Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৯, ০৩ কার্তিক ১৪২৬, ১৯ সফর ১৪৪১ হিজরী

রোজায় মাথাব্যথা

ডাঃ মোঃ ফজলুল কবির পাভেল | প্রকাশের সময় : ১৭ মে, ২০১৯, ১২:০৫ এএম

মাথাব্যথা কোন রোগ নয়। রোগের উপসর্গ। খুব পরিচিত এক সমস্যা মাথাব্যথা। যার মাথা ব্যথার কষ্ট হয় সেই বোঝে। মাথাব্যথা থাকলে আর কিছুই যেন ভাল লাগেনা। আর রোজার সময় হলে তো কথাই নেই। তখন কষ্ট আরো বেড়ে যায়। 

মাথাব্যথার প্রধান কারণ টেনশন টাইপ হেডেক এবং মাইগ্রেন। আরও কিছু কারণে মাথাব্যথা হতে পারে। তবে সেসব সচরাচর দেখা যায়না। এছাড়াও রোজার সময় বেশ কিছু কারণে মাথাব্যথা হতে পারে। রোজার সময় পানিশূন্যতা হয়। বিশেষ করে গরমের সময়। কয়েক বছর ধওে গরমের সময় আমাদের দেশে রোজা হচ্ছে। গরমে দেখা দেয় পানিশূন্যতা। সেখান থেকে হতে পারে মাথাব্যথা। রোজা এবং গরমের কারনে ঘুম ও রেস্ট কম হয়। পর্যাপ্ত ঘুম শরীরের জন্য খুবই দরকার। রোজায় অনেকেরই পর্যাপ্ত ঘুম হয় না। তাদের দেখা দেয় মাথাব্যথা।
অনেকের মাথাব্যথা করলে বা মাথায় অস্বস্তি হলে চা খেলে ভাল হয়ে যায়। রোজার সময় এ অভ্যাস থেকে দূরে থাকতে হয়। একারনেও অনেকের মাথাব্যথা হয়।
মাইগ্রেনের কিছু ওষুধ আছে যা খেলে মাইগ্রেনের এটাক কম হয়। আবার কিছু ওষুধ অছে যা ব্যথা উঠলে খাওয়া হয়। রোজায় আগেই চিকিৎসকের সাথে কথা বলে ডোজ ঠিক করে নিতে হবে। তাহলে মাইগ্রেনের রোগীরা ঠিকমতো রোজা রাখতে পারবে। টেনশন টাইপ হেডেকের রোগীরাও রোজার আগেই ওষুধের ডোজ ঠিক করে নেবেন। রোজায় যাতে পানিশূন্যতা না হয় সেজন্য ইফতার থেকে সেহেরী পর্যন্ত পযাপ্ত পানি পান করতে হবে। টাটকা ফলের জুস খাওয়া যেতে পারে। বাইরে বের হলে ঢিলেঢালা পোশাক পরে বের হতে হবে। ছাতা নিতে হবে। রোজার সময় বেশী পরিশ্রম না করাই ভালো। রোদে বের হলে সানগøাস ব্যবহার করা যেতে পারে। এর পরেও কারো মাথাব্যথা হলে চিকিৎসকের কাছে যেতে হবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: রোজা


আরও
আরও পড়ুন