Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার ১৯ মে ২০১৯, ০৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ১৩ রমজান ১৪৪০ হিজরী।

আইটি হুমকি মোকাবিলায় জরুরি অবস্থা জারি করলেন ট্রাম্প

অযৌক্তিক সিদ্ধান্তে যুক্তরাষ্ট্র নিরাপদ হবে না : হুয়াওয়ে

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৭ মে, ২০১৯, ১২:০৪ এএম

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বিদেশি প্রতিপক্ষের হাত থেকে দেশটির কম্পিউটার নেটওয়ার্ক সুরক্ষিত করতে জরুরি অবস্থা জারি করেছেন। বুধবার তিনি এই বিষয়ে একটি নির্বাহী আদেশে স্বাক্ষর করেছেন। এই আদেশে বলা হয়েছে, জাতীয় নিরাপত্তার জন্য হুমকি হতে পারে এমন কোনও বিদেশি টেলিকম কোম্পানি ব্যবহার করতে পারবে না মার্কিন প্রতিষ্ঠানগুলো। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি’র খবরে বলা হয়েছে, ট্রাম্প নির্বাহী আদেশে কোনও বিদেশি কোম্পানির নাম উল্লেখ করেননি। তবে বিশ্লেষকরা ইঙ্গিত দিচ্ছেন, ট্রাম্পের এই নির্বাহী আদেশ মূলত চীনা টেলিকমিউনিকেশন জায়ান্ট হুয়াওয়েকে নিয়েই। যুক্তরাষ্ট্রসহ বেশ কয়েকটি দেশ হুয়াওয়ের বিরুদ্ধে চীনের হয়ে নজরদারি চালানোর অভিযোগ তুলেছে। চীনা কোম্পানিটি এসব অভিযোগ অস্বীকার করে আসছে। অপরদিকে,বিদেশি প্রতিপক্ষের প্রযুক্তি নিষিদ্ধ করতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের আরোপিত অর্থনৈতিক জরুরি অবস্থার ঘোষণাকে ‘অযৌক্তিক’ আখ্যা দিয়েছে চীনভিত্তিক প্রযুক্তি জায়ান্ট হুয়াওয়ে। চীনের রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম গেøাবাল টাইমস-এ প্রকাশিত এক বিবৃতিতে ট্রাম্প প্রশাসনের সিদ্ধান্তের সমালোচনা করেছে প্রতিষ্ঠানটি। তাদের দাবি, এ সিদ্ধান্তের মধ্য দিয়ে যুক্তরাষ্ট্র নিরাপদ কিংবা শক্তিশালী হয়ে যাবে না। বিদেশি প্রতিপক্ষের হাত থেকে কম্পিউটার নেটওয়ার্ক সুরক্ষিত করতে বুধবার অর্থনৈতিক জরুরি অবস্থা ঘোষণার নির্বাহী আদেশে স্বাক্ষর করেন ট্রাম্প। নির্বাহী আদেশে কোনও বিদেশি কোম্পানি বা দেশের নাম উল্লেখ করা না হলেও পূর্বে মার্কিন কর্মকর্তারা হুয়াওয়ে-কে হুমকি আখ্যা দিয়েছিলেন। পরবর্তী প্রজন্মের ৫জি নেটওয়ার্কে প্রতিষ্ঠানটির পণ্য ব্যবহার না করতে মিত্র দেশগুলোকেও সতর্ক করেছিলেন কর্মকর্তারা। ট্রাম্পের নির্বাহী আদেশের প্রতিক্রিয়ায় চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রাণালয়ের মুখপাত্র গেং সুহাং বলেছেন, নির্দিষ্ট চীনা কোম্পানির বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের পদক্ষেপ মর্যাদাহানিকর আর অন্যায্য। তিনি বলেন, আমরা মার্কিন পক্ষকে পূর্ব নির্ধারিত নিরাপত্তা উদ্বেগের কারণে চীনা কোম্পানির বিরুদ্ধে নিপীড়নমূলক ব্যবস্থা নেওয়া বন্ধের আহŸান জানাচ্ছি। এবং তাদের স্বাভাবিক বিনিয়োগ আর কার্যক্রম পরিচালনার জন্য একটি যথাযথ, ন্যায্য এবং বৈষম্যহীন পরিবেশ নিশ্চিতের অনুরোধ করছি। এক বিবৃতিতে হুওয়াওয়ে বলেছে, ‘হুওয়াওয়ে-র ওপর কড়াকড়ি আরোপ করে যুক্তরাষ্ট্র আরও বেশি নিরাপদ হয়ে উঠবে না, এর মধ্য দিয়ে দেশটি শক্তিশালীও হয়ে যাবে না। বরং এর মধ্য দিয়ে যুক্তরাষ্ট্র কেবল নিম্নমানের ও ব্যয়বহুল বিকল্প পণ্য ব্যবহারে বাধ্য হবে, অন্য দেশের তুলনায় পিছিয়ে পড়বে আর চূড়ান্তভাবে মার্কিন প্রতিষ্ঠান ও ভোক্তারা ক্ষতিগ্রস্থ হবে’। বিবিসি, গার্ডিয়ান, গেøাবাল টাইমস।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ট্রাম্প


আরও
আরও পড়ুন