Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৯, ০১ কার্তিক ১৪২৬, ১৬ সফর ১৪৪১ হিজরী

গ্যাস ট্যাবলেট সেবনে চৈতী রানী ও কনক রায়ের মৃত্যু

বগুড়ায় অসম প্রনয় ও সহমরণ

বগুড়া ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২০ মে, ২০১৯, ১:৩৯ পিএম

অসম ও অবৈধ প্রণয়লীলা ফাঁসের জেরে সহমরণকেই সমাধান মনে করে একসাথে গ্যাস ট্যাবলেট সেবন করে প্রাণ দিল চৈতী রানী (২৮) তার তরুণ প্রেমিক কনক চন্দ্র রায় (১৮) । রোববার মাঝ রাতে দুজনে এক সাথে তাদের বাড়ি সংলগ্ন পাটের ক্ষেতে গ্যাসের ট্যাবলেট খেয়ে শুয়ে পড়ে । মুহুর্তেই গ্যাস ট্যাবলেট্রে প্রতিক্রিয়া শুরু হলে দুজনে ছটফট করতে থাকে । বুঝতে পেরে পাড়া প্রতিবেশিরা তাদের উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে নেওয়ার প্রস্তুতির মধ্যেই মারা যায় তারা।
বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার সৈয়দপুর ইউনিয়নের গাংনগর মাঝ পাড়া গ্রামে এই ঘটনা ঘটেছে। স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মাহমুদ হোসেন তৌফিক পাড়া প্রতিবেশিদের কাছ থেকে পাওয়া তথ্য উদ্ধৃত করে জানান ,দুই সন্তানের জননী চৈতী রানী (২৮) বুদ্ধি প্রতিবন্ধী সুবন্ধু রায়ের স্ত্রী । একই মহল্লার বাসিন্দা অমল চন্দ্র রায়ের পুত্র কনক চন্দ্র রায় (১৮) এর সাথে আত্মীয়তা সুত্রে চৈতী রানী অবৈধ প্রনয়লীলায় জড়িয়ে পড়ে । সম্প্রতি উভয়ের সম্পর্ক জানাজানি হয়ে গেলে পাড়া প্রতিবেশি ও আত্মীয় স্বজনরা তাদের বিভিন্ন সময় অপমান অপদস্ত করতে থাকে ।
এরই জের ধরে দু’জনে সহমরণের সিদ্ধান্ত নিয়ে ইঁদুর নিধন ও পুকুরে ব্যবহার যোগ্য গ্যাস ট্যাবলেট সেবন করে এবং মারা যায় । শিবগঞ্জ থানার পুলিশ সোমবার মৃতদের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে । ঘটনাটি নিয়ে এলাকায় চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন