Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ অক্টোবর ২০১৯, ০২ কার্তিক ১৪২৬, ১৮ সফর ১৪৪১ হিজরী

হুমকি মোকাবেলায় কারাকাসকে প্রস্তুত করছে রাশিয়া : মস্কো

১৫শ’ মার্কিন সেনা মোতায়েন ইস্যু নিরাপত্তা পরিষদে পাঠানো হতে পারে

ইনকিলাব ডেস্ক : | প্রকাশের সময় : ২৬ মে, ২০১৯, ১২:০৩ এএম

রাশিয়া বলেছে, ল্যাতিন আমেরিকার দেশ ভেনিজুয়েলার বিরুদ্ধে সামরিক শক্তি ব্যবহারের যে হুমকি আমেরিকা দিয়েছে তার মোকাবিলায় কারাকাসকে প্রস্তুত করছে মস্কো। এ লক্ষ্যে রাশিয়ার সেনা ও সামরিক বিশেষজ্ঞরা ভেনিজুয়েলায় কাজ করে যাচ্ছে বলেও মস্কো জানিয়েছে। কারাকাসে নিযুক্ত রুশ রাষ্ট্রদূত ভøাদিমির জায়িমস্কি বার্তা সংস্থা এএফপি’কে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন, ওয়াশিংটন একাধিকার ভেনিজুয়েলার বিরুদ্ধে সামরিক শক্তি ব্যবহারের হুমকি দেয়ার পর থেকে ল্যাতিন আমেরিকার দেশটি উদ্বেগ-উৎকণ্ঠায় রয়েছে। রুশ রাষ্ট্রদূত বলেন, এ অবস্থায় ভেনিজুয়েলা এ ব্যাপারে নিশ্চিত হতে চায় যে, তার হাতে থাকা সমরাস্ত্র ও সামরিক বাহিনী সময়মতো জ্বলে উঠতে পারবে। জায়িমস্কি বলেন, রাশিয়ার সামরিক বিশেষজ্ঞরা ভেনিজুয়েলার সমরাস্ত্র ও সামরিক বাহিনীকে যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত করার কাজ করে যাচ্ছেন। ২০০১ সালে রাশিয়া ও ভেনিজুয়েলার মধ্যে স্বাক্ষরিত সামরিক চুক্তি অনুযায়ী রাশিয়ার বিশেষজ্ঞরা বৈধভাবে ভেনিজুয়েলায় প্রশিক্ষণ কাজ চালিয়ে যেতে পারবেন বলেও জানান রুশ রাষ্ট্রদূত। গত মার্চ মাসে রাশিয়ার একটি অ্যান্তোনভ-১২৪ সামরিক কার্গো বিমান এবং একটি ইলিউশন যাত্রীবাহী বিমানে করে প্রায় ১০০ সামরিক বিশেষজ্ঞ ও সামরিক সরঞ্জাম ভেনিজুয়েলা পৌঁছায়। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প রাশিয়াকে ‘ভেনিজুয়েলা ত্যাগ করা’র আহ্বান জানিয়ে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেছেন, ল্যাতিন আমেরিকা থেকে রাশিয়াকে ‘বহিষ্কার’ করার জন্য ওয়াশিংটন ‘সব পদক্ষেপ’ নেয়ার পথ খোলা রেখেছে। রাশিয়া ট্রাম্পের এ হুমকি প্রত্যাখ্যান করে বলেছে, ভেনিজুয়েলায় সামরিক বিশেষজ্ঞ পাঠানোর পূর্ণ অধিকার মস্কোর রয়েছে। অপর এক খবরে বলা হয়, রাশিয়ার পররাষ্ট্র সম্পর্ক বিষয়ক সংসদীয় কমিটির প্রধান ভ্লাদিমির জাবারভ বলেছেন, মধ্যপ্রাচ্যে মার্কিন সেনাসংখ্যা বাড়ানোর বিষয়টি জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে উত্থাপন করা হতে পারে। আমেরিকা মধ্যপ্রাচ্যে অতিরিক্ত দেড় হাজার সেনা পাঠানোর সিদ্ধান্তের কথা ঘোষণা করার পর তিনি এ প্রতিক্রিয়া জানালেন। জাবারফ বলেন, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প মধ্যপ্রাচ্যে সেনা পাঠানোর মাধ্যমে ইরানকে উসকানি দিচ্ছে এবং এ অঞ্চলে ভয়-ভীতি ও মনস্তাত্তি¡ক যুদ্ধ ছড়িয়ে দেওয়ার চেষ্টা করছে। তিনি বলেন, ইরান দেশটি ইরাক ও আফগানিস্তানের মতো নয়। ইরান একটি শক্তিশালী দেশ এবং দেশটির সর্বোচ্চ নেতার নেতৃত্বে ইরানিরা ঐক্যবদ্ধ। তিনি আরও বলেন, আশাকরছি ট্রাম্প বাস্তবতা উপলব্ধি করতে সক্ষম হবেন এবং মধ্যপ্রাচ্যকে অস্থিতিশীল করবেন না। মার্কিন প্রেসিডেন্টের সাম্প্রতিক পদক্ষেপ প্রমাণ করে দেশটির পররাষ্ট্রনীতি স্থিতিশীল নয়। রুশ এই কর্মকর্তা বলেন, আমেরিকা একবার বলছে সিরিয়া থেকে সেনা প্রত্যাহার করবে,আরেকবার বলছে মধ্যপ্রাচ্যে নতুনকরে সেনা পাঠাবে। এ থেকে বোঝা যাচ্ছে, আমেরিকা যেকোনো সময় যেকোনো পদক্ষেপ নিতে হবে। আমেরিকা মধ্যপ্রাচ্যে দেড় হাজার অতিরিক্ত সেনা মোতায়েনের ঘোষণা দিয়ে বলেছে, মধ্যপ্রাচ্যে মার্কিন রক্ষার জন্য এসব সেনা মোতায়েন হবে। পার্সটুডে।



 

Show all comments
  • Abdullah Al Samit ২৬ মে, ২০১৯, ১:৫৮ এএম says : 0
    যুদ্ধ নয় শান্তি চাই
    Total Reply(0) Reply
  • মোঃআলমগীর গাইন ২৬ মে, ২০১৯, ২:০২ এএম says : 0
    ঘরের শত্তুরু বিভিসন এবার হবে খেলা
    Total Reply(0) Reply
  • Osman Hossain ২৬ মে, ২০১৯, ২:০২ এএম says : 0
    রাশিয়া সাহস দেখিয়েছে।ভাল লাগছে।
    Total Reply(0) Reply
  • জয় খান ২৬ মে, ২০১৯, ২:০৫ এএম says : 0
    পৃখিবীর সব রাষ্ট্রের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে নাক গলানো আমেরিকার বাজে অভ্যাসে পরিণত হয়েছে। উচিত শিক্ষা দেওয়ার দরকার।
    Total Reply(0) Reply
  • নীলাভ্র শ্রাবণ ২৬ মে, ২০১৯, ২:০৫ এএম says : 0
    আমেরিকাকে প্রতিহত করার জন্য রাশিয়ায়ে এভাবে সবজায়গায় এগিয়ে আসতে হবে।
    Total Reply(0) Reply
  • জহির মাসুম ২৬ মে, ২০১৯, ২:০৬ এএম says : 0
    তাইলে আমেরিকার আর সাহস পাবো না। ট্রাম্প মোদি নিপাত যাক, মুসলিমরা মুক্তি পাক্
    Total Reply(0) Reply
  • মো রিয়াজুল ইসলাম ২৬ মে, ২০১৯, ২:০৭ এএম says : 0
    সাব্বাস রাশিয়া, এভাবেই সর্বত্র মার্কিনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ গড়ে তোল।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন