Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার ২৫ জুন ২০১৯, ১১ আষাঢ় ১৪২৬, ২১ শাওয়াল ১৪৪০ হিজরী।

মেসির জোড়া গোলও যথেষ্ঠ হলো না

লা লিগা

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৯ মে, ২০১৯, ১০:৪০ পিএম

লা লিগা শিরোপা নিশ্চিত হয়েছে আগেই। তবে শেষটা জয় দিয়ে রাঙানো হলো না বার্সেলোনার। লিওনেল মেসির জোড়া গোলের পরও রোববার এইবারের মাঠ থেকে ২-২ নিয়ে ফিরতে হয়েছে আর্নেস্তো ভারভার্দের দলকে।

মৌসুমের শেষটা ভালো হয়নি রিয়াল মাদ্রিদেরও। ঘরের মাঠ সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে একই দিনের আগের ম্যাচে ২-০ গোলে হেরেছে জিনেদিন জিদানের দল। স্পেনের শীর্ষ লিগে শেষ দুই রাউন্ডেই হারল রিয়াল। গত সপ্তাহে রিয়াল সোসিয়েদাদের মাঠে ৩-১ গোলে হেরেছিল মাদ্রিদের দলটি।

শেষ পাঁচ ম্যাচে জয় মাত্র একটিতে। গত মার্চে দ্বিতীয় মেয়াদে কোচ হয়ে আসার পর ১১ ম্যাচের ছয়টিতে জয়হীন রইলেন জিদান, যার মধ্যে চারটিতেই হার।

এর নেতিবাচক প্রভাব অবশ্য সইতে হচ্ছে না লস ব্ল্যাঙ্কোসদের। তৃতীয় স্থানে থেকে লিগ শেষ করার হিসাব আগেই ঠিক হয়ে ছিল। শেষের ধারাবাহীক ব্যর্থতায় পয়েন্ট তালিকার শীর্ষ দল চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী বার্সেলোনার সঙ্গে ব্যবধান বেড়ে ২১ হয়েছে মাত্র। ৩৮ ম্যাচে ২১ জয়, ৫ ড্র ও ১২ পরাজয়ে ৬৮ পয়েন্ট নিয়ে লিগ মৌসুম শেষ করল রিয়াল। ২০০১-০২ মৌসুমের পর এটাই তাদের সবচেয়ে কম সংগ্রহ।

নিষেধাজ্ঞার কারণে এদিন দলে ছিলেন না কাসিমিরো ও জেসুস ভালেয়ো। হ্যামিস্ট্রিং চোটের কারণে ছিলেন না দলপতি সার্জিও রামোস। গ্যারেথ বেল এদিনও ছিলেন বেঞ্চে। তবে রাফায়েল ভারানে, লুকা মদরিচ, ভিনিসিউস জুনিয়র, করিম বেনজেমাদের নিয়ে শক্তিশালী দলই নামিয়েছিলেন কোচ। কিন্তু শেষরক্ষা হয়নি। ৬১তম মিনিটে সফরকারীদের এগিয়ে নেন লোরেন মোরোন। ৭৫তম মিনিটে গোছানো আক্রমণে ব্যবধান ২-০ করে দেন হেসে রদ্রিগেস।

এদিকে এইবারের মাঠে চারটি গোলই আসে প্রথমার্ধে। ২০তম মিনিটে এইবারকে এগিয়ে নেন মার্ক কুকুরেলা। ৩১ ও ৩২ তম মিনিটে দুই গোল করে উল্টো বার্সাকে লিড এনে দেন মেসি। লিগে এ নিয়ে মেসির গোলসংখ্যা দাঁড়ালো সর্বোচ্চ ৩৬টি। বিরতির ঠিক আগ মুহূর্তে পাবলো ডি ব্লেসিসের গোলে সমতায় ফেরে পয়েন্ট তালিকার ১২ নম্বরে থেকে লিগ শেষ করা এইবার।

৩৮ ম্যাচে ২৬ জয়, ৯ ড্র ও ৩ পরাজয়ে ৮৭ পয়েন্ট নিয়ে লিগ শেষ করল বার্সা। আগের দিন লেভান্তের মাঠে ২-২ গোলে ড্র করা আটলেটিকো মাদ্রিদ ৭৬ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে থেকে মৌসুম শেষ করে।

আসছে মৌসুমে স্প্যানিশ লিগ থেকে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে জায়গা পাওয়া অন্য দল ভ্যালেন্সিয়া। ইউরোপা লিগে খেলবে গেটাফে। আর ইউরোপা লিগের প্লে অফের সুযোগ হয়েছে সেভিয়ার। লিগ থেকে অবনমন হয়েছে জিরোনা, হুয়েস্কা ও রায়ো ভালিকানোর।

আগামী রোববার কোপা দেল রের ফাইনালে ভ্যালেন্সিয়াকে হারিয়ে ঘরোয়া ডাবল জয়ের হাতছানি বার্সার সামনে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন