Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৪ অক্টোবর ২০১৯, ০৮ কার্তিক ১৪২৬, ২৪ সফর ১৪৪১ হিজরী

দেশে দিনে ১৪-১৫ মায়ের মৃত্যু

ওজিএসবি সোসাইটির মতবিনিময় সভায় বক্তারা

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৭ মে, ২০১৯, ১:০০ এএম

প্রসবজনিত জটিলতার কারনে দেশে এখনো প্রতিদিন ১৪ থেকে ১৫ জন মা মৃত্যুবরণ করেন। বছরে এ সংখ্যা দাঁড়ায় ৫ হাজার ৪৭৫ জনে। গতকাল রোববার সকালে রাজধানীর বিএমএ মিলনায়তনে আয়োজিত এক মতবিনিময় সভায় বক্তারা এসব কথা বলেন। অবসটেট্রিক্যাল এন্ড গাইনোকোলজিক্যাল সোসাইটি অব বাংলাদেশ (ওজিএসবি) এ মত বিনিময় সভার আয়োজন করে।

মত বিনিময় সভায় আরও জানানো হয়, বিশ্বব্যাপী প্রতিদিনি ৮৩০ জন মা মৃত্যুবরণ করেন। গর্ভধারণ এবং প্রসবজনিত জটিলতায় প্রতি বছর পৃথিবীতে প্রায় ৩ লাখ ৩০ হাজার নারীর মৃত্যু হয় এবং ২৬ লাখ মৃত জন্মসহ ৩০ লাখ নবজাতক অকাল মৃত্যুবরণ করে।
সংগঠনের সভপতি প্রফেসর ডা. সামিনা চৌধুরীর সভাপতিত্বে ওজিএসবির কার্যক্রম তুলে ধরেন সেক্রেটারি জেনারেল প্রফেসর ডা. সালেহা বেগম চৌধুরী। তিনি বলেন, স্ত্রীরোগ ও ধাত্রীবিদ্যা বিশেষজ্ঞগণের এই সংগঠনের সদস্য সংখ্যা ২ হাজার এবং দেশব্যাপী শাখা রয়েছে ১৩টি। সংগঠনটি ১৯৭২ সালে প্রতিষ্ঠার পর থেকে জাতীয়, আন্তর্জাতিক এবং সরকারের পৃষ্ঠপোষকতায় মার্তৃস্বাস্থ্য এবং শিশু স্বাস্থ্য উন্নয়নে নিরলসভাবে কাজ করে আসছে। বাংলাদেশের মার্তৃ-মৃত্যু হার হ্রাস পাওয়ার পেছনে এ সংগঠনের বিশেষ ভূমিকা রয়েছে।
সভায় বক্তারা বলেন, দেশে মার্তৃ-মৃত্যুর প্রধান কারণ রক্তক্ষরণ এবং খিচুনি। খুব স্বল্প মূল্যের ওষুধ দিয়ে এসব সমস্যার সমাধান করা সম্ভব। কিন্তু দেশীয় কোম্পানি এসব ওষুধ তৈরি না করায় এর প্রাপ্যতা সহজলভ্য করা সম্ভব হয় না।
মতবিনিময় সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের কার্যকরী সভাপতি প্রফেসর ফেরদৌসি বেগম, সাবেক সভাপতি প্রফেসর ডা. লায়লা আরজুমান্দ বানু, ডা. রওশন আরা বেগম, আন্তর্জাতিক সম্পাদক প্রফেসর ড. দীপি বড়–য়া, প্রফেসর ডা. সায়েবা আক্তার, প্রফেসর ডা. রশীদা বেগম, প্রফেসর ডা.পারভিন ফাতেমা, প্রফেসর ডা. নজনীন কবীর, ডা. শারমিন আব্বাসি প্রমূখ। #



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন