Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার ২৭ জুন ২০১৯, ১৩ আষাঢ় ১৪২৬, ২৩ শাওয়াল ১৪৪০ হিজরী।

ফিলিস্তিনের বিষয়টি মীমাংসা হওয়ার আগে বিশ্বে শান্তি আসবে না: মাহাথির

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৫ মে, ২০১৯, ১:৪৪ পিএম | আপডেট : ২:১১ পিএম, ২৫ মে, ২০১৯

ফিলিস্তিনের বিষয়টি মীমাংসা হওয়ার আগে বিশ্বে শান্তি আসার কোনো উপায় নেই বলে মন্তব্য করেছেন মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মাদ। তিনি বলেন, ফিলিস্তিন সমস্যার সমাধানের সঙ্গে বিশ্ব-শান্তিও ওতপ্রোতভাবে জড়িত।


ফিলিস্তিন প্রতিরোধ আন্দোলন হামাসের রাজনৈতিক ব্যুরোর সাবেক প্রধান খালিদ মাশায়ালের সম্মানে মালয়েশিয়ার প্রশাসনিক রাজধানী পুত্রাজায়ায় আয়োজিত ইফতার মাহফিলে এ মন্তব্য করেন মাহাথির।

এসময় মধ্যপ্রাচ্যে চলমান লাগাতার সংঘাতের বিরুদ্ধেও সবাইকে সতর্ক থাকার আহবান জানান তিনি। খবর আল জাজিরার।

ফিলিস্তিনের প্রতি সমর্থন পুনর্ব্যক্ত করে মাহাথির বলেন, তার দেশ সবসময় ফিলিস্তিনের পাশে রয়েছে এবং ফিলিস্তিনের যুক্তিসংগত সব প্রাপ্য অধিকারের পক্ষে তারা। ফিলিস্তিনি ভূখণ্ডে ইসরাইলি দখলদারিত্বের নীতি মালয়েশিয়া সম্পূর্ণভাবে প্রত্যাখ্যান করে বলেও জানান মাহাথির মোহাম্মাদ।

ইসরাইলের সমালোচনা করে মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী বলেন, মধ্যপ্রাচ্যে এতো গোলযোগ, অস্থিরতা এবং সন্ত্রাসবাদের মূলে রয়েছে ইসরাইল। মালয়েশিয়া সবসময় ফিলিস্তিনের পাশে রয়েছে।

এ পর্যন্ত তার দেশ ইসরাইলের বিরুদ্ধে অনেক আন্দোলনে অংশ নিয়েছে বলেও হামাসের এ নেতাকে অবহিত করেন মাহাথির। বলেন, মালয়েশিয়ানরা ফিলিস্তিনের পক্ষে অসংখ্য বিক্ষোভ করেছে এবং গাজায় ইসরাইলি অবরোধ ভাঙার বৃহৎ মিছিল গ্রেট মার্চ অব রিটার্নেও তার দেশের অনেক নাগরিক অংশগ্রহণ করেছে।

বক্তৃতায় মাহাথির মোহাম্মাদ ফিলিস্তিনিদেরকে তাদের ভূখণ্ড ফিরিয়ে দেয়ার জন্য আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে ইসরাইলের প্রতি চাপ প্রয়োগের আহবান জানান এবং বলেন, এটা তাদের দায়িত্ব।

ইফতার মাহফিলে হামাস নেতাদের পাশাপাশি মালয়েশিয়ায় বসবাসরত কয়েকশ ফিলিস্তিনি নাগরিক, মালয়েশিয়ার বেশ কয়েকজন মন্ত্রী এবং প্রতিবেশী এশীয় দেশগুলোর মন্ত্রী ও সাংসদরা উপস্থিত ছিলেন।

পাশাপাশি মালয়েশিয়ার বেশ কয়েকজন শিল্পী, ঊর্ধ্বতন সরকারি কর্মকর্তা, সুশীল সমাজের প্রতিনিধি এবং বন্ধুপ্রতীম কয়েকটি দেশের রাষ্ট্রদূতও অংশ নিয়েছিলেন এতে ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মালয়েশিয়া


আরও
আরও পড়ুন