোরণের ঘটনার পর উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা তাড়া করে ফিরছে সাধারণ মানুষের মনে। ইতোমধ্যেই দেশটিতে আরও হামলার আশঙ্কা জানিয়ে ভ্রমণ সতর্কতা জারি করেছে যুক্তরাষ্ট্র। এরমধ্যেই পুলিশ জানিয়েছে, তাদের কাছে বাড়তি নিরাপত্তা চেয়েছেন শ্রীলঙ্কার শতাধিক এমপি। তাদের মধ্যে দেশটির সরকারি ও বিরোধী উভয় দলের এমপিরা রয়েছেন। পুলিশের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা জানিয়েছেন, এমপিরা তাদের বলেছেন যে, তারা নিরাপত্তা হুমকির মুখে রয়েছেন। কয়েকজন তাদের পরিবারের সদস্যদেরও নিরাপত্তা দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি বলেন, ইতোমধ্যেই কয়েকজনকে নিরাপত্তা দেওয়া হয়েছে। তাদের নিরাপত্তায় অতিরিক্ত পুলিশ ও গাড়ি দেওয়া হয়েছে। অতিরিক্ত নিরাপত্তা আসলেই প্রয়োজন কি-না, তা নির্ধারণের জন্য হুমকি মূল্যায়ন করা হবে। ইতিমধ্যেই দেওয়া নিরাপত্তা সুরক্ষার জন্য যথেষ্ট কিনা তা-ও বিবেচনায় নেয়া হবে। এর আগে গোয়েন্দা প্রতিবেদনে বলা হয়, দেশটর সরকারি ও বিরোধী দলের ১৪ জন এমপি নিরাপত্তা হুমকির মুখে রয়েছেন। ২১ এপ্রিল খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীদের ইস্টার সানডে উদযাপনকালে শ্রীলঙ্কার রাজধানী কলম্বো ও তার আশপাশের তিনটি গির্জা ও তিনটি হোটেলসহ আটটি স্থানে হামলা চালানো হয়। এতে নিহত হন ২৫৩ জন। ভয়াবহ এই সিরিজ বোমা হামলার পর সন্দেহভাজনদের খোঁজে তল্লাশি জোরালো করেছে দেশটির নিরাপত্তা বাহিনী। শুক্রবার তাদের অভিযানে কলম্বো থেকে ২০০ মাইল দূরত্বে একটি ‘বোমা তৈরির কারখানার’ সন্ধান মিলেছে। ধারণা করা হচ্ছে, বাড়িটি সুইসাইড ভেস্ট তৈরির কারখানা হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছিল। এটি উপকূলীয় সামানথুরাই এলাকায় অবস্থিত। সেখানে নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে জঙ্গিদের বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটেছে। ইতোমধ্যে দেশজুড়ে প্রায় ১০ হাজার সেনা মোতায়েন করা হয়েছে। গ্রেফতার ও তল্লাশি অভিযান এবং ধর্মীয় স্থাপনার নিরাপত্তা নিশ্চিতে সেনারা দায়িত্ব পালন করবে। দ্য সানডে টাইমস।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: শ্রীলঙ্কা

২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন