Inqilab Logo

বৃহস্পতিবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২২, ১৩ মাঘ ১৪২৮, ২৩ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

রাজধানীর সেবা সংস্থারও দুই ভাগ চান সাঈদ খোকন

স্টাফ রিপোর্টার : | প্রকাশের সময় : ১৯ মে, ২০১৯, ১২:০৫ এএম

নাগরিক সেবা বৃদ্ধির জন্য ঢাকা সিটি কর্পোরেশন বিভক্ত করার উদ্যোগ সঠিক ছিল বলে উল্লেখ করেছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন। এ ছাড়া সিটি কর্পোরেশনকে যেভাবে উত্তর ও দক্ষিণ অংশে বিভক্ত করা হয়েছে তেমনি সেবা সংস্থাগুলোকে দুই ভাগে ভাগ করারও প্রস্তাব দেন তিনি। রাজধানীর ইন্টারকন্টিনেন্টাল হোটেলে গতকাল শুক্রবার সাঈদ খোকনের মেয়র হিসেবে চার বছর পূর্তি উপলক্ষে ‘চার বছরে ফিরে দেখা’ শীর্ষক সংবাদ সম্মেলনে এমন প্রস্তাব দেন তিনি।
সাঈদ খোকন বলেন, সিটি কর্পোরেশনের মতো অন্যান্য সেবা সংস্থাগুলোকে উত্তর-দক্ষিণে বিভক্ত করা হলে সেবার মান বৃদ্ধি পাবে। সিটি কর্পোরেশন বিভক্তে প্রধানমন্ত্রীর যুগান্তকারী সিদ্ধান্ত ছিল। এর ইতিবাচক ফলাফল এ শহরের মানুষ ভোগ করছেন। সুতরাং অন্যান্য সেবামূলক সংস্থাগুলোকে যদি উত্তর ও দক্ষিণে ভাগ করা হয়, আমার ধারণা সেবার মান বৃদ্ধি পাবে এবং নাগরিকদের সেবা আগের তুলনায় বেশি করে তাদের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেয়া সম্ভব হবে।
নাগরিক সেবা ও নগরের উন্নয়নে এখনো বিভিন্ন সংস্থার মধ্যে থাকা সমন্বয়হীনতার বিষয়টি স্বীকার করে সাঈদ খোকন বলেন, সমন্বয়হীনতা এখনো অনেক বড় মাপের প্রতিবন্ধকতা উন্নয়নের ক্ষেত্রে। নগর ব্যবস্থাপনার ক্ষেত্রে এই প্রতিবন্ধকতা দূর করতে পারলে নাগরিক সেবা নিশ্চিত করা যাবে।
এর আগে এক লিখিত বক্তব্যে নিজের চার বছরের দায়িত্বকালে নেওয়া নানান উন্নয়ন পদক্ষেপের বর্ণনা দিয়ে ঢাকা দক্ষিণের এই নগরপিতা বলেন, বিগত চার বছরে নগর ও নগরবাসীর উন্নয়নে নিরলসভাবে কাজ করে গেছি। শহরজুড়ে এলইডি বাতি স্থাপন, পানিবদ্ধতা নিরসন, সড়ক ও ফুটপাত সংস্কার, খেলার মাঠ-পার্ক উন্নয়ন, ফুটওভার ব্রিজ নির্মাণ, বর্জ্য ব্যবস্থাপনা, ভেজালবিরোধী অভিযানসহ বেশকিছু কাজ আমরা সফলতার সঙ্গে সম্পন্ন করেছি।
তবে দায়িত্বকালের সাফল্য-ব্যর্থতার হিসাব নগরবাসীর উদ্দেশ্যে ছেড়ে দিয়ে সাঈদ খোকন বলেন, মেয়র হিসেবে আমার মূল্যায়ন নগরবাসী করবেন। তবে এতদিনে নগরে একটি দৃশ্যমান পরিবর্তন আনতে পেরেছি আমরা। আমি কতটুকু সফল বা ব্যর্থ তারাই বলবেন। আমি শুধু এটুকু বলতে পারি যে কোথাও কোথাও অনেক সফলতা পেয়েছি আবার কোথাও কোথাও সাময়িকভাবে সফলতা আসেনি। তবে তার জন্য হাত গুটিয়ে বসে থাকিনি, থাকবো না। সবাইকে নিয়ে কাজ করে যাচ্ছি।
সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন, পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান। ডিএসসিসি সচিব মোস্তফা কামাল মজুমদার, প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমানসহ বিভিন্ন ওয়ার্ড ও সংরক্ষিত ওয়ার্ডের কাউন্সিলর এবং ডিএসসিসির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: সাঈদ খোকন

১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ