Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার ১৯ মে ২০১৯, ০৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ১৩ রমজান ১৪৪০ হিজরী।

প্রিয়াঙ্কার এই পোশাক তৈরিতে সময় লেগেছে দুই মাস!

বিনোদন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৯ মে, ২০১৯, ৮:১৭ পিএম

এ বছরের ‘মেট গালা’য় সবাইকে চমকে দিয়ে অদ্ভূত পোশাকে সেজেছিলেন বলিউড অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। এই নিয়ে পরপর তিন বছর ‘মেট গালা’ অনুষ্ঠানে হাজির হয়েছেন এই অভিনেত্রী। তিনি পরেছিলেন দিওর-এর ২০১৮ বসন্তের কালেকশন-এর গাউন। সেটা নিয়ে সব চেয়ে বেশি চর্চা হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়াতে। কিন্তু এই পোশাক তৈরীর পেছনে কল্পকাহিনী জানা ছিল না কারোর। সম্প্রতি সে সংক্রান্ত একটি ভিডিও প্রকাশ পেয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

সেখানে দেখা গিয়েছে প্রায় ১,৫০০ ঘন্টা ধরে সুনিপুণভাবে বোনা হয়েছে প্রিয়াঙ্কার এই পোশাকটি। যুক্তরাষ্ট্রের একটি টেলিভিশন শোয়ের থেকে অনুপ্রাণিত হয়ে এই পোশাক বানানো হয়েছিল বলে জানা গিয়েছে। ভিডিওতে দেখা গেছে, একটি লম্বা পাখির মতো টুপি সমন্বিত টিউলের খাঁচা পোষাক তৈরি করা হয়েছে এবং ধূসর গোলাপী থেকে লাল জ্বলন্ত রঙের বিভিন্ন ধরণের রংগুলিতে প্রদর্শিত টিউল পালকগুলি - হাতের দ্বারা তৈরি করা হয়েছে।

‘মেট গালা’র রেড কার্পেটে প্রিয়াঙ্কাকে দেখা গেছে গলাবন্ধ পোসাকের সঙ্গে লম্বা জুতো ও মাথার টুপি পড়েছিলেন। পাশাপাশি রূপালী রঙের টিপের মতো নানা ছোপ দেখা গিয়েছিল তার শরীরে। রূপালী মেকআপ ছিল চোখে, কালো মেরুন রঙের ঠোঁটে লিপস্টিক। আর মুখের চারিদিকে গ্লিটারের ছোঁয়া।

শুধু প্রিয়াঙ্কা চোপড়াই নন, দীপিকা পাডুকোন, সেলিন ডিওন, কেটি পেরি, লেডি গাগা, সেরেনা উইলিয়ামস সবাই তাদের পোশাকের সাজে চমকে দিয়েছিলেন। যদিও প্রিয়াঙ্কার পোশাকের জন্য নানাভাবে নেটিজেনেরা তাকে সোশ্যাল মিডিয়াতে হেনস্থা করেন। এই অনুষ্ঠানে প্রিয়াঙ্কার সঙ্গে মানানসই পোশাকে উপস্থিত ছিলেন তার স্বামী নিক জোনাসও।

উল্লেখ্য, ‘মেট গালা’ আসলে বার্ষিক ত্রাণ সংগ্রহের রাত। নিউ ইয়র্ক সিটির ম্যানহাটান শহরের ফিফথ অ্যাভিনিউতে অবস্থিত মেট্রোপলিটান মিউজিয়াম অফ আর্টস আছে তার পরিচিতি দ্য মেট নামে। আর গালার বিশেষ এক সামাজিক অনুষ্ঠান যেখানে বিশিষ্টরা আমন্ত্রিত থাকেন এবং পারফর্ম করেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বলিউড


আরও
আরও পড়ুন