Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার ১৭ জুন ২০১৯, ৩ আষাঢ় ১৪২৬, ১৩ শাওয়াল ১৪৪০ হিজরী।

বিকাশে রেমিট্যান্স আসা বেড়েছে

অর্থনৈতিক রিপোর্টার : | প্রকাশের সময় : ২৭ মে, ২০১৯, ১২:০৫ এএম

দেশের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব ঈদুল ফিতরকে কেন্দ্র করে মোবাইল ফিনান্সিয়াল সার্ভিস বিকাশে রেমিটেন্স আসার পরিমান বেড়েছে। রমজান মাসের প্রথম ১৫ দিনেই এ বছরের এপ্রিল মাসে পাঠানো রেমিটেন্স এর প্রায় সমপরিমান রেমিটেন্স এসেছে। বিকাশ সূত্রে জানা যায় রমজান মাসের প্রথম ১৫ দিনে বিকাশের মাধ্যমে ১০ কোটি টাকার ও বেশি পরিমানে রেমিটেন্স পাঠিয়েছেন প্রবাসীরা। অথচ এপ্রিল মাস জুড়ে পাঠানো রেমিটেন্স এর পরিমান ছিল ১২ কোটি টাকার কিছু বেশি। এমনকি মার্চ মাসে বিকাশে পাঠানো রেমিটেন্সের পরিমান ছিল একই রকম। অন্যদিকে বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্যানুসারে মার্চ ২০১৯-এ সবগুলো মোবাইল ফিনান্সিয়াল সার্ভিসে পাঠানো রেমিটেন্স এর পরিমান ছিল ১৪ কোটি টাকার কিছু বেশি। একমাসে আসা রেমিটেন্সের সাথে তুলনা করলে রমজানের প্রথম ১৫ দিনে আসা রেমিটেন্সের হার প্রায় দ্বিগুনের কাছাকাছি। সংশ্লিষ্টরা বলছেন ঈদ পর্যন্ত রেমিটেন্স হার আরো বাড়বে।
বাংলাদেশী শ্রমঘন দেশ মালেশিয়া, সংযুক্ত আরব আমিরাত, দক্ষিণ কোরিয়া, সিঙ্গাপুর, ওমান, ইটালি ছাড়াও যুক্তরাজ্য ও যুক্তরাষ্ট্র থেকে ব্যাংকিং চ্যানেলের মাধ্যমে বিকাশে তাদের প্রিয়জনের কাছে টাকা পাঠাচ্ছেন প্রবাসীরা।
বিকাশের হেড অব কর্পোরেট কমিউনিকেশন্স শামসুদ্দিন হায়দার ডালিম বলেন, বিকাশে পাঠানো রেমিটেন্স গ্রাহক সহজেই তার সুবিধাজনক সময়ে নিকটবর্তী এজেন্ট পয়েন্ট থেকে ক্যাশআউট করতে পারে। সহজ, দ্রুত, নিরাপদ ও বৈধ ব্যাংকিং চ্যানেলের মাধ্যমে এই লেনদেন অবৈধ হুন্ডিকে নিরুৎসাহিত করছে এবং দেশের বৈদেশিক মুদ্রার রির্জাভকে দিনদিন আরো শক্তিশালী করছে। লাস্ট মাইল সলুস্যন্স প্রোভাইডার হিসেবে বিকাশ রেমিটেন্স গ্রহীতাদের কাছে ইতোমধ্যে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।
প্রবাসীদের কষ্টার্জিত অর্থ আরো কম খরচে প্রিয়জনের কাছে পৌঁছে দিতে রমজান ও ঈদ উপলক্ষ্যে রেমিটেন্স গ্রহীতাদের জন্য বিনামূল্যে ক্যাশআউট এর অফার দিয়েছে দেশের সবচেয়ে বড় মোবাইল ফিনান্সিয়াল সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান বিকাশ। ক্যাম্পেইন চলাকালীন সর্বোচ্চ ৫ বারের লেনদেনে বিকাশের এই অফার প্রযোজ্য হবে। ক্যাম্পেইন শুরু হয়েছে ৬ মে চলবে ১০ জুন ২০১৯ পর্যন্ত।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন