Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার ২৪ জুন ২০১৯, ১০ আষাঢ় ১৪২৬, ২০ শাওয়াল ১৪৪০ হিজরী।

ঠাকুরগাঁওয়ে ছেলে পক্ষের বিয়েতে অমতের কারণে প্রেমিক যুগলের আত্মহত্যা

ঠাকুরগাঁও জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৯ মে, ২০১৯, ৬:২৫ পিএম

দীর্ঘদিন ধরে প্রেমের সম্পর্ক ছিল তাদের দুজনের। দুই পরিবারেই বিয়ের জন্য আলোচনা করেছিল তারা। কিন্তু ছেলের অভিভাবক প্রেমের সম্পর্ক মেনে না নেওয়ায় দীর্ঘদিন ধরে আটকে ছিল প্রেমের শেষ পরিণতি প্রেমিক যুগলের বিয়ে।
আলাদা স্থানে দুজনকে বিয়ে দিয়ে অনেক দুরে সড়িয়ে দেয়ার চেষ্টা করেছিল দুই পরিবার। এমন সিদ্ধান্ত মেনে নিতে পারে নি ওই প্রেমিক যুগল। তাই নতুন করে ইতিহাস রচনা করতে একই রশিতে আত্মহত্যা করেছে প্রেমিক যুগল। এমন ঘটনা ঘটেছে ঠাকুরগাঁওয়ে রাণীশংকৈল উপজেলায়।

বুধবার গভীর রাতে ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈল উপজেলার কাশিপুর এলাকায় গোরস্থানের পার্শ্বে আমগাছে লাইলন দড়ি দিয়ে ঝুলন্ত প্রেমিক যুগলের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। উদ্ধার করা যুগল হলেন রাণীশংকৈল উপজেলার কাশিপুর ইউনিয়নের ছয়ভাগিয়া গ্রামের কুণ্ঠ কুমার পালের মেয়ে ইচ্ছা রানী পাল(২১) ও বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার আমজানখোর ইউনিয়নের বেউরঝাড়ী নয়াপাড়া গ্রামের খই খোয়া পালের ছেলে সুনীল পাল(২৪)।

ছেলের পরিবারের লোকজনের সাথে কথা বলে জানা গেছে, গত দুদিন ধরে বাড়ীতে ফিরেনি সুনীল পাল। বুধবার রাতে রাণীশংকৈল থানা থেকে তাদেরকে মোবাইলে খবর দিলে সুনীলের খোঁজ পায় তার পরিবার।

এদিকে মেয়ের পরিবারের লোকজন জানিয়েছে আমরা প্রেমের সম্পর্ক মেনে নিয়েছিলাম। কিন্তু ছেলের পরিবারের লোকজন বিষয়টি মেনে না নেয়ার এমন ঘটনা ঘটেছে।

রাণীশংকৈল থানার অফিসার ইনর্চাজ (তদন্ত) খায়রুল আলম ডন বলেন, বুধবার গভীর রাতে লাশ উদ্ধার বৃহস্পতিবার সকালে ঠাকুরগাঁও মর্গে ময়না তদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় রাণীশংকৈল থানায় একটি ইউডি মামলা হয়েছে। ময়না তদন্ত প্রতিবেদন হাতে আসলেই মৃত্যুর প্রকৃত রহস্য উদঘাটন করা সম্ভব।
দু'জন প্রাপ্তবয়স্ক নারী-পুরুষ নিজেদের ব্যাক্তিজীবনের সিদ্ধান্ত নেবার স্বাধীনতা হরণ করার কারণেই এ হৃদয়বিদারক ঘটনাটি ঘটেছে বলে মনে করছেন সমাজ বিশ্লেষক শিক্ষাবীদ অধ্যাপক আবু বক্কর সিদ্দিক ! এ ব্যাপারে সমাজের বিশেষ করে অভিভাবকদের আরো সচেতনতার উদ্যোগ থাকলে এরকম মর্মান্তিক পরিস্থিতি এড়ানো সম্ভব হবে বলে তিনি মত দেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আত্মহত্যা


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ