Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর ২০১৯, ০৬ কার্তিক ১৪২৬, ২২ সফর ১৪৪১ হিজরী

মাসুদুর রহমানের ওপর আক্রমণের প্রতিবাদ জানিয়েছে ঢাবির শিক্ষকরা

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৬ মে, ২০১৯, ৫:০০ পিএম

পাবনার সরকারি শহীদ বুলবুল কলেজের বাংলা বিভাগের লেকচারার মোঃ মাসুদুর রহমানকে প্রহার ও লাঞ্ছিত করার ঘটনায় আমরা গভীর উদ্বেগ ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা। তারা এ ধরনের হীন অপকর্মের আমরা তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়েছেন। বৃহস্পতিবার (১৬ মে) গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাদা দলের শিক্ষকরা বলেন, এইচএসসি পরীক্ষায় কয়েকজন পরীক্ষার্থীকে নকলে বাধা দিয়ে নিষ্ঠার ও সততার সাথে প্রত্যবেক্ষক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন মাসুদ। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে কলেজের সরকার সমর্থক ছাত্র সংগঠনের সভাপতির নেতৃত্বে সংগঠনটির ছাত্র নামধারী কতিপয় দুস্কৃতিকারী সদস্য কর্তব্য পালন শেষে কলেজে থেকে বের হবার পথে মাসুদুর রহমানের উপর অতর্কিতে হামলা চালায়। দুস্কৃতিকারীগণ তাঁকে প্রহার ও শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করেন। নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালনের জন্য একজন শিক্ষকের উপর এমন ন্যাক্কারজনক হামলার ঘটনা কোনোভাবেই মেনে নেয়া যায় না। তারা বলেন, এ আক্রমণ শুধু মাসুদুর রহমানের উপর আক্রমণ নয়, এটি গোটা শিক্ষক সমাজের উপর আক্রমণ। এ ঘটনায় গোটা শিক্ষক সমাজ মর্মাহত। এমন পরিস্থিতিতে এই অপকর্মের সাথে জড়িতদের দ্রæত দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির আওতায় আনার জোর দাবি জানায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাদা দল। একই সাথে দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো কর্মরত শিক্ষকগণ যেন তাঁদের মর্যাদা রক্ষা করে যথাযথভাবে তাঁদের দায়িত্ব পালন করতে পারেন, সেই পরিবেশ নিশ্চিত করার জন্য সরকারের কাছে জোর দাবি জানান।

সাদা দলের আহŸায়ক প্রফেসর ড. এ বি এম ওবায়দুল ইসলাম স্বাক্ষরিত বিবৃতিতে বিবৃতিদাতা শিক্ষকরা হলেন- প্রফেসর মো. লুৎফর রহমান, প্রফেসর ড. মোঃ মোর্শেদ হাসান খান, প্রফেসর ড. সদরুল আমিন, প্রফেসর ড. মো. সিরাজুল ইসলাম, প্রফেসর ড. মোঃ আখতার হোসেন খান, প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ছিদ্দিকুর রহমান খান, প্রফেসর ড. মো. আবুল কালাম সরকার, প্রফেসর মো. আতাউর রহমান বিশ্বাস, প্রফেসর ড. মো. শহীদুল ইসলাম, প্রফেসর ড. মোঃ আনোয়ারুল ইসলাম, প্রফেসর ড. এ এস এম আমানুল্লাহ, প্রফেসর ড. দিল রওশন জিন্নাত আরা নাজনীন, প্রফেসর ড. মামুন আহমেদ, প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আলমোজাদ্দেদী আলফেছানী, প্রফেসর ড. মোঃ মেহেদী মাসুদ, প্রফেসর ড. মো. নুরুল আমিন, ইসরাফিল প্রামাণিক, প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ, ড. মোঃ মহিউদ্দিন, প্রফেসর ড. মোঃ গোলাম রব্বানী, প্রফেসর ড. মো: আবদুর রশীদ, প্রফেসর মো. মাহফুজুল হক, প্রফেসর ড. লায়লা নূর ইসলাম, প্রফেসর ড. কামরুজ্জামান, প্রফেসর ড. মোঃ এমরান কাইয়ুম, প্রফেসর ড. হায়দার আলী, প্রফেসর ড. মো. এনামুল হক, প্রফেসর ড. দিলীপ কুমার বড়ূয়া, প্রফেসর ড. মো. মোশাররফ হোসাইন ভূঁইয়া, প্রফেসর ড. মো. আসলাম হোসেন, প্রফেসর ড. মোঃ মোজাম্মেল হক, প্রফেসর আ কা ফিরোজ আহমদ, প্রফেসর ড. মোঃ নুরুল ইসলাম, মোহাম্মদ সফিউল­্যাহ, প্রফেসর ড. মোঃ সাইফুল ইসলাম, প্রফেসর ড. বোরহান উদ্দীন খান, প্রফেসর মো. মাহ্ফুজুল ইসলাম, প্রফেসর তাহমিনা আখতার, প্রফেসর হোসনে আরা বেগম, প্রফেসর ড. মোঃ আবুল বাশার, প্রফেসর ড. শেখ নজরুল ইসলাম, প্রফেসর ড. জামাল উদ্দিন আহমেদ, প্রফেসর ড. মোঃ আতাউর রহমান মিয়াজী, প্রফেসর মোঃ মুজাহিদুল ইসলাম, প্রফেসর ড. ছিদ্দিকুর রহমান নিজামী, প্রফেসর আহমেদ জামাল আনোয়ার, প্রফেসর এ এস এম মহিউদ্দিন, প্রফেসর এ বি এম শহিদুল ইসলাম, প্রফেসর ড. সৈয়দ আলী আহসান, প্রফেসর ড. নেভিন ফরিদা, প্রফেসর ড. মোবাশ্বের মোনেম, প্রফেসর ড. মুসলেহ উদ্দিন তারেক, প্রফেসর ড. মোঃ আবদুর রব, প্রফেসর ড. মোঃ আবদুল কাইয়ুম, প্রফেসর ড. মোঃ আবুল বাসার, কাওসার হোসেন টগর, প্রফেসর ড. খোন্দকার মেসবাহ উদ্দিন আহমেদ, প্রফেসর ড. আমিনুল ইসলাম ভূইয়া, প্রফেসর ড. জাহিদুল ইসলাম, প্রফেসর ড. সিরাজুল হক, এম এ কাউসার, আবদুল আজিজ, প্রফেসর ড. মোঃ আনোয়ারুল আজিম আকন্দ, ড. আরিফ বিল্লাহ, ড. মোঃ সাইফুল ইসলাম প্রমুখ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: প্রতিবাদ

২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ