Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ অক্টোবর ২০১৯, ০২ কার্তিক ১৪২৬, ১৮ সফর ১৪৪১ হিজরী

দীর্ঘ ছুটি পাচ্ছেন নারী ফুটবলাররা

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৭ মে, ২০১৯, ৮:৫৩ পিএম

প্রায় সারাবছর ক্যাম্পে থেকে একের পর এক আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট খেলে যখন অনেকটাই ক্লান্ত বাংলাদেশ জাতীয় ও বয়সভিত্তিক নারী ফুটবল দলের খেলোয়াড়রা তখনি তাদের জন্য সুখের বার্তা নিয়ে এলেন কোচ গোলাম রব্বানী ছোটন। তিনি জানালেন, ক’দিনের মধ্যেই দীর্ঘ ছুটি পাচ্ছেন সাবিনা, মারিয়া, তহুরা, মৌসুমীরা। ২০ মে থেকে ৭ জুন পর্যন্ত ঈদের ছুটি পাবেন তারা। ছুটি শেষে ৮ জুন ফের ক্যাম্পে ফিরবেন আঁখি-সানজিদারা। নারী ফুটবলারদের দীর্ঘ এই ছুটির খরবটি জানিয়ে কোচ ছোটন বলেন, ‘আড়াই বছরের মধ্যে এবারই মেয়েরা অনেক দিনের ছুটি পাচ্ছে। বাড়িতে গিয়ে নিজ পরিবারের সঙ্গে লম্বা সময় কাটাতে পারবে তারা।’

বেশ ক’বছর ধরে বাংলাদেশের বয়সভিত্তিক নারী ফুটবল দল দুর্দান্ত খেলছে। দেশে-বিদেশে নানা আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টে অসাধারণ নৈপূণ্য দেখিয়ে জিতে আনছে ট্রফি। গেল আড়াই বছরে দু’টি এএফসি অনূর্ধ্ব-১৬ চ্যাম্পিয়নশিপের বাছাই পর্ব ও একটি চুড়ান্ত পর্ব খেলেছেন মারিয়া মান্ডারা। সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ চ্যাম্পিয়নশিপ ছাড়াও অনূর্ধ্ব-১৮ ও ১৯ পর্যায়ে বেশ কিছু টুর্নামেন্টও খেলেছে লাল-সবুজের নারী ফুটবল দল। সর্বশেষ ঢাকার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত বঙ্গমাতা অনুর্ধ্ব-১৯ আন্তর্জাতিক নারী ফুটবল গোল্ডকাপে যুগ্ম চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন মৌসুমী, কৃষ্ণা, মনিকা, মার্জিয়ারা।

গেল মার্চে নেপালে অনুষ্ঠিত সাফ নারী চ্যাম্পিয়নশিপের পর থেকেই টানা অনুশীলনে রয়েছেন মারিয়া, তহুরা, মনিকারা। তাদের লক্ষ্য চলতি বছরের সেপ্টেম্বরে থাইল্যান্ডে অনুষ্ঠিতব্য এএফসি অনূর্ধ্ব-১৬ চ্যাম্পিয়নশিপের চুড়ান্ত পর্বে ভালো করা। ডিসেম্বরে নেপালে অনুষ্ঠেয় সাউথ এশিয়ান (এসএ) গেমসে চ্যাম্পিয়ন হওয়া। সেই সঙ্গে ২০২০ সালে ভারতে অনুষ্ঠিতব্য ফিফা অনূর্ধ্ব-১৭ নারী বিশ্বকাপে খেলার যোগ্যতা অর্জন করাও বাংলাদেশ নারী ফুটবলারদের অন্যতম লক্ষ্য। থাইল্যান্ডে অনুষ্ঠিতব্য টুর্নামেন্টের সেরা তিন দল খেলবে অনূর্ধ্ব-১৭ বিশ্বকাপে। সে লক্ষ্যেই বিরতিহীন অনুশীলন চালিয়ে যাচ্ছে মারিয়া মান্ডা বাহিনী। তবে দীর্ঘ ক্যাম্প থাকার পর এবার লম্বা ছুটি তাদের মানসিক প্রশান্তি যোগাবে বলে মনে করছেন কোচ ছোটন। তার কথায়, ‘নিয়মিতভাবে বেশ ক’টি টুর্নামেন্টে খেলেছে মারিয়ারা। টুর্নামেন্ট শেষে ফের অনুশীলনে নেমেছে তারা। দীর্ঘ সময় নিয়মিত অনুশীলনের পর এবার লম্বা ছুটি তাদের দেয়া হচ্ছে কিছুটা রিফ্রেশমেন্টের জন্যই। আশাকরি ছুটি কাটিয়ে তারা আবার অনুশীলনের মাধ্যমে নিজেদের লক্ষ্যপূরণে সচেষ্ট হবে।’ ছোটন আরো বলেন, ‘থাইল্যান্ড থেকে খেলে আসার পর ডিসেম্বরেই নেপালে রয়েছে এসএ গেমস ফুটবল। সেখানেও চ্যাম্পিয়ন হওয়ার আশা নিয়ে যাবে মেয়েরা। তাই এএফসি অনূর্ধ্ব-১৬ চ্যাম্পিয়নশিপ এবং এসএ গেমস -এ দুই আসরে দেশের জন্য ভালো ফল বয়ে আনতে মেয়েরা অনুশীলনে আরো বেশী মনযোগী হবে বলে আমি মনে করি।’



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ফুটবল


আরও
আরও পড়ুন