Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৯, ০২ কার্তিক ১৪২৬, ১৭ সফর ১৪৪১ হিজরী

পেস আক্রমণ নিয়ে আত্মবিশ্বাসী ভুবনেশ্বর

বিশ্বকাপ ২০১৯

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৭ মে, ২০১৯, ৫:২৩ পিএম

ঐতিহ্যগতভাবেই ভারতীয় ক্রিকেট দলের ব্যাটিং লাইন আপ শক্তিশালী। তবে এবারের বিশ্বকাপে তাদের পেস আক্রমণও সমীহ করার মত। সেটা মনে করিয়েই প্রতিপক্ষ দলগুলোকে সতর্ক থাকতে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন দলটির সুইং বোলার ভুবনেশ্বর কুমার। যে কোন মাঠে ভারতীয় পেসাররা ভাল করতে সক্ষম বলে উল্লেখ করেন তিনি।

দুবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন দলটিতে তিন জনে গড়া পেস আক্রমণ বিভাগের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য ২৯ বছর বয়সী ভুবনেশ্বর। দলের অপর দুই পেসার অভিজ্ঞ মোহাম্মদ সামি ও আইসিসি ওয়ানডে র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ বোলার জসপ্রিত বুমরাহ।

গতি কিছুটা কম থাকলেও দুই দিকেই বল ঘুড়াতে সক্ষম এবং অন্য সুইং বোলারদের ন্যায় কুমারও ইংলিশ কন্ডিশনের সর্বোচ্চ সুবিধা কাজে লাগাতে মুখিয়ে আছেন। টাইমস অব ইন্ডিয়া পত্রিকাকে তিনি বলেন, ‘আমি মানছি গত কয়েক বছরে ইংল্যান্ডের কন্ডিশন কিছুটা ফ্ল্যাট হয়েছে। যেহেতু শুরুতে এবং ডেথ ওভারে আমাদের ভাল করার সক্ষমতা আছে তাই প্রতিপক্ষ দলগুলোকে ভারতীয় বোলিং ইউনিট সম্পর্কে সচেতন থাকতে হবে।’ ‘নির্দিষ্ট দিনে আমরা কিভাবে পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করব সব কিছুই তার ওপর নির্ভর করবে।’

একজন স্ট্রাইক বোলার হিসেবে সামি যথেষ্ঠ ভাল। তার সাথে আছে ইয়র্কার এবং ডেথ ওভারের মাস্টর হিসেবে খ্যাতি অর্জন করা বুমরাহ। অনেকের মতে, অধিনায়ক বিরাট কোহলি ভারতীয় দলে এ যাবত কালের সেরা পেস আক্রমণ পেয়েছেন। তবে ভুবনেশ্বর তাদের বৈচিত্র নিয়ে কথা বলতে আগ্রহী নন।

ভারতের উত্তরাঞ্চলীয় শহর মিরাট থেকে উঠে আসা ভুবনেশ্বর বলেন, ‘আমরা বিশ্ব সেরা কি-না সে বিষয়ে আমি কোন মন্তব্য করতে চাই না। কারণ মাঠের পারফরমেন্সই আমাদের পরিচয় করিয়ে দেবে। গত কয়েক বছরের পারফরমেন্সই আমাদের হয়ে কথা বলবে। ভারতীয় বোলিং আক্রমণ দিনকে দিন শক্তিশালী হচ্ছে। আজ আমরা বলতে পারিÑ আমাদের আক্রমণ বিভাগ যে কোন মাঠে একটা প্রভাব ফেলতে সক্ষম।’

একজন বোলার হিসেবে নিজের উন্নতির বিষয়টি উল্লেখ করেন চার বছর আগে প্রথম বিশ্বকাপ খেলা ভুবনেশ্বর, ‘গতি ও ভিন্নতার দিক থেকে অবশ্যই আমার বোলিংয়ে উন্নতি হয়েছে। তার সাথে আমার ফিটনেসেরও উন্নতি ঘটেছে।’

১৯৮৩ ও ২০১১ শিরোপা জয়ী ভারত ৫ জুন দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে শুরু করবে এবারের বিশ্বকাপ মিশন।

বিশ্বকাপ ২০১৯ (সাব হেড)পেস আক্রমণ নিয়ে আত্মবিশ্বাসী ভুবনেশ্বরস্পোর্টস ডেস্ক : ঐতিহ্যগতভাবেই ভারতীয় ক্রিকেট দলের ব্যাটিং লাইন আপ শক্তিশালী। তবে এবারের বিশ্বকাপে তাদের পেস আক্রমণও সমীহ করার মত। সেটা মনে করিয়েই প্রতিপক্ষ দলগুলোকে সতর্ক থাকতে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন দলটির সুইং বোলার ভুবনেশ্বর কুমার। যে কোন মাঠে ভারতীয় পেসাররা ভাল করতে সক্ষম বলে উল্লেখ করেন তিনি।দুবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন দলটিতে তিন জনে গড়া পেস আক্রমণ বিভাগের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য ২৯ বছর বয়সী ভুবনেশ্বর। দলের অপর দুই পেসার অভিজ্ঞ মোহাম্মদ সামি ও আইসিসি ওয়ানডে র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ বোলার জসপ্রিত বুমরাহ।গতি কিছুটা কম থাকলেও দুই দিকেই বল ঘুড়াতে সক্ষম এবং অন্য সুইং বোলারদের ন্যায় কুমারও ইংলিশ কন্ডিশনের সর্বোচ্চ সুবিধা কাজে লাগাতে মুখিয়ে আছেন। টাইমস অব ইন্ডিয়া পত্রিকাকে তিনি বলেন, ‘আমি মানছি গত কয়েক বছরে ইংল্যান্ডের কন্ডিশন কিছুটা ফ্ল্যাট হয়েছে। যেহেতু শুরুতে এবং ডেথ ওভারে আমাদের ভাল করার সক্ষমতা আছে তাই প্রতিপক্ষ দলগুলোকে ভারতীয় বোলিং ইউনিট সম্পর্কে সচেতন থাকতে হবে।’ ‘নির্দিষ্ট দিনে আমরা কিভাবে পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করব সব কিছুই তার ওপর নির্ভর করবে।’একজন স্ট্রাইক বোলার হিসেবে সামি যথেষ্ঠ ভাল। তার সাথে আছে ইয়র্কার এবং ডেথ ওভারের মাস্টর হিসেবে খ্যাতি অর্জন করা বুমরাহ। অনেকের মতে, অধিনায়ক বিরাট কোহলি ভারতীয় দলে এ যাবত কালের সেরা পেস আক্রমণ পেয়েছেন। তবে ভুবনেশ্বর তাদের বৈচিত্র নিয়ে কথা বলতে আগ্রহী নন।ভারতের উত্তরাঞ্চলীয় শহর মিরাট থেকে উঠে আসা ভুবনেশ্বর বলেন, ‘আমরা বিশ্ব সেরা কি-না সে বিষয়ে আমি কোন মন্তব্য করতে চাই না। কারণ মাঠের পারফরমেন্সই আমাদের পরিচয় করিয়ে দেবে। গত কয়েক বছরের পারফরমেন্সই আমাদের হয়ে কথা বলবে। ভারতীয় বোলিং আক্রমণ দিনকে দিন শক্তিশালী হচ্ছে। আজ আমরা বলতে পারিÑ আমাদের আক্রমণ বিভাগ যে কোন মাঠে একটা প্রভাব ফেলতে সক্ষম।’একজন বোলার হিসেবে নিজের উন্নতির বিষয়টি উল্লেখ করেন চার বছর আগে প্রথম বিশ্বকাপ খেলা ভুবনেশ্বর, ‘গতি ও ভিন্নতার দিক থেকে অবশ্যই আমার বোলিংয়ে উন্নতি হয়েছে। তার সাথে আমার ফিটনেসেরও উন্নতি ঘটেছে।’১৯৮৩ ও ২০১১ শিরোপা জয়ী ভারত ৫ জুন দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে শুরু করবে এবারের বিশ্বকাপ মিশন।
কিউই ব্যাটিং কোচ হচ্ছেন ফুলটনস্পোর্টস ডেস্ক : ইংল্যান্ড ও ওয়েলসে অনুষ্ঠেয় আসন্ন বিশ্বকাপ শেষে নিউজিল্যান্ড দলের ব্যাটিং কোচের দায়িত্ব নিচ্ছেন দেশটির সাবেক ব্যাটসম্যান পিটার ফুলটন।কিউইদের হয়ে তিন ফর্মেটে ৮৪ ম্যাচ খেলা ফুলটন বিশ্বকাপ শেষ জুলাই মাসে সাবেক সতীর্থ ক্রেইগ ম্যাকমিলানের কাছ থেকে দায়িত্ব গ্রহণ করবেন। আগামী বছর অস্ট্রেলিয়ায় অনুষ্ঠেয় টি-২০ বিশ্বকাপ শেষ হওয়ার পর তার বর্তমান চুক্তির মেয়াদ শেষ হবে।ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে একটি টেস্টে ২০১৪ সালে নিজের শেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলা ৪০ বছর বয়সী ফুলটন বলেন, ‘নিউজিল্যান্ডের অনেকের মতই সাম্প্রতিক বছরগুলোতে আমি দলের পারফরমেন্স প্রত্যক্ষ করেছি। সুতরাং কোচিং স্টাফে ডাক পাওয়াটা আমার জন্য বিশেষ কছিু।’তিনি আরো বলেন, ‘অবশ্যই আমাদের দেশে সত্যিকারের কিছু মেধাবী ব্যাটসম্যান আছে এবং কিভাবে তাদের উন্নতির ধারা অব্যাহত রাখতে তাদের সঙ্গে কাজ করতে আমি মুখিয়ে আছি।’২০১৭ সালে প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেট থেকে অবসর নেয়ার পর নিউজিল্যান্ড ‘এ’ দলের কোচের দায়িত্ব পালন করেন ফুলটন।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বিশ্বকাপ ক্রিকেট

১৬ জুলাই, ২০১৯
১৫ জুলাই, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন