Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৯, ০১ কার্তিক ১৪২৬, ১৬ সফর ১৪৪১ হিজরী

ভারতে লোকসভা নির্বাচনের ষষ্ঠ দফা ভোটগ্রহণ চলছে

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১২ মে, ২০১৯, ১০:২৮ এএম

ভারতের চলতি লোকসভা নির্বাচনে ষষ্ঠ দফা ভোটগ্রহণ চলছে। পশ্চিমবঙ্গ, দিল্লিসহ মোট সাতটি রাজ্যের ৫৯টি আসনে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হচ্ছে। মোট সাত দফা ভোটগ্রহণের পাঁচ দফা ইতিমধ্যে শেষ হয়েছে। সামনে বাকি রয়েছে আর মাত্র এক দফা। এরপরই আগামী ২৩ মে ভোটের ফলাফল ঘোষণা করবে ভারতের নির্বাচন কমিশন।

ষষ্ঠ দফায় প্রতিযোগিতা করা প্রার্থীদের মধ্যে সমাজবাদী পার্টির প্রধান অখিলেশ যাদব, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী মানেকা গান্ধী, মধ্যপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী দ্বিগবিজয় সিং, জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া, সাবেক ক্রিকেটার গৌতম গম্ভীর, পশ্চিমবঙ্গের শিশির অধিকারী, অভিনেতা দেব সহ আরও বেশ কয়েকজন হেভিওয়েট প্রার্থী রয়েছেন।

এই দফায় উত্তরপ্রদেশের ১৪টি, হরিয়ানা ১০টি, মধ্যপ্রদেশ, বিহার এবং পশ্চিমবঙ্গের আটটি করে আসনে ভোট হচ্ছে। পাশাপাশি দিল্লির সাতটি লোকসভা কেন্দ্র এবং ঝাড়খণ্ডের চারটি লোকসভা কেন্দ্রেও ভোট নেওয়া হচ্ছে। মোট প্রার্থী সংখ্যা ৯৭৯। ষষ্ঠ দফায় ভোটগ্রহণ হচ্ছে প্রায় এক লক্ষ কেন্দ্রে।

ষষ্ঠ দফা ভোটগ্রহণ বিজেপির কাছে খুবই গুরুত্বপূর্ণ। গত নির্বাচনে এর মধ্যে ৪৫টি আসনেই জিতেছিল বিজেপি। তাছাড়া পশ্চিমবঙ্গে যে কটি আসনে ভোট হচ্ছে তার প্রত্যেকটিতে গতবার জিতেছিলেন তৃণমূল প্রার্থীরা।

গত নির্বাচনে এই দফায় বিজেপির ফল সবচেয়ে ভালো হয়েছিল উত্তর প্রদেশ। ১৪টি আসনের মধ্যে ১৩ টিতেই জিতেছিলেন বিজেপি প্রার্থীরা।

মধ্যপ্রদেশের ভোপালের লড়াইয়ের দিকে রাজনৈতিক মহলের নজর আছে। এই কেন্দ্র থেকে বিজেপির প্রার্থী হয়েছেন মালেগাঁও বিস্ফোরণের অন্যতম অভিযুক্ত সাধ্বী প্রজ্ঞা সিং ঠাকুর। প্রার্থী হওয়ার পর একাধিকবার আপত্তিকর মন্তব্য করেছেন প্রজ্ঞা। তাকে নির্বাচন কমিশনের শাস্তির মুখেও পড়তে হয়েছে।

এছাড়া দিল্লিতে একাধিক বিশিষ্ট প্রার্থীর লড়াই হচ্ছে। প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী শীলা দীক্ষিত, বক্সার বিজেন্দ্র সিংহ, ভারতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক ওপেনার গৌতম গম্ভীর থেকে শুরু করে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হর্ষবর্ধন, প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অজয় মাকেনের লড়াই হচ্ছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ভারতের নির্বাচন


আরও
আরও পড়ুন