Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার ১৮ জুন ২০১৯, ৪ আষাঢ় ১৪২৬, ১৪ শাওয়াল ১৪৪০ হিজরী।

জনমনে ক্ষোভ দানা বাঁধছে : গণতন্ত্রী পার্টি

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২০ মে, ২০১৯, ১২:০৪ এএম

সারাদেশে ধর্ষণ-খুনের মত ঘটনা বৃদ্ধিতে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন সরকারের অন্যতম শরিক গণতন্ত্রী পার্টির নেতৃবৃন্দ। তারা বলেন, কোথাও কোথাও এসব ঘটনায় আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সম্পৃক্ততা এবং সরকারদলীয় লোকজনদের জড়িত থাকায় জনমনে ক্ষোভ দানা বাঁধছে। এই ক্ষোভ প্রশমনে সরকারকে যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণের তারা দাবি জানান। তারা শোষণমুক্ত, জঙ্গিমুক্ত, অসাম্প্রদায়িক চেতনায়, প্রগতিশীল ও মুক্তিযুদ্ধের আকাঙ্খার বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে মুক্তিযুদ্ধের ধারার বিকল্পশক্তি গড়ে তোলার আহ্বান জানান।
গতকাল গণতন্ত্রী পার্টির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সভাপতিমন্ডলীর ও জাতীয় সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির এক যৌথ সভা সভাপতিমন্ডলীর সদস্য ও জাতীয় সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির সদস্য সচিব অধ্যাপক ডা. শহীদুল্লাহ সিকদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। সভায় বক্তব্য রাখেন পার্টির কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক ডা. শাহাদত হোসেন, সভাপতিমন্ডলীর সদস্য নুরুর রহমান সেলিম, এড. ভূপেন্দ্র ভৌমিক দোলন, শরাফত আলী হীরা, বাবুল দে, কানন আরা, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আনিসুর রহমান কচি, সম্পাদকমন্ডলীর সদস্য মিনহাজউদ্দিন সেলিম, এড. রফিক উদ্দিন পনি, ফরিদ উদ্দিন, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য মো. খায়রুল আলম, জয়পুরহাট জেলা কমিটির সভাপতি নজরুল ইসলাম, মতিঝিল থানা কমিটির সাধারণ সম্পাদক এস.এম মামুন ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ইবরাহিম জুয়েল প্রমুখ।
সভায় বক্তারা দেশের বিরাজমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি ও সাংগঠনিক বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোচনা করেন। তারা সরকারের সমালোচনা করে বলেন, মহান মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে বহু ত্যাগ-তীতিক্ষা ও এক সাগর রক্তের বিনিময়ে অর্জিত আজকের বাংলাদেশে ধনী-দরিদ্রের বৈষম্য, ঋণখেলাপী সংস্কৃতি, ব্যাংক লুটেরাদের বিরুদ্ধে কোন প্রকার শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ না করা, সীমিত সুযোগে ঋণ পুনঃতফসিলের নামে অবারিত সুযোগ দেয়া হচ্ছে। এতে জনমনে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হচ্ছে। তারা বলেন, কৃষকরা তাদের উৎপাদিত পণ্যের ন্যায্যমূল্য থেকে বঞ্চিত হচ্ছে যার ফলশ্রুতিতে কৃষক ধানক্ষেতে তাদের শস্য পুড়িয়ে দিচ্ছে এবং নষ্ট করে ফেলছে। তাই সরকারি উদ্যোগ গ্রহণের মাধ্যমে মধ্যস্বত্ত¡ভোগীদের দৌরাত্ম থেকে পরিত্রাণ ও কৃষকেরা তাদের উৎপাদিত পণ্যের ন্যায্য মূল্য পাওয়ার জন্য সরকারকে কার্যকর ভূমিকা গ্রহণের আহ্বান জানান। এর পাশাপাশি ঈদের পূর্বেই গার্মেন্টস শ্রমিক, পাটকল শ্রমিক সহ সকল শ্রমিকদের বকেয়া বেতন পরিশোধে সরকারকে কার্যকর উদ্যোগ গ্রহণের আহ্বান জানান তারা। সভায় আগামী ৩০ নভেম্বরের মধ্যে উপজেলা ও জেলা সম্মেলন সমাপ্ত করে ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহে জাতীয় সম্মেলন করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয় এবং জুন মাসে সাংগঠনিক টিম গঠন করে জেলায় জেলায় সফর কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ