Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৯, ০৩ কার্তিক ১৪২৬, ১৯ সফর ১৪৪১ হিজরী

মন্ত্রিসভায় রদবদল

চার মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পুনর্বিন্যাস : আগামীতে যুক্ত হবেন আরো ১১ জন

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২০ মে, ২০১৯, ১২:০৩ এএম

টানা তৃতীয়বার ক্ষমতায় আসার পর গঠিত মন্ত্রিসভা চার মাসের মাথায় কিছুটা রদবদল করা হয়েছে। চারজন মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পূনর্বিন্যাস করা হয়েছে। আগামীতে আরো কিছু মন্ত্রণালয়ে রদবদল করা হবে। এছাড়া কমপক্ষে ১১জন মন্ত্রিসভায় যুক্ত হবেন। এতে পুরনো মন্ত্রিসভার সদস্যদের মধ্য থেকে দুই বা তিন বাদে বাদ বাকি সবাই নতুন মুখ হবেন বলে সরকারের উচ্চ পর্যায়ের সূত্রে জানা গেছে।
গতকাল সন্ধ্যায় মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলমের সই করা এক প্রজ্ঞাপনে মন্ত্রিসভার রদবদলের তথ্য জানানো হয়। এতে অন্তত তিন জন মন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্বভার কমেছে। মন্ত্রণালয় পরিবর্তন করে স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসানকে তথ্য মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী করা হয়েছে।
একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিপুল বিজয়ের পর গত ৭ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী হিসেবে টানা তৃতীয় মেয়াদে শপথ নেন শেখ হাসিনা। ২৪ জন মন্ত্রী, ১৯ জন প্রতিমন্ত্রী এবং তিনজন উপমন্ত্রীকে নিয়ে নতুন সরকারের মন্ত্রিসভা সাজান তিনি।
এতে টেকনোক্র্যাট কোটায় ডাক, টেলিযোগাযোগ এবং তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পাওয়া মোস্তফা জব্বারকে কেবল ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রীর দায়িত্বে রাখা হয়েছে। তবে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) বিভাগের প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্বে থাকা জুনাইদ আহমেদ পলক একই দায়িত্বে রয়েছেন। অন্যদিকে, স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগের মন্ত্রীর দায়িত্বে থাকা তাজুল ইসলাম এখন কেবল স্থানীয় সরকার বিভাগের মন্ত্রীর হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন। পাশাপাশি একই মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্যও এখন কেবল পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগের প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করবেন।
এদিকে আরো কয়েকটি মন্ত্রণালয়ে রদবদল হবে বলে গুঞ্জন রয়েছে সচিবালয়ে। এর মধ্যে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরকে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী করা হতে পারে। সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পেতে পারেন নৌ-পরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী।
পানি সম্পদ উপ-মন্ত্রী এনামুল হক শামীমকে পূর্ণ মন্ত্রী করা হতে পারে। আর বর্তমান পানি প্রতিমন্ত্রী কর্ণেল (অব.) জাহিদ ফারুককে বিমান মন্ত্রণালয়ে দেয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এছাড়া ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমানকে স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী করা হতে পারে। প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী জাকির হোসেনকে অন্য মন্ত্রণালয়ে দেয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।
এছাড়া মন্ত্রিসভায় নতুন করে যুক্ত হতে পারেন কমপক্ষে আরো ১১ মুখ। এদের মধ্যে পুরনো মন্ত্রিসভার দুই তিন জন থাকতে পারেন। আর বাদ বাকি সবাই নতুন মুখ হবেন বলে জানা গেছে। এদের মধ্যে আওয়ামী লীগের প্রয়াত সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের বোন কিশোরগঞ্জ-১ আসনের এমপি ডা. সৈয়দা জাকিয়া নূর লিপি এবং দলের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক ফজিলাতুন্নেসা ইন্দিরা, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ইঞ্জি. আব্দুর সবুরের স্থান পাবার বিষয়ে গুঞ্জন রয়েছে।
এছাড়া দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ, আওয়ামী লীগের কয়েকজন কেন্দ্রীয় নেতার নাম আলোচনায় আসছে। টেকনোক্র্যাট কোটায় মন্ত্রিসভায় আসতে পারেন, এমন নেতাদের মধ্যে আলোচনার শীর্ষে রয়েছেন দলের দুই যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক, আবদুর রহমান ও সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম।#



 

Show all comments
  • Raju Ahmed Raj ২০ মে, ২০১৯, ১:০৫ এএম says : 0
    প্রিয় নেতা প্রিয় পলক ভাইকে অভিনন্দন
    Total Reply(0) Reply
  • MD Faruk ২০ মে, ২০১৯, ১:০৬ এএম says : 0
    এটা লুটপাটের নাটক
    Total Reply(0) Reply
  • Jami Shams ২০ মে, ২০১৯, ১:০৮ এএম says : 0
    যে যেখানে যোগ্য তাকে সেখানে।রাখা হয়না এটাই আসল সমস্যা বাংলাদেশের উন্নয়নে।। মুরাদ একজন ডাক্তার।। সে স্বাস্থ মন্ত্রণালয়ের অবশ্যই যোগ্য ব্যক্তি।।। সে নাই সেখানে। হাস্যকর
    Total Reply(0) Reply
  • Aman Ullah Aman ২০ মে, ২০১৯, ১:০৫ এএম says : 0
    Thanks
    Total Reply(0) Reply
  • আবির আরেফিন ২০ মে, ২০১৯, ১:০৮ এএম says : 0
    মোস্তফা জব্বারকে সরিয়ে অন্য কোনো দায়িত্ব দিলে ভালো হতো।
    Total Reply(0) Reply
  • কাওসার আহমেদ ২০ মে, ২০১৯, ৯:৫৭ এএম says : 0
    আশা করি প্রত্যেকেই তার উপর অর্পিত দায়িত্ব সততার সাথে পালন করবে।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মন্ত্রিসভা


আরও
আরও পড়ুন