Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২ আশ্বিন ১৪২৬, ১৭ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী।

‘শিগগিরই বিশ্ববিদ্যালয়ে সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষা’

একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি শুরু

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৩ মে, ২০১৯, ১২:০৪ এএম

শনিবার মধ্যরাত থেকে শুরু হয়েছে চলতি বছরের একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি কার্যক্রম। গতকাল (রোববার) ঢাকা শিক্ষা বোর্ডে আনুষ্ঠানিকভাবে ভর্তি কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল। ভর্তি কার্যক্রমে কেউ প্রতারণার আশ্রয় গ্রহণ করলে কঠোরভাবে দমন করা হবে বলে জানিয়েছেন তিনি। উপমন্ত্রী বলেন, কেউ যেন প্রতারণার আশ্রয় না নিতে পারে সে জন্য একাদশ শ্রেণির ভর্তি প্রক্রিয়ায় অনেক পরিবর্তন এনেছি আমরা। প্রথমবারের মতো অভিভাবকের ন্যাশনাল আইডি কার্ডের পিন নম্বর বাধ্যতামূলক করেছি। এরপরও যদি কেউ প্রতারণা করে তাহলে তাকে দমন করার জন্য আমরা কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করব।
বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে সমন্বিত ভর্তি কার্যক্রম চালু করার বিষয়ে নওফেল বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের সঙ্গে আমরা অনেক দূর আলোচনা এগিয়ে রেখেছি। এ বছর না হলেও তার পরের কয়েক বছরের মধ্যেই আমরা সব বিশ্ববিদ্যালয়ে সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষা নেয়ার ব্যবস্থা করব।
ঢাকা বোর্ডের চেয়ারম্যান মু. জিয়াউল হক বলেন, তিনটি ধাপে একাদশ শ্রেণির ভর্তি কার্যক্রম সম্পন্ন করা হবে। প্রথম ও দ্বিতীয় ধাপে জিপিএ-৫ ও জিপিএ-৪ প্রাপ্তি প্রায় শতভাগ শিক্ষার্থী ভর্তির সুযোগ পাবে। বাকিরা তৃতীয় ধাপে ভর্তির সুযোগ পাবে। কেউ ভর্তির সুযোগ থেকে বঞ্চিত হবে না। এ সময় শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মাহামুদ উল হক এবং শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।
পূর্বঘোষণা অনুয়ায়ি শনিবার মধ্যরাত থেকেই একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি কার্যক্রম শুরু হয়েছে। বিগত দিনগুলোর মতো এবারও অনলাইন এবং এসএমএসের মাধ্যমে ভর্তিচ্ছুরা আবেদন করতে পারছেন। এবার তিন ধাপে আবেদন নেওয়া হবে। প্রথম ধাপে আবেদন করা যাবে ২৩ মে পর্যন্ত। এই পর্যায়ে আবেদনকারীদের ফল প্রকাশ করা হবে ১০ জুন। দ্বিতীয় পর্যায়ে আবেদন করা যাবে ১৯ ও ২০ জুন। ২১ জুনই এদের আবেদনের ফল প্রকাশ করা হবে। তৃতীয় ধাপে আবেদন নেওয়া হবে ২৪ জুন। ফল প্রকাশ করা হবে ২৫ জুন। ২৭ থেকে ৩০ জুন শিক্ষার্থীদের নির্বাচিত কলেজে ভর্তি হতে হবে। ১ জুলাই শুরু হবে ক্লাস।
ভর্তি নীতিমালা অনুয়ায়ি, আটটি সাধারণ বোর্ড, মাদরাসা ও কারিগরি বোর্ড থেকে ২০১৭, ২০১৮ ও ২০১৯ সালে মাধ্যমিক উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীরা একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি হতে পারবেন। অনলাইনে ১৫০ টাকা ফি জমা দিয়ে সর্বনিম্ন ৫টি এবং সর্বোচ্চ ১০টি কলেজে পছন্দক্রমের ভিত্তিতে আবেদন করা যাবে। এসএমএসের মাধ্যমে প্রতিটি প্রতিষ্ঠানের জন্য ১২০ টাকা আবেদন ফি প্রদান করে পছন্দের ভিত্তিতে আবেদন করতে হবে। অনলাইন এবং এসএমএস উভয় পদ্ধতিতে সর্বোচ্চ ১০টি কলেজে আবেদন করা যাবে। একজন শিক্ষার্থী যতগুলো কলেজে আবেদন করবে তার মধ্য থেকে শিক্ষার্থীর মেধা, কোড ও পছন্দক্রমের ভিত্তিতে একটি কলেজে তার অবস্থান নির্ধারণ করা হবে।
আবেদনের প্রক্রিয়া: অনলাইনে আবেদনের জন্য আবেদনকারীকে প্রথমে মোবাইল ফোন অপারেটর টেলিটক, গ্রামীণফোন ও মোবাইল ব্যাংকিং বিকাশ বা শিওরক্যাশের মাধ্যমে আবেদন ফি জমা দিতে হবে। টাকা জমা দেয়ার পর কনফার্মেশন এসএমএসের ভিত্তিতে অনলাইনে আবেদন করতে হবে।
অনলাইনে আবেদনের ক্ষেত্রে িি.িীরপষধংংধফসরংংরড়হ.মড়া.নফ ওয়েবসাইটে গিয়ে অনলাইনে আবেদন করতে হবে। এর আগে শিক্ষার্থীকে তার এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার রোল নম্বর, বোর্ড, পাসের সাল ব্যবহার করে এসএমএস করে টেলিটক/রকেট/ শিওরক্যাশ এর মাধ্যমে ১৫০ টাকা ফি জমা দিতে হবে। টেলিটক/রকেট/শিওরক্যাশ মাধ্যমে নির্ধারিত আবেদন ফি ১৫০ টাকা জমা দেয়ার পর আবেদনকারীকে নির্ধারিত ওয়েবসাইটে িি.িীরপষধংংধফসরংংরড়হ.মড়া.নফ অঢ়ঢ়ষু ঙহষরহব -এ ক্লিক করতে হবে। এরপর প্রদর্শিত তথ্য ছকে এসএসসি বা সমমান পরীক্ষা পাসের রোল নম্বর, বোর্ড ও পাসের সন এবং রেজিস্ট্রেশন নম্বর দিয়ে সঠিকভাবে এন্ট্রি করতে হবে। এরপর প্রয়োজনীয় প্রক্রিয়া শেষ হলে আবেদনকারী একটি ফরম পাবে, সেটি ডাউনলোড করে নিতে হবে। একইভাবে সর্বনিম্ন ৫টি এবং সর্বোচ্চ ১০টি প্রতিষ্ঠানে আবেদন সম্পন্ন করতে হবে প্রার্থীকে। অনলাইনে আবেদনের ক্ষেত্রে সর্বনিম্ন ৫টি কলেজে আবেদন করলেও ১৫০ টাকা আবার ১০টি কলেজে আবেদন করলেও ১৫০ টাকা চার্জ করবে।
এসএমএসে আবেদন : এসএমএমের মাধ্যমে আবেদন শুধু টেলিটক প্রি-পেইড সংযোগ থেকে সর্বোচ্চ ১০টি কলেজে আবেদন করা যাবে। মোবাইলের মেসেজ অপশনে গিয়ে টাইপ করতে হবে- ঈঅউ ভর্তিচ্ছু কলেজ/মাদরাসার ঊওওঘ ভর্তিচ্ছু গ্রæপের পৃষ্ঠা ৫ কঃ ৪

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ