Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার ২৫ জুন ২০১৯, ১১ আষাঢ় ১৪২৬, ২১ শাওয়াল ১৪৪০ হিজরী।

অবৈধ প্রচারণায় জাপান টোব্যাকো

মৃত্যুবিপণন কার্যক্রমের একটি কূটকৌশল

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৩ মে, ২০১৯, ৮:২৬ পিএম

কবি গুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরকে ব্যবহার করেছে এবার তামাক কোম্পানি। সম্প্রতি বিভিন্ন গণমাধ্যমে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জাপান ভ্রমণ ইতিহাস নিয়ে তারকা শিল্পী তাহসান খানের একটি অনুষ্ঠানের বিজ্ঞাপন প্রচারণা চলছে। বুধবারও (২৩ মে) দেশের প্রথম সারির দৈনিকগুলোতে এই বিজ্ঞাপনটি প্রচার করেছে জাপান টোব্যাকো বাংলাদেশ।

তামাক নিয়ে কাজ করা সংগঠনগুলো বলছে, একটি অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে গণমাধ্যমে এধরনের ব্যাপক প্রচার-প্রচারণা অভূতপূর্ব এবং নজিরবিহীন। এই প্রমোশনাল বিজ্ঞাপনে ব্যবহার করা হয়েছে জাপান টোব্যাকোর (জেটিআই) ব্রান্ড কালার এবং স্লোগান ‘জাপানিজ কোয়ালিটি’। জাপান টোব্যাকো তাদের ব্রান্ড প্রমোশনের ক্ষেত্রে একই কালার এবং স্লোগান ব্যবহার করে থাকে। সুতরাং নিঃসন্দেহে বলা যায় এই অনুষ্ঠানটি মূলত জাপান টোব্যাকোর ব্রান্ড প্রমোশনের জন্যই তৈরি করা হয়েছে।

এদিকে বিজ্ঞাপনে জাপান টোব্যাকোর নাম বলা না হলেও বিভিন্ন স্থানে যেসব ক্যাম্পেইন চলছে এবং বিপনণ কর্মকর্তারা যে শার্ট গায়ে দিচ্ছেন, সেখানে ‘জাপানিজ কোয়ালিটি’ স্লোগানের সঙ্গে জেটিআই এর লোগোও রয়েছে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের শিক্ষার্থী রুবেল আহমেদ বলেন, রবীন্দ্রনাথ বাঙ্গালির চিন্তা ধারার একটি বড় জগৎ জুড়ে রয়েছে। সেখানে রবীন্দ্রনাথ এবং তার প্রতি মানুষের দূর্বলতাকে পুঁজি করে সিগারেট কোম্পানির বিজ্ঞাপন একটি ন্যক্কারজনক ঘটনা। এটা যেমন বাঙ্গালি সংস্কৃতিকে অপমান করা, তেমনি মানুষকে ঠকিয়ে তামাকের প্রচারনা করা। এই ধরনের বিজ্ঞাপনে তারকা শিল্পী তাহসানের সংযুক্ত হওয়ার নিন্দাও করেন তিনি।

এদিকে তামাক নিয়ন্ত্রনে কাজ করা বেসরকারি সংস্থ্যা প্রজ্ঞার এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, জাপান টোব্যাকো বাংলাদেশের বাজারে প্রবেশের পর থেকেই আইন ভঙ্গ করে বিভিন্ন উপায়ে প্রচার-প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছে। তাহসান খান বর্তমান সময়ের একজন জনপ্রিয় শিল্পী এবং দেশের তরুণ সমাজের একজন আইকনও বটে। তামাক কোম্পানির অর্থায়নে তৈরি এ ধরনের অনুষ্ঠানে তার অংশগ্রহণ কোনোভাবেই কাম্য নয়, যা তরুণ সমাজকে তামাকপণ্যে আকৃষ্ট করতে পারে।

ধূমপান ও তামাকজাত দ্রব্য ব্যবহার (নিয়ন্ত্রণ) আইনের ধারা ৫ অনুযায়ী, প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে কোনো তামাকজাত দ্রব্য বা তামাকের ব্যবহার প্রবর্ধনের উদ্দেশ্যে যে কোন ধরনের বাণিজ্যিক কার্যক্রম পরিচালনা নিষিদ্ধ এবং দন্ডনীয় অপরাধ। কোনো ব্যাক্তি কিংবা প্রতিষ্ঠান আইনের এই বিধান লংঙ্ঘন করলে অনুর্ধ্ব তিন মাস বিনাশ্রম কারাদন্ড বা অনধিক এক লাখ টাকা অর্থদন্ড বা উভয় দন্ডে দন্ডনীয় হবে।

আইনি বিধি-নিষেধ এড়িয়ে এই ধরনের আগ্রাসী প্রচারণা জাপান টোব্যাকোর মৃত্যুবিপণন কার্যক্রমের একটি অন্যতম কূটকৌশল বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন