Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৬ আশ্বিন ১৪২৬, ২১ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী

পুলিশ লাইন্সে ডেকে সরবরাহকারিকে পেটালেন সহকারি পুলিশ সুপার শুভ

এসপির কাছে অভিযোগ

বগুড়া ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ১৩ মে, ২০১৯, ৫:১৭ পিএম

ব্যক্তিগত আক্রোশের বশবর্তি হয়ে পুলিশ লাইন্সে ডেকে নিয়ে এক সরবরাহকারিকে বেধড়ক মারপিট করেছে কুরদ ই খুদা শুভ নামের এক সহকারি পুলিশ সুপার । মারপিটের শিকার সরবরাহকারির নাম সাব্বির আহম্মেদ (৩০)।

সোমবার প্রতিকার চেয়ে বগুড়া পুলিশ সুপারের কাছে একটি লিখিত অভিযোগ দিয়ে সাব্বির জানিয়েছে । তিনি দীর্ঘদিন ধরে বগুড়া পুলিশের কাছে চাহিদা মাফিক মালামাল সরবরাহকারি হিসেবে কাজ করে আসছেন । সম্প্রতি তিনি মগ সাপ্লাই বাবদ ১ লক্ষ ৪৩ হাজার টাকার একটি বিল তিন কিস্তিতে পান । বিল পাওয়ার পর সাব্বির লেবু নামে যে ব্যবসায়ীর কাছে মগ ক্রয় করেছিলেন তার পাওনা বাবদ ১ লক্ষ ২৪ টাকার মধ্যে তাকে ৯০ হাজার টাকা প্রদান করেন । বাকি ৩৪ হাজার টাকা সময়মত না পাওয়ায় লেবু বিষয়টিকে সহকারি পুলিশ সুপার কুদরত ই খুদা শুভর কাছে জানান ।
এই প্রেক্ষিতে সহকারি পুলিশ সুপার শুভ অভিযোগকারি লেবু ও অভিযুক্ত সাব্বিরকে রোববার রাতে পুলিশ লাইন্সে ডেকে পাঠান । দুজনে পুলিশ লাইন্সে হাজির হলে সহকারি পুলিশ সুপার শুভ মুখোমুখি জিজ্ঞাসাবাদ করলে সাব্বির স্বিকার করেন যে লেবু তার কাছে ৩৪ হাজার টাকা পাবে । টাকাটা সে কিছুদিন পরে দিতে চেয়েছে বলেও জানান । তবে এত সন্তষ্ট না হয়ে এই ঘটনায় পুলিশের ভাবমুর্তি ক্ষুণœ হয়েছে বলে তিনি নিজে তার গার্ড ও ড্রাইভার মিলে সাব্বিরকে বেদমভাবে লাঠি পেটা করেন। এক পর্যায়ে সাব্বির নিস্তেজ হয়ে মাটিতে পড়ে গেলে তাকে পুলিশ লাইন্স থেকে বাইরে এনে একটি রিক্সায় তুলে দেওয়া হয়।
এব্যাপারে রাতেই সাব্বির থানায় একটি জিডি করতে গেলে থানা কর্তৃপক্ষ জিডি এন্ট্রি করতে অস্বিকৃতি জানায় এবং বিষযটি উর্ধতন পুলিশ কর্মকর্তার ব্যাপার হওয়ায় সাব্বিরকে এসপি বরাবরে লিখিত অভিযোগ দিতে বলা হয়। ফলে সোমবার দুপুরে সাব্বির পুলিশ সুপারের অফিসে তার সাথে দেখা করে একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।
এই ঘটনায় সাব্বির শারীরীক ও মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছেন । তিনি অভিযোগ করেছেন , পুর্বের একটি প্রাপ্য বিল নিয়ে তিনি কিছুদিন আগে সহকারি পুলিশ সুপার শুভর বিরুদ্ধে অভিযোগ দিয়েছিলেন । তার জের ধরেই তাকে এইভাবে ব্যাক্তি আক্রোশবশত মারপিটের শিকার হতে হলো , তিনি ভবিষ্যতে আরও মারাত্মক ক্ষতির আশংকা করছেন বলে জানান।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন