Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার ১৬ জুন ২০১৯, ২ আষাঢ় ১৪২৬, ১২ শাওয়াল ১৪৪০ হিজরী।

মারধর ও লুটপাটের অভিযোগে আশুলিয়ার যুবলীগের ১৮ নেতাকর্মীর নামে মামলা

সাভার থেকে স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৩ মে, ২০১৯, ৩:৪৪ পিএম

আধিপত্য ও ব্যবসায়িক বিরোধের জ্বের ধরে মারধর, লুটপাট ও এক গাড়ী চালককে কুপিয়ে জখম করার অভিযোগে আশুলিয়া থানা যুবলীগের আহব্বায়ক কবির হোসেন সরকারসহ ১৮জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলায় ৮জনের নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাতনামা ১০জনকে আসামী করা হয়েছে।
মামলা সূত্রে জানাগেছে, যুবলীগ নেতা কবির হোসেন সরকারের সাথে প্রতিবেশী আবিদ সরকার লিমনের স্থানীয় আধিপাত্ব্য ও ব্যাবসায়ীক বিরোধ চলে আসছিল। বুধবার দুপুরে লিমন তার ছোট ভাইয়ের গাড়ী চালককে সাথে নিয়ে সরকারবাড়ী এলাকায় মসজিদের নির্মাণ কাজ দেখছিলেন। এসময় হঠাৎ যুবলীগ নেতা কবির হোসেন সরকার, সালাউদ্দিন সরকার, সোহেল সরকার, আব্দুল বারেক, হাবিবুর রহমান, রুমান মোল্লা, শহিদুল, শামীমসহ আর ১০ জন লোক নিয়ে তাদের উপর হামলা চালায়। মারধরের পর নগদ টাকাসহ প্রায় দুই লাখ টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। এসময় যুবলীগ নেতার লোকজন গাড়ী চালক আলমকে কুপিয়ে জখম করে। এক পর্যায়ে তাদের চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে এলে যুবলীগ নেতা অস্ত্র বের করে তাদেরকে হত্যার হুমকি দিয়ে ঘটনাস্থল থেকে চলে যায়। পরে আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাদেরকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
অভিযুক্ত যুবলীগ নেতা কবির হোসেন সরকার মুঠোফোনে বলেন, মামলাটি সাজানো এবং মিথ্যা। ওই ঘটনার সাথে তিনি জড়িত নন।
কাশিমপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আকবর আলী খান বলেন, কুপিয়ে জখমের ঘটনায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতারের জন্য অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলেও তিনি জানান।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মামলা


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ