Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর ২০১৯, ০৬ কার্তিক ১৪২৬, ২২ সফর ১৪৪১ হিজরী

ওবায়দুল কাদের জীবনের দ্বিতীয় ইনিংস খেলবেন

সড়ক ও পরিবহনে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনা চ্যালেঞ্জ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২০ মে, ২০১৯, ১২:০৩ এএম

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, জীবনের প্রথম ইনিংস শেষ করেছি। ইনশাল্লাহ, এবার দ্বিতীয় ইনিংস খেলবো। দ্বিতীয় ইনিংসের বড় চ্যালেঞ্জ হচ্ছে, যানজট নিরসন ও পরিবহনে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনা। আশা করি, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে তা আনতে পারবো।
গতকাল ওবায়দুল কাদের দুই মাস ১৬ দিন পর সুস্থ হয়ে সকাল সোয়া ১০টায় সচিবালয়ে নিজ মন্ত্রণালয়ে অফিস করেন। কার্যালয়ে গিয়ে প্রথমেই রুটিন কাজ করেন সেতুমন্ত্রী। পরে পৌনে ১১টায় নিজ কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন চলমান উন্নয়ন প্রকল্প বিষয়ক সভায় যোগ দিয়ে এসব কথা বলেন ওবায়দুল কাদের। সুস্থতার পর পুনরায় কাজে যোগ দেয়াকে তিনি দ্বিতীয় ইনিংস হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন।
ওবায়দুল কাদের বলেন, এদিন সম্মেলন কক্ষে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, এখন থেকে ২ মাস ১৬ দিন আগে আপনাদের (সাংবাদিক) সঙ্গে কথা বলেছিলাম। তারপর দীর্ঘদিন অনুপস্থিত ছিলাম। হয়তো সারাজীবনের জন্যই অনুপস্থিত থাকতে পারতাম। কিন্তু মহান আল্লাহর অশেষ দয়া, সকলের অশেষ দোয়া ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অশেষ আন্তরিকতা ও বিশেষ প্রয়াসে আমি ফিরে এসেছি।
নিজ মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে তিনি বলেন, আমার অনুপস্থিতিতেও আপনারা কাজে কোনো ঘাটতি তৈরি করেননি। এটা আমি সিঙ্গাপুরে থাকা অবস্থায়ই প্রধানমন্ত্রীর কাছে শুনেছি। তিনি আমায় বলেছেন, তোমার মন্ত্রণালয় ঠিকঠাক মতো চলছে।
মহাসড়কের অবস্থার কথা তুলে কাদের বলেন, আমাদের প্রধান সমস্যা ঢাকা-টাঙ্গাইল ও ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক। তবে এবার ঈদে মানুষ ভোগান্তি পড়বে না এটা বলতে পারি।
সেতুমন্ত্রী বলেন, ঢাকা-টাঙ্গাইল সড়কের গাজীপুর, চন্দ্রা, কোনাবাড়ীতে ৪টি আন্ডার পাসের কাজ শেষ হবে ঈদের আগেই। এতে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে ঈদে ঘরমুখো মানুষের কষ্ট অনেকটা কমে যাবে। তিনি বলেন, আগামী ২৫ মে মেঘনা-গোমতি সেতুর উদ্বোধন হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবন থেকে টেলি কনফারেন্সের মাধ্যমে মেঘনা এবং গোমতি সেতুর উদ্বোধন করবেন। এ সেতু দু’টি চালু হলে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে মানুষের দুর্ভোগ অনেকাংশে কমে যাবে।
সাংবাদিকদেও এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ভারতীয় ঋণ কর্মসূচির আওতায় ইতোমধ্যে বিআরটিসি’র জন্য পাঁচশত ট্রাকের মধ্যে চারশত আশিটি এবং ছয়শত বাসের মধ্যে একশত ঊনআশিটি ঢাকায় পৌঁছেছে। এবারে বিআরটিসি’র ঈদ স্পেশাল সার্ভিসে থাকছে প্রায় এগারোশ’ বাস। এছাড়া জরুরি অবস্থা মোকাবিলায় পঞ্চাশটি বাস স্ট্যান্ডবাই রাখা হবে বলে মন্ত্রী জানান।
নিজের চিকিৎসার বিষয়ে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন, আগামী ১৬ জুলাই চেকআপ করাতে সিঙ্গাপুরে যাবো। ভারি কাজ করতে চিকিৎসকেরা নিষেধ করেছেন। দুইমাস পরপর চেকআপ করাতে হবে। তিনি বলেন, আগের মতো রাস্তায়-রাস্তায় রোদ-বৃষ্টি একাকার করে কাজ করতে পারবো না। তবে ধীরে-ধীরে দুই-তিন মাস পর আগের মতো সুস্থ হয়ে উঠবো, ইনশাল্লাহ।
তিনি বলেন, আগামীকাল আমি পার্টি অফিসে যাবো। দুর্বলতা আছে, তবে মানসিকভাবে আমি পুরোপুরি প্রস্তুত। শারীরিকভাবেও সুস্থ আছি। এক দেড় মাস পর আগের মতো সমস্ত কাজ করতে পারব। আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলনের বিষয়ে কাদের বলেন, আওয়ামী লীগের কাউন্সিল যথাসময়ে অনুষ্ঠিত হবে। এই লক্ষ্য নিয়ে টিম ওয়ার্কের মাধ্যমে আমরা এগিয়ে যাচ্ছি। এ বিষয়ে তিনি বলেন, আমার অনুপস্থিতিতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই টিম ওয়ার্কে প্রয়োজনীয় নির্দেশ প্রদান করেছেন। সম্মেলন অনুষ্ঠানের কার্যক্রমে কোন সমস্যা হয় নি।
এসময় সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব মো. নজরুল ইসলাম, সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলী ইবনে আলম হাসান, বিআরটিএ’র চেয়াম্যান মো. মশিয়ার রহমান, বিআরটিসি’র চেয়ারম্যান ফরিদ আহমেদ ভুঁইয়া, ডিটিসিএ’র নির্বাহী পরিচালক খন্দকার রাকিবুর রহমানসহ সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।#



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ওবায়দুল কাদের


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ