Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ২১ অক্টোবর ২০১৯, ০৫ কার্তিক ১৪২৬, ২১ সফর ১৪৪১ হিজরী

এসবিএসি ব্যাংকের ৬ষ্ঠ বার্ষিক সাধারণ সভা

করপোরেট সুশাসন নিশ্চিতে গুরুত্বারোপ চেয়ারম্যানের, মুনাফা নয়; গ্রাহক সন্তুষ্টিই প্রাধান্য- ব্যবস্থাপনা পরিচালক

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৫ মে, ২০১৯, ১২:০৭ পিএম | আপডেট : ১২:০৮ পিএম, ২৫ মে, ২০১৯

সাউথ বাংলা এগ্রিকালচার অ্যান্ড কমার্স (এসবিএসি) ব্যাংক শেয়ারহোল্ডারদের জন্য ১০ শতাংশ স্টক লভ্যাংশ অনুমোদন করেছে। গত বৃহষ্পতিবার ব্যাংকের ৬ষ্ঠ বার্ষিক সাধারণ সভায় এ লভ্যাংশ অনুমোদন দেওয়া হয়। শনিবার (২৫) এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

রাজধানীর লা মেরিডিয়ান হোটেলে ব্যাংকের চেয়ারম্যান এস এম আমজাদ হোসেন-এর সভাপতিত্বে সভায় ব্যাংকের ভাইস-চেয়ারম্যান তালুকদার আব্দুল খালেক, নির্বাহী কমিটির চেয়ারম্যান ক্যাপ্টেন এম. মোয়াজ্জেম হোসেন, পরিচালক আব্দুল কাদির মোল্লা, ইঞ্জিনিয়ার মোখলেসুর রহমান, বেগম সুফিয়া আমজাদ, মো. আমজাদ হোসেন, মিজানুর রহমান, মোহাম্মাদ নেওয়াজ, এ জেড এম শফিউদ্দিন (শামীম), তাহমিনা আফরোজ, মো. আনোয়ার হোসেন, শেখ সাইদুজ্জামান, হাফিজুর রহমান বাবু, কামরুন নাহার, মোহাম্মদ আইয়ুব, সাখাওয়াত হোসেন, স্বতন্ত্র পরিচালক ড. সৈয়দ হাফিজুর রহমান ও মো. সাজিদুর রহমানসহ শেয়ারহোল্ডাররা উপস্থিত ছিলেন। স্বাগত বক্তব্য রাখেন- ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী মো. গোলাম ফারুক। সভায় ২০১৮ সালের আর্থিক বিবরণী এবং শেয়ারহোল্ডারদের জন্য ১০ শতাংশ স্টক লভ্যাংশ অনুমোদন করা হয়।

আর্থিক বিবরণীতে দেখা যায়, ৩১ ডিসেম্বর ২০১৮ পর্যন্ত এসবিএসবি ব্যাংকের আমানতের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে প্রায় ৬ হাজার কোটি টাকা, যা এর আগের বছরের তুলনায় ১৮ দশমিক ৩২ শতাংশ বেশি। এসময়ে ব্যাংকের মোট ঋণের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে পাঁচ হাজার ২৫ কোটি টাকা, যা এর আগের বছরের তুলনায় ১৬ শতাংশ বেশি। ২০১৮ সালে এসবিএসি ব্যাংক ২০৩ কোটি টাকার পরিচালন মুনাফা করেছে এবং নিট মুনাফা দাঁড়িয়েছে প্রায় ৮৮ কোটি টাকা। এবছরে ব্যাংক এক হাজার ৬৩৯ কোটি টাকার রফতানি এবং দুই হাজার ৭৩৫ কোটি টাকার আমদানি বাণিজ্য সম্পন্ন করেছে। এছাড়া ২০১৮ সালে ৪৩২ কোটি টাকার রেমিট্যান্সআহরণ করেছে এসবিএসি ব্যাংক।

চেয়ারম্যান এস এম আমজাদ হোসেন বলেন, ব্যাংক একটি সেবামূলক প্রতিষ্ঠান। আমরাও চেয়েছি সেবায় নতুনত্ব আনতে। গ্রাহকরা আমাদের সেবা গ্রহণ করেছে। আমাদের ম্যানেজমেন্ট সেভাবে অ্যাকশন প্ল্যান নিয়ে কাজ করছে।ব্যাংক কর্মকর্তাদের নিত্যনতুন চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করে আধুনিক তথ্যপ্রযুক্তির সঙ্গে টিকে থাকতে হয়। সে জন্য এ খাতে দক্ষ ও সৎ কর্মকর্তা খুবই প্রয়োজন। তিনি বলেন, ব্যাংকের প্রধান কার্যালয় থেকে শাখা পর্যন্ত সবধরনের কর্মকর্তাদের সর্বোত্তম গ্রাহক সেবা নিশ্চিত করতে হবে। গ্রাহক সন্তুষ্টি আমাদের সবচেয়ে বড় পুঁজি। সেটাকে কাজে লাগাতে ব্যর্থ হলে আমরা প্রতিযোগিতায় পিছিয়ে পড়বো। তিনি কর্মকর্তাদের করপোরেট সুশাসন নিশ্চিতে দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী মো. গোলাম ফারুক বলেন, চতুর্থ প্রজন্মের ব্যাংকগুলোর মধ্যে এসবিএসি ব্যাংকসবসূচকে একটি অনন্য উচ্চতায় পৌঁছাতে সক্ষম হয়েছে। আমরা মুনাফা অর্জনকে বড় করে দেখি না, ব্যাংকের সেবার মাধ্যমে গ্রাহকদের সন্তুষ্টিকে প্রাধান্য দিই। একইসঙ্গে বাংলাদেশ ব্যাংকের সবধরনের নীতিমালা সম্পূর্ণরূপে পরিপালন করে আমরা এগিয়ে যেতে চাই। তিনি জানান, বর্তমানে আমাদের আমানতকারীর সংখ্যা দুই লাখ ছাড়িয়েছে। আমরা ডিজিটাল ব্যাংকিংকে সর্বাধিক গুরুত্ব দিচ্ছি; ইতোমধ্যে আমরা অ্যাপভিত্তিক ডিজিটাল ওয়ালেট সেবা ‘বাংলাপে’ চালু করেছি। গ্রাহক তার মোবাইলের মাধ্যমেই অর্থ স্থানান্তর, ইউটিলিটি বিল পরিশোধ করতে পারছেন। তিনি বলেন, ট্রেড প্রসেসিং ইউনিটের মাধ্যমে আমাদের সবগুলো শাখায় বৈদেশিক বাণিজ্যিক কার্যক্রম পরিচালিত হয়। বর্তমানে বিশ্বের ২৩টি ব্যাংকের সঙ্গে আমাদের ক্রেডিট লাইন ও ২১০টি ব্যাংকের সঙ্গে করেসপন্ডিং ব্যাংকিং রয়েছে। চতুর্থ প্রজন্মের ব্যাংকগুলোর মধ্যে এসবিএসি ব্যাংক সর্বোচ্চ রেমিট্যান্স আহরণে সক্ষম হয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: এসবিএসি ব্যাংক


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ