Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার ২০ জুন ২০১৯, ৬ আষাঢ় ১৪২৬, ১৬ শাওয়াল ১৪৪০ হিজরী।

ছয় দফা দাবিতে জমিয়াতুল মোদার্রেছীনের মানববন্ধন

বেসরকারি শিক্ষক-কর্মচারীদের ৪ শতাংশ বেতন কর্তনের প্রতিবাদ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৬ মে, ২০১৯, ১২:০৪ এএম

অবসর সুবিধা বোর্ড এবং শিক্ষক-কর্মচারী কল্যাণ ট্রাস্ট থেকে বেতন কর্তনের প্রজ্ঞাপন প্রত্যাহার, পূর্ণাঙ্গ পেনসন সুবিধা, চাকুরী জাতীয়করণসহ ছয় দফা দাবি জানিয়েছে দেশের মাদরাসা শিক্ষক-কর্মচারীদের সবচেয়ে বড় সংগঠন বাংলাদেশ জমিয়াতুল মোদার্রেছীন।
গতকাল রাজধানীহর সারাদেশেই মানববন্ধন করে সংগঠনটি। রাজধানীতে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বাংলাদেশ জমিয়াতুল মোদার্রেছীন ঢাকা মহানগরী ও ঢাকা জেলার আয়োজনে এক মানববন্ধন করা হয়। এরপর প্রধানমন্ত্রী বরাবর ঢাকা জেলা প্রশাসকের কাছে একটি স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন জমিয়াতুল মোদার্রেছীনের কেন্দ্রীয় মহাসচিব মাওলানা শাব্বীর আহমদ মোমতাজী, ঢাকা মহানগর সভাপতি আ খ ম আবুবকর সিদ্দীক, মহানগরের সাধারণ সম্পাদক মাওলানা আবু জাফর মো. ছাদেক হাছান, সহ-সভাপতি ড. মাওলানা নজরুল ইসলাম আল মারুফ।
সংগঠনটির দাবিগুলো হল, বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষক-কর্মচারী অবসর সুবিধা বোর্ড এবং শিক্ষক-কর্মচারী কল্যাণ ট্রাস্টের শিক্ষক-কর্মচারীদের বেতন হকে অতিরিক্ত ৪% কর্তনের ১৫ এপ্রিল ২০১৯ তারিখের প্রজ্ঞাপন অবিলম্বে প্রত্যাহার করা; বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষক-কর্মচারী ‘অবসর সুবিধা বোর্ড এবং এবং শিক্ষক-কর্মচারী কল্যাণ ট্রাস্ট’ এর মাধ্যমে ভাতা প্রদানের পরিবর্তে পূর্ণাঙ্গ পেনসন সুবিধা চালু করা; সকল বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষক-কর্মচারীদের চাকুরী জাতীয়করণ করা; স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী শিক্ষকদের জাতীয় বেতন স্কেলে মাসিক বেতন প্রদান করা; অনার্স-মাস্টার্স পাঠদানকারী শিক্ষক ও নন-এমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারীদের এমপিও ভূক্ত করা, সম্মানজনক বাড়িভাড়া, পূর্ণাঙ্গ উৎসব ভাতা ও মেডিকেল ভাতা প্রদান করা।
এ সময় মাওলানা শাব্বীর আহমদ মোমতাজী বলেন, গত ১৫ এপ্রিল শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের প্রজ্ঞাপনে বেসরকারি শিক্ষক-কর্মচারীদের অবসর সুবিধা বোর্ড ও কল্যাণ ট্রাস্টের অর্থ এপ্রিল মাসের বেতন থেকে কর্তনের সিদ্ধান্তে বেসরকারি শিক্ষক-কর্মচারীরা খুবই আশাহত হয়েছে। অবিলম্বে এ সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করা হবে বলে সরকারের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।
তিনি আরো বলেন, বর্তমান সরকার দেশে এক বৈপ্লবিক পরিবর্তন এনেছে। বাংলাদেশকে উন্নয়নের রোল মডেলে পরিণত করেছে। মাদরাসা তথা বেসরকারি শিক্ষক-কর্মচারীদের কল্যাণ ও আর্থ সামাজিক উন্নয়নে উদাহরন সৃষ্টি করেছে। আসলামি আরবি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করে ইতিহাস সৃষ্টি করেছে।
মাওলানা মোমতাজি বলেন, শিক্ষানীতি প্রণয়ন, শিক্ষকদের নতুন বেতন সেক্ল, শিক্ষার্থীদের বিনামূল্যে বই বিতরণ, অবসর ও কল্যাণ তহবিল এ বরাদ্ধ প্রদান, শিক্ষ কর্মচারীদের বার্ষিক ৫ শতাংশ ইনক্রিমেন্ট, বৈশাখী ভাতা প্রদান করা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঐতিহাসিক অবদান। আশা করি আমাদের দাবি মেনে নিয়ে প্রধানমন্ত্রী চিরদিন আমাদের নিক অমর হয়ে থাকবেন।
চট্টগ্রাম ব্যুরো জানায়, ৬ দফা দাবিতে গতকাল (রোববার) বাংলাদেশ জমিয়াতুল মোদার্রেছীন চট্টগ্রামের উদ্যোগে চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সামনে বিশাল মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়। মানববন্ধন শেষে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে গিয়ে বাংলাদেশ জমিয়াতুল মোদার্রেছীন চট্টগ্রামের নেতৃবৃন্দ ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক মো. দেলোয়ার হোসেনের কাছে স্মারকলিপি প্রদান করেন। জমিয়াতুল মোদার্রেছীন চট্টগ্রাম জেলা সভাপতি অধ্যক্ষ আল্লামা মোখতার আহমদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন জেলা জমিয়াতুল মোদার্রেছীনের সেক্রেটারি অধ্যক্ষ আল্লামা আবুল ফরাহ মুহাম্মদ ফরিদ উদ্দীন, মহানগর জমিয়াতুল মোদার্রেছীনের সেক্রেটারি অধ্যক্ষ আল্লামা ইছমাইল নোমানী, অধ্যক্ষ বদিউল আলম রেজভি, অধ্যক্ষ আবুল কালাম, অধ্যক্ষ মাহবুবুল আলম সিদ্দিকী, অধ্যক্ষ ইকরাম হোসেন, অধ্যক্ষ মহিউদ্দিন হাশেমী, অধ্যক্ষ আমিনুল ইসলাম, অধ্যক্ষ এম হামেদ হাসান, অধ্যক্ষ আবুল কাশেম, অধ্যাপক আবদুস শুকুর, অধ্যাপক আবুল মনসুর, অধ্যাপক মাহফুজুল হক, অধ্যাপক আসিফ উদ্দিন, মাওলানা কামাল উদ্দিন প্রমুখ।
যশোর ব্যুরো জানায় জমিয়াতুল মোদার্রেছীন গতকাল রোববার যশোর প্রেসক্লাবের সামনে বিশাল মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে। বেসরকারী শিক্ষক-কর্মচারীদের অবসর ও কল্যাণ তহবিল থেকে অতিরিক্ত ৪% কর্তনের প্রতিবাদে এবং মাদরাসা শিক্ষক-কর্মচারীদের চাকরি জাতীয়করণসহ সকল সুবিধা প্রদান এবং এবতেদায়ী শিক্ষকদের বেতন জাতীয় স্কেলে অর্ন্তভুক্তিসহ বিভিন্ন দাবিতে মাদরাসা শিক্ষকরা এই মানববন্ধন করে। কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে মানবন্ধন কর্মসূচি শেষে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি দেওয়া হয় জেলা প্রশাসকের কাছে। মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন জেলা জমিয়তের সভাপতি আমিনিয়া আলীয়া মাদরাসার উপাধ্যক্ষ মাওলানা নূরুল ইসলাম।
নোয়াখালী ব্যুরো জানায়, মাদ্রাসা শিক্ষক-কর্মচারীদের একক অরাজনৈতিক সংগঠন বাংলাদেশ জমিয়াতুল মোদার্রেছীন নোয়াখালী জেলা শাখার পক্ষ থেকে বেসরকারী শিক্ষক-কর্মচারীদের মূল বেতন হতে অবসর ভাতা ও কল্যাণ ফান্ডের নামে অতিরিক্ত ৪% কর্তনের সরকারি সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ করেছেন। বিবৃতি দাতাগণ হলেন জমিয়াতুল মোদার্রেছীন নোয়াখালী জেলা সভাপতি অধ্যক্ষ হা: মাও: ওহিদুল হক, সহ-সভাপতি অধ্যক্ষ মাও: ইসমাইল ছিদ্দিকী, সহ সভাপতি অধ্যক্ষ মাও: মফিজুল ইসলাম, সহ সভাপতি অধ্যক্ষ মাও: আমিরুজ্জামান, সহ-সভাপতি অধ্যক্ষ মাও: এ.এইচ.এম আব্দুল হাই, সাধারণ সম্পাদক মাও: রুহুল আমিন চৌধুরী, যুগ্ম সম্পাদক, মাও: মীর মোশার্রাফ মো: মোস্তফা, যুগ্ম সম্পাদক মাও: আবু সালমান, সাংগঠনিক সম্পাদক মাও: শামছুল এরফান সহ বেগমগঞ্জ, সদর, চাটখিল, সোনাইমুড়ি, কবিরহাট, সেনবাগ, কোম্পানীগঞ্জ ও সুবর্ণচর উপজেলা সমূহের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকগণ।
রাজশাহী ব্যুরো জানায়, কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসাবে গতকাল মানববন্ধন ও জেলা প্রশাসকের নিকট স্বারকলিপি পেশ করেছে রাজশাহী জেলা জমিয়াতুল মোর্দারেছীন এর নেতৃবৃন্দ। রাজশাহীর জেলা প্রশাসক আব্দুল কাদেরের হাতে স্বারকলিপি তুলে দেন জমিয়াতের যুগ্মমহাসচিব ও রাজশাহী জেলা সম্পাদক মো: মোকাদ্দাসুল ইসলাম। জেলা সভাপতি আব্দুল গফুর মিঞা, গোদাগাড়ি সভাপতি মাহবুবব আলম, পবা উপজেলা সভাপতি আলতাব উদ্দিন, মোহনপুর সহ-সভাপতি মো: দুরুল হোদা, মহানগর সভাপতি এইচএম শহিদুল ইসলাম, পুঠিয়া উপজেলা সভাপতি হাবিবুর রহমান, দূর্গাপুর সভাপতি মো: আলতাব হোসেনসহ নেতৃবৃন্দ। প্রধানমন্ত্রী বরাবর প্রেরিত স্বারকলিপিতে মাদরাসার শিক্ষার উন্নয়নে প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন জানানো হয়। সাথে সাথে ছয়দফা দাবি মেনে নেয়া উদাত্ত আহবান জানানো হয়।
খুলনা ব্যুরো জানায়, খুলনায় মানববন্ধন পালন করে বাংলাদেশ জমিয়াতুল মোদার্রেছীন। মানববন্ধনশেষে প্রধানমন্ত্রী বরাবর খুলনা জেলা প্রশাসকের নিকট স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ জমিয়াতুল মোদার্রেছীন খুলনা মহানগর সভাপতি মাওলানা অধ্যক্ষ আ খ ম যাকারিয়া, জেলা সভাপতি মাওলানা অধ্যক্ষ আব্দুর রহমান, মহানগর সেক্রেটারি ডি এম নুরুল ইসলাম, জেলা সেক্রেটারি মাওলানা শফি উদ্দিন নেছারি, সদর থানা সভাপতি মাওলানা মুফতি আব্দুর রাজ্জাক, সেক্রেটারি মাওলানা আসাদুজ্জামান, সোনাডাঙ্গা থানা সেক্রেটারি মুহাদ্দিস আনোয়ার হোসাইন, দাকোপ সভাপতি জি এম মনিরুজ্জামান, বটিয়ঘাটা সভাপতি মাওলানা বোরহান উদ্দিন, খানজাহান আলি থানা সভাপতি মাওলানা নাছির উদ্দিন প্রমুখ।
বিশেষ সংবাদদাতা কক্সবাজার থেকে জানান, বাংলাদেশ জামিয়াতুল মোদার্রছীনের কক্সবাজার জেলা শাখার সভাপতি প্রিন্সিপ্যাল মাওলানা কামাল হোসেনের সভাপতিত্বে বিভিন্ন দাবি দাওয়া নিয়ে কক্সবাজার জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, প্রিন্সিপাল মাওলানা জাফরুল্লাহ নুরী, জেলা সেক্রেটারি প্রিন্সিপাল মাওলানা শাহাদাত হোসাইসহ জমিয়াত নেতৃবৃন্দ ও ওলামায়ে কেরাম। মানববন্ধন শেষে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধামনন্ত্রী বরারবর স্মারক লিপি প্রদান করা হয়।
বগুড়া ব্যুরো জানায়, কেন্দ্র ঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে বাংলাদেশ জমিয়াতুল মোদার্রেছীন বগুড়া জেলা শাখার উদ্যোগে এক বিরাট মানববন্ধন ও প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদানের কর্মসূচি পালন করা হয়। সংগঠনের বগুড়া জেলা শাখা সভাপতি মাওলানা আব্দুল হাই বারীর সভাপতিত্বে এবং মহাস্থান মাহি সাওয়ার আলিম মাদরাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা আবু বক্কর ছিদ্দিকের সঞ্চালনায় ঘণ্টাব্যাপি এ মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, মাদরাসা শিক্ষার বলিষ্ঠ সমর্থক প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শিক্ষানীতি প্রণয়ন, শিক্ষকদের নতুন বেতন স্কেল প্রদান, শিক্ষক-কর্মচারিদের ইনক্রিমেন্ট, বৈশাখী ভাতাসহ শিক্ষাক্ষেত্রে অনেক অবদান রেখেছেন। আমরা তাই গভীরভাবে আশা করি প্রধানমন্ত্রী শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ওই সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারের ব্যবস্থা করবেন। পরে বগুড়া জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। বগুড়া জেলা প্রশাসক ফয়েজ আহম্মেদের পক্ষে স্মারকলিপি গ্রহণ করেন অতিরিক্তি জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মো. আব্দুস সামাদ।
সিলেট ব্যুরো জানায়, প্রধানমন্ত্রী বরাবর এক স্মারকলিপি প্রদান করেছে বাংলাদেশ জমিয়াতুল মোদার্রেছীনের সিলেট জেলা শাখা। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের সহ-সভাপতি প্রিন্সিপাল মাওলানা আব্দুল লতিফ, সাধারণ সম্পাদক প্রিন্সিপাল মাওলানা মো. ছরওয়ারে জাহান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক প্রিন্সিপাল মাওলানা মো. আব্দুস সবুর, সাংগঠনিক সম্পাদক প্রিন্সিপাল মাওলানা মো. আজিজ আহমদ, সিনিয়র সদস্য প্রিন্সিপাল মাওলানা আতাউর রহমান প্রমুখ।
স্টাফ রিপোর্টার, নরসিংদী থেকে জানান, নরসিংদীতে জমিয়াতুল মোদার্রেছীন নরসিংদী জেলা শাখা গতকাল এক মানববন্ধনের আয়োজন করে। নরসিংদী জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে মানববন্ধন চলাকালীন বক্তব্য রাখেন জমিয়াতুল মোদার্রেছীন নরসিংদী জেলা শাখার সভাপতি মাওলানা মো. আবদুল জলিল মিয়া, সাধারণ সম্পাদক মা. মো. আবু রায়হান। পরে জমিয়াতুল মোদার্রেছীন এর নেতৃবৃন্দ নরসিংদী জেলা প্রশাসক সৈয়দা ফারহানা কাউনাইন এর মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবরে স্বাক্ষর লিপি প্রদান করেন।
স্টাফ রিপোর্টার, কিশোরগঞ্জ জানান, কিশোরগঞ্জে জমিয়াতুল মোদার্রেছীন এর উদ্যোগে মানববন্ধন ও জেলা প্রশাসনের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবরে স্মারকলিপি দিয়েছে। গতকাল সকাল ১১ টা হতে ১২ টা পর্যন্ত জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে আয়োজিত মানববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ জমিয়াতুল মোদার্রেছীন কিশোরগঞ্জ জেলা শাখার সভাপতি মাওলানা মো. মাসউদ আলম। বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ জমিয়াতুল মোদার্রেছীন কিশোরগঞ্জ জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক মাওলানা আ. হাই, সদর উপজেলা শাখার সভাপতি আ. খালেক, সাধারণ সম্পাদক মাওলানা ইসরাইল, ইটনা শাখার সভাপতি মাওলানা মো. আ. হাকিম, ভৈরব শাখার সাধারণ সম্পাদক মাওলানা মোস্তাফিজুর রহমান, করিমগঞ্জ শাখার সম্পাদক আনোয়ারুল হাসান প্রমুখ।
কুমিল্লা থেকে স্টাফ রিপোর্টার জানান, বাংলাদেশ জমিয়াতুল মোদার্রেছীন কুমিল্লা জেলা শাখার নেতৃবৃন্দ মানববন্ধন ও প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি দিয়েছেন। সংগঠনের কুমিল্লা জেলার সাধারণ সম্পাদক ইসলামিয়া আলিয়া কামিল মাদরাসার অধ্যক্ষ আলহাজ্ব মাওলানা মোহাম্মদ আবদুল মতিন ছাড়াও মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন সহসভাপতি অধ্যক্ষ শাহ মোহাম্মদ মহিউদ্দিন, সহসভাপতি অধ্যক্ষ মাওলানা মো.আবদুল কুদ্দুস, প্রমুখ। পরে নেতৃবৃন্দ কুমিল্লা জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করেন। জেলা প্রশাসকের পক্ষে স্মারকলিপি গ্রহণ করেন অতিরিক্তি জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মো. মাইন উদ্দিন।
ফেনী জেলা সংবাদদাতা জানান, কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে বাংলাদেশ জমিয়াতুল মোদার্রেছীন ফেনী জেলা শাখার উদ্যোগে এক বিশাল মানববন্ধন কর্মসূচি জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে গতকাল সকাল ১১টায় অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধন শেষে তারা প্রধানমন্ত্রী বরাবরে দেয়া স্বারকলিপি ফেনী জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সহকারী কমিশনার এন এম আবদুল্লাহ আল মামুনের হাতে হস্তান্তর করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন জেলা জমিয়াতুল মোদার্রেছীনের সভাপতি মাওলানা হোছাইন আহাম্মদ, সেক্রেটারি মাওলানা নুরুল আফছার ফারুকী, সহ-সভাপতি মাওলানা ছিদ্দিক উল্লাহ, সদর উপজেলা জমিয়তের সভাপতি মাওলানা ইয়াকুব ফারুকী, সেক্রেটারি মাওলানা আবদুল লতিফ, দাগনভূইয়া জমিয়াতুল মোদার্রেছীনের সভাপতি মাওলানা আবুল কালাম আযাদ, সেক্রেটারি মাওলানা ফারুক আহাম্মদ, ফুলগাজী জমিয়াতুল মোদার্রেছীনের সভাপতি মাওলানা একেএম আলতাফ হোসেন, পরশুরাম জমিয়াতুল মোদার্রেছীনের সভাপতি মাওলানা নুরুল ইসলাম, সেক্রেটারি মাওলানা নুরুল আলম, সোনাগাজী জমিয়াতুল মোদার্রেছীনের সেক্রেটারি মাওলানা মো. ইলিয়াছসহ জেলা সদর, উপজেলা থেকে আগত বিপুল সংখ্যক মাদরাসা শিক্ষক ও কর্মচারি উপস্থিত ছিলেন।
ঝালকাঠি জেলা সংবাদদাতা জানান, সকাল ১১টায় জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনের সড়কে ঘণ্টাব্যাপি এ কর্মসূচি পালন করেন জমিয়াতুল মোদার্রেছীন ঝালকাঠি জেলা শাখা। শিক্ষকদের সঙ্গে শিক্ষার্থীরাও একাত্মতা প্রকাশ করে মানববন্ধনে অংশ নেয়। মানববন্ধন চলাকালে বক্তব্য রাখেন সংগঠনের জেলা শাখার সভাপতি ও এনএস কামিল মাদরাসার অধ্যক্ষ মাওলানা আবু জাফর মোহাম্মদ ছালেহ, সেক্রেটারি মাওলানা মাহাবুবুর রহমান, শিক্ষকনেতা মাওলানা আব্দুল মন্নান।
মাদারীপুর জেলা সংবাদদাতা জানান, মাদারীপুর জমিয়াতুল মোর্দারেছীন মাদারীপুর জেলা শাখার উদ্যোগে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে গতকাল সকাল ১০ টায় এক মানববন্ধন অনু্িষ্ঠত হয়। এতে বক্তব্য রাখেন জেলা কমিটির সভাপতি ও আহমদিয়া কামিল মাদরাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা শাহাদাৎ হোসাইন, সেক্রেটারি আবুরাফে মুহাম্মদ ফেরদাউস মাওলানা জাহিদুল ইসলাম প্রমুখ নেতবৃন্দ।
নড়াইল জেলা সংবাদদাতা জানান, নড়াইল জেলা শাখার উদ্যোগে মানববন্ধন শেষে স্মারকলিপি দেয়া হয়েছে। গতকাল বেলা ১১টায় নড়াইল আদালত সড়কে অনুষ্ঠিত মানববন্ধন বক্তব্য দেন জমিয়াতুল মোদার্রেছীন নড়াইল জেলা শাখার সভাপতি অধ্যক্ষ মাওলানা মো. আনোয়ার হোসেন, সাধারণ সম্পাদক লাহুড়িয়া সিদ্দিকিয়া ফাজিল মাদরাসার অধ্যক্ষ মাওলানা সৈয়দ মো. ফজলুর করিম প্রমুখ।
রাজবাড়ী জেলা সংবাদদাতা জানান, রাজবাড়ীতে ৬ দফা দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন ও স্মারক লিপি প্রদান করেছে মাদ্রাসা শিক্ষক-কর্মচারীরা। রাজবাড়ী প্রেসক্লাব চত্ত¡রে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেন বাংলাদেশ জমিয়াতুল মোর্দারেছীন রাজবাড়ী জেলা শাখা। মানববন্ধন কর্মসূচি শেষে রাজবাড়ীর জেলা প্রশাসক মো. শওকত আলী’র হাতে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারক লিপি প্রদান করেন। মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন রাজবাড়ী জেলা জমিয়াতুল মোদার্রেছীনের সভাপতি আবুল এরশাদ মো: সিরাজুম্মুনির ও সাধারণ সম্পাদক আবু মুসা আশয়ারিসহ প্রমুখ।
রংপুর থেকে স্টাফ রিপোর্টার জানান, রংপুরে মানববন্ধন ও স্মারকলিপি প্রদান করে বাংলাদেশ জমিয়াতুল মোদার্রেছীন রংপুর জেলা ও মহানগর শাখা। মানববন্ধনশেষে রংপুর জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর জেলা স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। এতে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ জমিয়াতুল মোদার্রেছীন রংপুর জেলা সভাপতি অধ্যক্ষ আ.ন.ম হাদীউজ্জামান, কাউনিয়া উপজেলা সভাপতি মাওলানা আ. রশিদ, তারাগঞ্জ উপজেলা সভাপতি ড. মো. আব্দুস সালাম, মিঠাপুকুর উপজেলা সভাপতি মাওলানা আব্দুল মোনায়েম, পীরগাছা উপজেলা সভাপতি মাওলানা আব্দুজ্জাহেরসহ নেতৃবৃন্দ। পরে তারা রংপুর জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান করেন।
শেরপুর জেলা সংবাদদাতা জানান, বাংলাদেশ জমিয়াতুল মোদার্রেছীন শেরপুর জেলা শাখা বিভিন্ন দাবীতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে। জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, জেলা জমিয়তের সভাপতি মাওলানা নূরুল আমীন, সাধারণ সম্পাদক মেরাজ উদ্দিন, প্রমুখ। পর জেলা প্রশাসক আনারকলি মাহবুবের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর বরাবরে স্মারক লিপি প্রদান করা হয়।
সিরাজগঞ্জ জেলা সংবাদদাতা জানান, সিরাজগঞ্জ জেলার ৯টি উপজেলার জমিয়াতুল মোদার্রেছীনের পক্ষে জেলা প্রশাসক সিরাজগঞ্জ এর মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। গতকাল সকালে ৯টি উপজেলা জমিয়তের নেতৃবৃন্দ একত্রিত হয়ে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে বিশাল মানববন্ধন করেন। পরে স্মারকলিপি প্রদান করেন। এসময় জমিয়তের অন্যান্য নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জেলা শাখার সভাপতি মো. আতিকুর রহমান, সম্পাদক মোহাম্মদ সামছুল আলম, প্রমূখ।
টাঙ্গাইল জেলা সংবাদদাতা জানান, জমিয়াতুল মোদার্রেছীন টাঙ্গাইল জেলা শাখার উদ্যোগে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। পরে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্বারকলিপি প্রদান করা হয়। স্বারকলিপি প্রদান করেন জেলা জমিয়াতুল মোদার্রেছীনের সহ-সভাপতি মাওলানা আব্দুর রহিম, সাধারণ সম্পাদক মাওলানা জাহিদুল ইসলাম। এসময় জেলা উপজেলা জমিয়াতুল মোদার্রেছীন এর নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। মানবববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন জমিয়াতুল মোদার্রেছীন টাঙ্গাইল জেলা শাখার সহ-সভাপতি মাওলানা আব্দুর রহীম।
কালীগঞ্জ (ঝিনাইদহ) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, জমিয়াতুল মোদার্রেছীন ঝিনাইদহ জেলা শাখা গতকাল ৩টার দিকে জেলা প্রশাসক বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করেছে। ছয়দফা দাবিতে তারা স্মারকলিপি প্রদান করেন। স্মারকলিপি প্রদানের সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা জমিয়াতুল মোদার্রেছীনের সভাপতি অধ্যক্ষ রুহুল কুদ্দুস, সহসভাপতি অধ্যক্ষ মাও নুরুল হুদা প্রমুখ।

 



 

Show all comments
  • Shahin Ahmed ৬ মে, ২০১৯, ১:০৮ এএম says : 0
    জমিয়াতের নেতৃত্বে তীব্র আন্দোলন চাই
    Total Reply(0) Reply
  • Mahmudul Hasan ৬ মে, ২০১৯, ১:০৮ এএম says : 0
    স্যার, ১০% কর্তনের প্রতিবাদে কঠোর কর্মসূচি চাই।
    Total Reply(0) Reply
  • Shabuj Chowdury ৬ মে, ২০১৯, ১:০৮ এএম says : 0
    ধন্যবাদ। তবে আরও শক্ত কর্মসূচি দিতে হবে
    Total Reply(0) Reply
  • Md Badiul Alam ৬ মে, ২০১৯, ১:০৯ এএম says : 0
    তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।
    Total Reply(0) Reply
  • Md Shofikul Islam SI ৬ মে, ২০১৯, ১:০৯ এএম says : 0
    তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। সাথে কঠোর আন্দোলনের মাধ্যমে প্রতিবাদ ও প্রতিহত করার দাবী জানাচ্ছি। প্রয়োজনে উচ্চ আদালতের আশ্রয় নেওয়ার জন্য মতামত ব্যক্ত করছি। অর্থ লাগে দেব।
    Total Reply(0) Reply
  • Abu Hanifa Wahid ৬ মে, ২০১৯, ১:০৯ এএম says : 0
    অতিরিক্ত ৪% কর্তন মানিনা,মানবনা।প্রয়োজনে সবকিছু করতে রাজি।
    Total Reply(0) Reply
  • Ashim Kumar ৬ মে, ২০১৯, ১:০৯ এএম says : 0
    আবার নতুন করে কি হলো? এসব মানিনা এবং অবসর কল্যাণ বোর্ডের বিলুপ্তিসহ জাতীয়করণ আন্দোলনের কর্মসূচী দিন।
    Total Reply(0) Reply
  • Md Shofikul Islam SI ৬ মে, ২০১৯, ১:১০ এএম says : 0
    বাংলাদেশের বেসিরকারি শিক্ষক কর্মচারীরা আর কত শোষণের স্বীকার হবে।শিক্ষামন্ত্রনালয় যেন স্বাধীনতাপূর্ব কালের পশ্চিমা শাসক গোষ্ঠী আর বেসশিকরা মনে হচ্ছে পূর্বপাকিস্তানী নিরীহ বাংগালী। এর অবিসান চাই, নিন্মের কালো প্রজ্ঞাপন বাতিল চাই।
    Total Reply(0) Reply
  • অধ্যাপক রিপন পরদেশী ৬ মে, ২০১৯, ১:১০ এএম says : 0
    অবিলেম্ব এ অমানবিক প্রজ্ঞাপন টি বাতিল চাই। নইলে রাজপথে দূর্বার আন্দোলন গড়ে তোলা হবে ।
    Total Reply(0) Reply
  • Ashim Kumar ৬ মে, ২০১৯, ১:১০ এএম says : 0
    আমার জানতে ইচ্ছে হয়, নতুন করে শাহজাহান সাজুকে কল্যাণ বোর্ডের সেক্রেটারী বানালো কে বা কারা? অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক, কল্যাণ বোর্ডের সদস্য হওয়ার যোগ্যতা হারিয়েছে।যে বোর্ড শিক্ষকদের টাকা কাটবে অথচ শিক্ষকদের মতামত নিবেনা এমন বোর্ডের নিকুচি করি।
    Total Reply(0) Reply
  • আবরার খালিব আরিয়ান ৬ মে, ২০১৯, ১:১০ এএম says : 0
    বেসরকারী শিক্ষক সমাজ কর্তনের বিপক্ষে,অপশক্তির বিরুদ্ধে সুসংগঠিত আন্দোলন ছাড়া বিকল্প নেই।
    Total Reply(0) Reply
  • Lecturer Debasish Paul ৬ মে, ২০১৯, ১:১০ এএম says : 0
    লাগাতার ধর্মঘট এবং রীটের কোন বিকল্প নাই। রীট করার জন্য প্রয়োজনে চাঁদা তুলুন।
    Total Reply(0) Reply
  • Lecturer Debasish Paul ৬ মে, ২০১৯, ১:১১ এএম says : 0
    রক্ত মাথায় উঠে গেছে। দালালদের যেখা‌নে পাওয়া যাবে সেখানেই প্রতিহত করতে হবে।
    Total Reply(0) Reply
  • Abdus Salek ৬ মে, ২০১৯, ১:১১ এএম says : 0
    শিক্ষকদের সাথে এমন নোংরা আচরন বারবার কেন করা হচ্ছে? কঠোর কর্মসূচী দিন।
    Total Reply(0) Reply
  • Md Mohammed Ali ৬ মে, ২০১৯, ১:১১ এএম says : 0
    রীট করার জন্য প্রয়োজনে আমরা সবাই আর্থিক সহযোগীতা করব। সেলিম স্যার সবাই এগিয়ে আসুন।দালালের সংঙ্ঘা দালালই।এদের প্রতিহত করতেই হবে।
    Total Reply(0) Reply
  • তানবীর ৬ মে, ২০১৯, ৯:৩৬ এএম says : 0
    জমিয়াতুল- মোদার্রেছীনকে অসংখ্য ধন্যবাদ জানাচ্ছি
    Total Reply(0) Reply
  • রাসেল ৬ মে, ২০১৯, ৯:৩৮ এএম says : 0
    ন্যায়সংঘত দাবি না মেনে উপায় নেই
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মানববন্ধন


আরও
আরও পড়ুন