Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার , ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ০৮ রবিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

অনলাইনে বিজ্ঞাপন দিয়ে ছিনতাই

গ্রেফতার ৬

স্টাফ রিপোর্টার : | প্রকাশের সময় : ১৯ মে, ২০১৯, ১২:০৪ এএম

 

বাজারের চেয়ে কম দাম উল্লেখ করে অনলাইনে দেওয়া হয় মোবাইল ফোন বিক্রির বিজ্ঞাপন। অনলাইনে পণ্য কেনা-বেচার মাধ্যম বিক্রয় ডটকমসহ বিভিন্ন পেজে এসব বিজ্ঞাপন দেখে কেউ মোবাইল ফোন কিনতে আগ্রহী হলেই যেতে বলা হয় নির্দিষ্ট কোনো স্থানে। আদতে এর পুরোটাই ছিনতাইকারী চক্রের ফাঁদ। পরে সেই ব্যক্তি উক্ত স্থানে পৌঁছালে ধারালো অস্ত্র দেখিয়ে ভয়ভীতি দেখিয়ে সঙ্গে থাকা মোবাইল, টাকা-পয়সা ও মূল্যবান সামগ্রী নিয়ে কেটে পড়ে চক্রটির সদস্যরা।
এভাবেই দীর্ঘদিন ধরে একটি চক্র বিজ্ঞাপনের আড়ালে রাজধানীতে ছিনতাই করে আসছিল। অবশ্য চক্রটির ৬ সদস্যকে আটক করতে সক্ষম হয়েছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন। শুক্রবার দিবাগত রাতে গাজীপুরের টঙ্গী পূর্ব থানা এলাকায় র‌্যাব-১ অভিযান চালিয়ে সদস্যকে আটক করা হয়। তারা হলো- শাহিন (২০), শাকিল হাসান (১৯), ফারুক (২০), সালাউদ্দিন আকবর (২০), রহমত উল্লাহ (১৯) ও রাসেল (১৯)। এসময় তাদের কাছ থেকে তিনটি সুইচ গিয়ার চাকু, ৬টি মোবাইল ফোন ও ৮৫০ টাকা উদ্ধার করা হয়।
প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তরা একটি সংঘবদ্ধ ছিনতাইকারী চক্রের সক্রিয় সদস্য বলে স্বীকার করে। তারা পরস্পরের যোগসাজশে বিভিন্ন অনলাইন পেজে স্বল্পমূল্যে মোবাইল ফোন বিক্রির বিজ্ঞাপন দিয়ে অভিনব পন্থায় ছিনতাই করে আসছিলেন। প্রাথমিক পর্যায়ে পণ্য কেনা-বেচার বিভিন্ন অনলাইন পেজে বাজারের চেয়ে কম দামে মোবাইল ফোন বিক্রির বিজ্ঞাপন দিতেন। বিজ্ঞাপন দেখে সাধারণ মানুষ এই চক্রের সদস্যদের সঙ্গে মোবাইল পফানে যোগাযোগ করতেন। আর এ সুযোগে পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী নির্ধারিত সুবিধাজনক এলাকায় আগ্রহী ব্যক্তিকে ডেকে নিয়ে মোবাইল, টাকা-পয়সা ছিনতাই করে পালিয়ে যেতো চক্রটি।
র‌্যাব-১ এর স্কোয়াড কমান্ডার (সিপিসি-২) সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) সালাউদ্দিন বলেন, চক্রটির মূলহোতা শাহিন ও শাকিল। শাহিন ছিনতাই কাজের কৌশল হিসেবে প্রাথমিকভাবে অনলাইনে বিক্রয় ডটকম পেইজে বাজারের চেয়ে অনেক কম দামে মোবাইল ফোন বিক্রির বিজ্ঞাপন দিতো। পরবর্তীতে শাকিল পূর্ব নির্ধারিত সুবিধাজনক এলাকায় ভিকটিমদের আসতে বলতো। ভিকটিম নির্ধারিত স্থানে গেলে মারধর করে মোবাইল ফোন, নগদ অর্থ ও মূল্যবান সামগ্রী ছিনিয়ে নিতো। চক্রটি টঙ্গী, আব্দুল্লাহপুর, চৌরাস্তা, বেড়িবাঁধ, আশুলিয়া ও আশপাশের এলাকায় দীর্ঘদিন ধরে এ ধরনের কর্মকাণ্ড চালিয়ে আসছে। তাদের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করা হয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ