Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ২৮ জুন ২০২২, ১৪ আষাঢ় ১৪২৯, ২৭ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী

ভাঙা বেড়িবাঁধ দিয়ে জোয়ারের পানি ঢুকে কয়েক গ্রাম প্লাবিত

প্রকাশের সময় : ২৮ মে, ২০১৬, ১২:০০ এএম

মাছুম বিল্লাহ্, কাউখালী (পিরোজপুর) থেকে
রোয়ানুর প্রভাবে কাউখালীর পাঙ্গাশিয়া-ফলইবুনিয়া-জোলাগাতি প্রায় ০৭ কিলোমিটার বেড়িবাঁধের বিভিন্ন স্থান থেকে ভেঙে গেছে। ফলে জোয়ারের পানি ঢুকে ফসলী জমির ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। জোয়ারের পানিতে তলিয়ে যায় বাড়িঘর। আতঙ্কের মধ্যে রয়েছে ওই এলাকার হাজার হাজার মানুষ। ওই এলাকায় গিয়ে দেখা যায় পাঙ্গাশিযা খালের মোহনায় দুই পাড়ের অনেক অংশ পানিতে তলিয়ে গেছে। ফলইবুনিয়া হাতেম আলী সিকদারের বাড়ি এলাকায় এবং সাপলেজা, জোলাগাতি এলাকায় বেশির ভাগ বাঁধ ভেঙে নিশ্চিহ্ন হয়ে গেছে। ফলইবুনিয়া এলাকার ইউপি সদস্য মাহমুদ হোসেন ভাঙন কবলিত এলাকা দেখিয়ে জানান বাঁধটি দীর্ঘ দিন ধরে ভাঙনের কবলে পতিত। স্থানীয়ভাবে কয়েকবার বিভিন্ন অংশে মেরামত করা হয়। রোযানুর প্রভাবে জোয়ারের পানির তোড়ে গত শনিবার থেকে অব্যাহতভাবে বেড়িবাঁধটি ভাঙতে থাকে। ইতিমধ্যে ভেরিবাধের অনেক স্থান কচা নদীতে মিশে গেছে। ফলইবুনিয়া এলাকার সাইদুল আলম জানান, বেড়িবাঁধের কারণে এলাকার মানুষ জলোচ্ছ্বাস ও দুর্যোগের হাত থেকে রক্ষা পেত। সাপলেজা, জোলাগাতী, ভিটাবাড়ীয়ার এলাকার লোকজন এই বেড়িবাঁধ দিয়ে কাউখালী, পিরোজপুর বরিশাল যাতায়াতের মাধ্যম হিসেবেই ব্যবহার করত।  বেড়িবাঁধটি বিধ্বস্ত হওয়ায় তারা বিপর্যস্ত। বাঁধটি ভেঙে যাওয়ায় এলাকার পাঁচ সহস্রাধিক মানুষ আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছে বিশেষ করে পাঙ্গাশিয়া বাজার নিয়ে ব্যবসায়ীরা দারুণ চিন্তিত। ওই বেড়িবাঁধটি ১৯৮৮ সালে তৎকালীন সরকার নির্মাণ করে। ২০০৭ সালে একবার মেরামত করা হয়। এ ছাড়া স্থানীয়ভাবে কয়েকবার এলাকাবাসী স্বেচ্চাশ্রমের ভিত্তিতে মেরামতের কাজ করে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ভাঙা বেড়িবাঁধ দিয়ে জোয়ারের পানি ঢুকে কয়েক গ্রাম প্লাবিত
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ