Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার ২৭ জুন ২০১৯, ১৩ আষাঢ় ১৪২৬, ২৩ শাওয়াল ১৪৪০ হিজরী।

আমি আইনজীবী নই, টাউট!

সিলেট ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ১৯ মে, ২০১৯, ৫:০৭ পিএম

সিলেটে এক ভূয়া আইনজীবীকে ধরে পুলিশে সোপর্দ করেছেন সিলেট জেলা আইনজীবী সমিতির নেতৃবৃন্দ। আজ রবিবার সকালে সিলেট জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদকের নেতৃত্বে আদালত পাড়ায় ভূয়া আইনজীবী ও দালালদের চিহিৃত করতে এ শুদ্ধি অভিযান চালানো হয়। এসময় ‘শরীফ উদ্দিন খান’ নামের এক ভূয়া আইনজীবীকে আটকের পর সে ‘আইনজীবী নয়, টাউট’ বলে স্বীকার করে। তার বিরুদ্ধে এসএমপির কতোয়ালি মডেল থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক হোসেন আহমদ।

তিনি জানান, রাজধানী ঢাকাসহ সকল জেলা পর্যায়ের আদালতে কতিপয় দুস্কৃতিকারী আইনজীবী পরিচয় দিয়ে বিচারপ্রার্থী নিরিহ জনগণের সাথে প্রতারণা করে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। তা নিবারণ ও প্রতিরোধ কল্পে ভূয়া আইনজীবী চিহিৃত ও আটক অভিযান পরিচালনার অংশ হিসেবে আজ রবিবার সকালে সিলেট জেলা আদালত প্রাঙ্গনে (পড়ঁৎঃ চৎবসরংপ) অভিযানকালে ৩ নং হলের সামন থেকে শরীফ নামে এক ভূয়া আইনজীবীকে আটক করা হয়। সে আইনজীবী নয় মর্মে স্বীকারোক্তি দিয়েছে।
শরীফ উদ্দিন খান নিজেকে ভূমি সার্ভেয়ার ও সহকারী আইনজীবী হিসেবে পরিচয় দিতেন। তার কাছ থেকে উদ্ধারকৃত একটি ভিজিটিং কার্ডে নিজেকে বাংলাদেশ ডিপ্লোমা ইন সার্ভেয়ার এসোসিয়েশন, সিলেট জেলার সভাপতি হিসেবে উল্লেখ করেছেন।
আটক শরীফ সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলার নগর ডের্ঙরীর মইন উদ্দিন খানের পুত্র।
অভিযান পরিচালনার সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, সমিতির সহ সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট সাইফুর রহমান খন্দকার রানা, সমিতির সদস্য অ্যাডভোকেট বাবুল মিয়া, অ্যাডভোকেট আব্দুর রাজ্জাক, অ্যাডভোকেট তোফায়েল আহমদ শামীম, অ্যাডভোকেট বিক্রম তালুকদার প্রমুখ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আইনজীবী


আরও
আরও পড়ুন