Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৮ আশ্বিন ১৪২৬, ২৩ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী

সামরিক পরিকল্পনা ট্রাম্প প্রশাসনের

ইরানকে বিশ্ব থেকে বিচ্ছিন্ন করার ব্যাপারটি কেন্দ্রবিন্দুতে

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৫ মে, ২০১৯, ১২:০৩ এএম

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রশাসনের কাছে হালনাগাদ করা সামরিক পরিকল্পনা হস্তান্তর করেছেন এক জ্যেষ্ঠ প্রতিরক্ষা কর্মকর্তা। এই পরিকল্পনার মধ্যে অন্তর্ভূক্ত আছে ইরানের হামলা ঠেকাতে মধ্যপ্রাচ্যে এক লাখ ২০ হাজার সেনা প্রেরণ অথবা পারমাণবিক কর্মসূচি জোরদারের প্রস্তাব। সোমবার প্রশাসনের অজ্ঞাতনামা কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে নিউ ইয়র্ক টাইমস এ তথ্য জানিয়েছে। পত্রিকাটি বলেছে, ভারপ্রাপ্ত প্রতিরক্ষা মন্ত্রী প্যাট্রিক শ্যানন বৃহস্পতিবার ট্রাম্পের শীর্ষ নিরাপত্তা কর্মকর্তার কাছে এই পরিকল্পনা হস্তান্তর করেছেন। হোয়াইট হাউজ তাৎক্ষনিকভাবে এ ব্যাপারে কোনো প্রতিক্রিয়া জানায়নি। আর পেন্টাগন এ ব্যাপারে মন্তব্য করতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে। খবরে বলা হয়, সংযুক্ত আরব আমিরাতের ফুজায়রা সমুদ্রবন্দরে বিস্ফোরণের ঘটনায় ইরানকে সন্দেহের লক্ষ্যবস্তু বানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। ইরানবিরোধী হুমকির ধারাবাহিকতায় এবার মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, এ ঘটনায় সংশ্লিষ্টতার প্রমাণ মিললে তার ফলাফল তেহরানের জন্য ভালো হবে না। তবে দেশটির বিরুদ্ধে তিনি কী পদক্ষেপ নেবেন, সে ব্যাপারে সুনির্দিষ্ট কিছু বলেননি ট্রাম্প। রবিবার আমিরাতের ফুজাইরা বন্দরে চারটি বাণিজ্যিক জাহাজকে লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত করে বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। সোমবার সউদী কর্তৃপক্ষ জানায়, এরমধ্যে তাদের দুইটি তেল ট্যাঙ্কার রয়েছে। দুইটি সউদী ট্যাঙ্কারের মধ্যে একটির অপরিশোধিত তেল নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের দিকে যাওয়ার কথা ছিল। এছাড়া বিস্ফোরণের লক্ষ্যবস্তু হওয়া চারটি জাহাজের একটি নরওয়েজিয়ান পতাকাবাহী ও একটি আমিরাতের। এ বিস্ফোরণকে ‘অন্তর্ঘাতমূলক হামলা’ বলে উল্লেখ করেছে আমিরাত কর্তৃপক্ষ। এ ঘটনা তদন্তে যুক্তরাষ্ট্রের কাছ থেকে সহায়তাও চেয়েছে তারা। আমেরিকার একটি সামরিক দলের প্রাথমিক ধারণা অনুযায়ী, ইরানের ইন্ধনেই ওই হামলা চালানো হয়েছে। সোমবার ওভাল অফিসে সাংবাদিকরা মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে এ বিস্ফোরণের ব্যাপারে প্রতিক্রিয়া জানতে চান। ট্রাম্প ইরানি সংশ্লিষ্টতার প্রশ্নে বলেন, তেমন ‘কিছু ঘটলে তাতে ইরান বাজে ধরনের সমস্যায় পড়বে। আমি আপনাদেরকে তা বলতে পারি। তারা আনন্দে থাকতে পারবে না।’ ‘বাজে সমস্যা’ বলতে ট্রাম্প ঠিক কী বোঝাতে চাইছেন; জানতে চাইলে ট্রাম্প সাংবাদিকদের বলেন, ‘আপনারা নিজেরাই তা বের করে নিতে পারবেন। তারা (ইরান) জানে আমি কী বোঝাতে চেয়েছি।’ রয়টার্স, নিউ ইয়র্ক টাইমস।



 

Show all comments
  • Md Ismail Bhuiyan ১৫ মে, ২০১৯, ২:০৯ এএম says : 0
    ইরানের যে রেগুলেশনাল গাড় আছে, তারা আমেরিকার আর্মির চেয়েও ভয়ংকর।
    Total Reply(0) Reply
  • আঃ রাজ্জাক ১৫ মে, ২০১৯, ২:১০ এএম says : 0
    সকলেই বুঝে কিন্তু যুক্তরাষ্ট্র নিজের স্বার্থ ছাড়া কিছুই বুজেনা,ইরানের সাথে যুদ্ধে জড়ালে প্রথম গুলিতে ইসরায়েল নিহত হবে!
    Total Reply(0) Reply
  • Md Shahadat Hosain ১৫ মে, ২০১৯, ২:১১ এএম says : 0
    আমেরিকার ভুল করবে যদি যুদ্ধকরে ইরানের সাথে পার্রমানবিক আছে ইরানের হাতে
    Total Reply(0) Reply
  • Md. Habib Nazzarie Saleh ১৫ মে, ২০১৯, ২:১২ এএম says : 0
    আমেরিকা যুদ্ধে জড়ালে , ইরানিরা ভিয়েতনামের কৌশল অবলম্বন করবে।
    Total Reply(0) Reply
  • Tushar Dutta ১৫ মে, ২০১৯, ২:১৪ এএম says : 0
    আমেরিকা যদি লাগে তাহলে কেউই আটকাতে পারবে না
    Total Reply(0) Reply
  • md shajahan ১৫ মে, ২০১৯, ১:০১ পিএম says : 0
    amin
    Total Reply(0) Reply
  • Md Barkat Ullaha ১৫ মে, ২০১৯, ২:১৩ এএম says : 0
    সন্ত্রাসী জঙ্গি কারা সচেতন মানুষ দেখছে! কত সুন্দর সাজানো আরব দেশ গুলো শেষ মরুভূমি আজ! আরব বিশ্বাসে যুদ্ধের আগুন জ্বলছে এগুলো কারা করেছে? লিবিয়া ইরাক সিরিয়া ফিলিস্তিন! এসবের পিছনে হচ্ছে একমাত্র অস্ত্র ব্যবসা আর কিছু না!
    Total Reply(0) Reply
  • Md Selim Reza ১৫ মে, ২০১৯, ৯:৩৯ এএম says : 0
    Saudi Arabia is the main culprit
    Total Reply(0) Reply
  • মাহফুজ আহমেদ ১৫ মে, ২০১৯, ৯:৪০ এএম says : 0
    আমেরিকা ইসরায়েল ধবংস হোক
    Total Reply(0) Reply
  • David Chakraborty ১৫ মে, ২০১৯, ৪:১১ পিএম says : 0
    Why you guys to much headache regarding America; if you guys get vissa you’ll run
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইরান


আরও
আরও পড়ুন