Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার ২০ জুন ২০১৯, ৬ আষাঢ় ১৪২৬, ১৬ শাওয়াল ১৪৪০ হিজরী।

ভারতের ঘোজাডাঙ্গায় ২য় দিনের ধর্মঘটে কার্যক্রম বন্ধ ভোমরা স্থল বন্দর

বেকার হাজার হাজার শ্রমিক

সাতক্ষীরা জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২২ মে, ২০১৯, ১২:৪৬ পিএম

ভারতের ঘোজাডাঙ্গায় ২য় দিনের মতো ধর্মঘট অব্যাহত থাকায় ভোমরা স্থল বন্দরের কার্যক্রম বন্ধ হয়ে পড়েছে। বেকার হয়ে পড়েছেন বন্দরের হাজার হাজার শ্রমিক। ঈদের আগে এমন ধর্মঘট শ্রমিকদের দারুণভাবে ভাবিয়ে তুলেছে।

ভোমরা সিএন্ডএফ এ্যাসোসিয়েশনের সহ-সভাপতি রামকৃঞ্চ চক্রবর্তী জানান, চলতি সপ্তাহে ভারতীয় কাষ্টমসের নির্দেশে ঘোজাডাঙ্গা শুল্কষ্টেশনে অনলাইনে (ডিজিটাল পদ্ধতিতে) দাপ্তরিক কার্যক্রম শুরু হয়। ফলে ভোমরা ও ঘোজাডাঙ্গা বন্দরের আমদানী-রপ্তানী কার্যক্রম ৭০ ভাগ হ্রাস পায়। এর প্রতিবাদে ভারতের ঘোজাডাঙ্গা সিএন্ডএফ এজেন্ট কর্মচারী ও কার্গোওয়েল ফেয়ার ইউনিয়ন মঙ্গলবার থেকে চার দিনের ধর্মঘটের ডাক দেয়।

ধর্মঘটের প্রভাবে ভোমরা বন্দরের বিপরীতে ভারতের ঘোজাডাঙ্গা এলাকায় প্রায় আড়াই হাজার আমদানীজাত পণ্য বাহী ট্রাক আটকে পড়েছে বলে ব্যবসায়ীরা জানান।
অনেক ব্যবসায়ী জানিয়েছেন, বিভিন্ন জটিলতায় আগে থেকেই আমাদানী-রপ্তানীতে ধ্বস নেমেছে দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম সাতক্ষীরার ভোমরা স্থল বন্দরে। বন্দওে নানাবিধ সমস্যা রয়েছে। যা দেখেও অনেকে দেখেন না।
কয়েকজন শ্রমিক জানান, এমনিতেই বন্দরে কাজকাম অনেক কম। লোড আনলোডে সারা দিনে যা আয় হয় তা দিয়ে কোনো রকমে সংসার চলে। সামনে রোজার ঈদ। খরচের ভাগ অনেক বেশি। এরমধ্যে ধর্মঘট শুরু হলো। দীর্ঘশ্বাস ছেড়ে তারা বলেন, ভাবনার শেষ নেই আমাদের।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ধর্মঘট


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ