Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ২১ অক্টোবর ২০১৯, ০৫ কার্তিক ১৪২৬, ২১ সফর ১৪৪১ হিজরী

আইনজীবী ইমতিয়াজ গ্রেফতার

তথ্যপ্রযুক্তি আইনের মামলা

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৬ মে, ২০১৯, ১২:০৪ এএম

সাম্প্রদায়িক উস্কানির অভিযোগে মুক্তমনা লেখক ও আইনজীবী ব্যারিস্টার ইমতিয়াজ মাহমুদের জামিন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন আদালত। গত বুধবার ঢাকা মহামগর হাকিম সত্যব্রত শিকদার শুনানি শেষে এ আদেশ দেন। ঢাকা মহানগর আদালতের বনানী থানার সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা (জিআর) শেখ রকিবুর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, খাগড়াছড়ি সদর থানায় তথ্যপ্রযুক্তি আইনে দায়ের করা একটি মামলায় তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।
এর আগে বনানী থেকে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে।
আদালত সূত্রে জানায়, ইমতিয়াজ মাহমুদের পক্ষে আদালতে ঢাকা বারের সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান খান রচি, শাখাওয়াত হোসেন তছলিমসহ আরও কয়েকজন আইনজীবী জামিনের শুনানি করেন। শুনানিতে তারা বলেন, আসামি একজন আইনজীবী। তিনি ২০১৭ সালের ২৫ জুলাই হাইকোর্ট থেকে চার্জশিট দাখিল পর্যন্ত জামিন পান। মনে হয় আগে থানায় কোনও ওয়ারেন্ট ছিল, সে কারণে তিনি গ্রেফতার হন। এছাড়া তিনি এ মামলায় জামিনে আছেন বলেও তারা আদালতকে জানান।
তাদের বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে বিচারক সত্যব্রত শিকদার বলেন, মামলার চার্জশিট তো দাখিল হয়েছে। ওয়ারেন্ট তো দেখা যাচ্ছে গত ১৯ জানুয়ারির। আসামি হয়তো কোনও কারণে হাজিরা দেননি বিধায় ওয়ারেন্ট হয়েছে। এ সময় আসামিপক্ষের আইনজীবী আসাদুজ্জামান খান রচি অন্তত এক সপ্তাহের জন্য নির্দেশনা দিয়ে জামিন দেওয়ারও আবেদন করেন। শুনানি শেষে বিচারক জামিন নামঞ্জুর করে ইমতিয়াজ মাহমুদকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।
মামলার অভিযোগ থেকে জানা যায়, ২০১৭ সালের ১ জুলাই আসামি ইমতিয়াজ মাহমুদ ফেসবুক আইডি থেকে বাঙালি ও উপজাতীয়দের মধ্যে সংঘর্ষ বাধতে পারে এমন একটি পোস্ট করেন। তাতে তিনি খাগড়াছড়ির রামগড়ে বাঙালিরা উপজাতীয়দের বাড়িঘরে হামলা করেছেন বলে তথ্য ছড়ান।
ওই ঘটনায় ২০১৭ সালের ২১ জুলাই সদর থানার পুলিশের পরিদর্শক তারেক মো. আব্দুল হান্নান বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন। এছাড়া একই বছরের ১৭ জুলাই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে সা¤প্রদায়িক উস্কানি দেওয়ার অভিযোগে শফিকুল ইসলাম নামে এক ব্যক্তি তার বিরুদ্ধে তথ্যপ্রযুক্তি আইনের ৫৭/২ ধারায় একটি মামলা করেছে বলে কয়েকটি গণমাধ্যমে উল্লেখ করা হয়।
##



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন