Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৯, ০৭ কার্তিক ১৪২৬, ২৩ সফর ১৪৪১ হিজরী

মশা নিধনে ব্যাকটেরিয়া ব্যবহারের উদ্যোগ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৫ মে, ২০১৯, ১২:০৩ এএম

দেশে ডেঙ্গু ও চিকুনগুনিয়া রোগ নির্মূল কর্মসূচিতে মশা নিধনের জন্য বিশেষ ধরনের ব্যাকটেরিয়া ব্যবহার করে মশার বংশবিস্তার রোধ করা হবে। প্রকল্পটির নাম ‘ওলব্যাকিয়া প্রজেক্ট’। বর্তমানে বিশ্বের ১৭টি দেশে এই প্রযুক্তির পরীক্ষামূলক কার্যক্রম চলছে। যার মধ্যে এগিয়ে আছে চীন। বাংলাদেশেও এর পরীক্ষা-নিরীক্ষা বা গবেষণা চলছে। গবেষণায় সফলতার উপর নির্ভর করে আগামী দুই বা তিন বছরের মধ্যে এ প্রকল্প চালু হতে পারে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। সফলভাবে চালু হওয়ার ৫ বছরের মধ্যে দেশ থেকে ডেঙ্গু ও চিকুনগুনিয়া রোগ একেবারে নির্মূল করা সম্ভব। গতকাল মঙ্গলবার রাজধানীর মিরপুরের ২ নম্বর ওয়ার্ড কমিউনিটি সেন্টারে ডেঙ্গু-চিকুনগুনিয়া নির্মূল কর্মসূচির অবহিতকরণ সভায় বক্তার একথা বলেন। স্বাস্থ্য অধিদফতরের জাতীয় ম্যালেরিয়া ও এডিসবাহিত রোগ নির্মূল কর্মসূচি ও ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) যৌথ উদ্যোগে সমাজের বিভিন্ন স্তরের স্টেক হোল্ডারদের উপস্থিতিতে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় বক্তারা বলেন, ওলব্যাকিয়া প্রজেক্টে ব্যাকটেরিয়ার মাধ্যমে পুরুষ মশার প্রজনন ক্ষমতা নষ্ট করে দেওয়া হবে। এতে মশার বংশবিস্তার একেবারে রোধ করা সম্ভব হবে। এর আগপর্যন্ত মশার বংশবিস্তারে জনসচেতনতার মাধ্যমে রোগগুলো থেকে দূরে থাকতে হবে। স্বাস্থ্য অধিদফতরের পক্ষ থেকে জানানো হয়, দেশে সর্বপ্রথম ২০০০ সালে ডেঙ্গুর প্রকোপ দেখা দেয়। সেবার ৫ হাজার ৫৫১ জন আক্রান্ত হয় এবং ৯৩ জন মৃত্যুবরণ করে। এরপর ধীরে ধীরে এর প্রকোপ কমিয়ে আনা সম্ভব হলেও ২০১৮ সালে সর্বোচ্চ ১০ হাজার ১৪৮ জন ডেঙ্গু ও চিকুনগুনিয়ায় আক্রান্ত হয়। মারা যায় ২৬ জন।
ডিএনসিসির অঞ্চল-২ এর আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা এএসএম সফিউল আজমের সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ডিএনসিসির প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ মমিনুর রহমান মামুন।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ