Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৫ অক্টোবর ২০১৯, ৩০ আশ্বিন ১৪২৬, ১৫ সফর ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

যশারের শার্শায় ঈদে নতুন পোষাক দিতে না পারায় দুই শিশু সন্তানকে বিষ খাইয়ে হত্যা করে নিজে আত্মহুতি

বেনাপোল অফিস | প্রকাশের সময় : ২৭ মে, ২০১৯, ১০:৫৯ এএম | আপডেট : ১১:৩৭ এএম, ২৭ মে, ২০১৯

যশারের শার্শায় ঈদে নতুন পোষাক দিতে না পারায় দুই শিশু সন্তানকে বিষ খাইয়ে হত্যা করে নিজেও আত্মহুতি দিলেন এক অসহায় মা

যশোরের শার্শার দীঘায় ঈদে নতুন পোষাক দিতে না পারায় দু”শিশু সন্তানকে বিষ ট্যাবলেট খাইয়ে হত্যা করে নিজেও আত্মহুতি দিলেন এক অসহায় মা। মর্মস্পর্শী হৃদয়বিদারক ঘটনাটি ঘটেছে রাত ১২ টার দিকে যশোরের শার্শা উপজেলার চালিতা বাড়ীয়া দীঘা গ্রামে। মৃত সকলেই ঐ এলাকার হতদরিদ্র চা- দোকানি ইব্রাহীমের স্ত্রী ও সন্তান।
চরম অভাব অনটনে ঈদে সন্তানদের নতুন জামাকাপড় কিনে দিতে না পেরে ইব্রাহীমের স্ত্রী হামিদা খাতুন (৩৫) প্রথমে স্কুল পড়ুয়া কণ্যা মেয়ে শরিফা খাতুন (১১) ও সোহান হোসেন (৪) কে খাবারের সাথে কীটনাশক (বিষ ট্যাবলেট) খাইয়ে নির্মম ভাবে মৃত্যু নিশ্চিত করে। এর পর নিজেও ঐ বিষ ট্যাবলেট খেয়ে আত্নহত্যা করেন।
এলাকাবাসী ও পারিবারিক সূত্র জানায়, দারিদ্রতার নির্মম কষাঘাতে জর্জরিত পরিবারে নুন আনতে পান্তা ফুরায় অবস্থা থাকে বছরের প্রায় সারাটা সময়। ফলে গন্ডোগোল-ঝামেলা লেগেই থাকত সংসারে। এমন অবস্থায় সামনে পবিত্র ঈদ-উল ফিতরে সন্তানদের নতুন জামা কাপড় কেনাকাটা সহ সাংসারিক নানা অভাব অনটন নিয়ে রবিবার রাত আনুমানিক সাড়ে ১১ টায় দিকে স্বামী স্ত্রীর মধ্যে তুমুল গন্ডগোল-ঝামেলা ও তর্কাতর্কি হয়। এক পর্যায়ে এসময় স্ত্রী হামিদা খাতুন নিজে কন্যা শরিফা ও শিশু পুত্র সোহানকে বিষ ট্যাবলেট খাইয়ে মৃত্যু নিশ্চিৎ করে নিজেও একই ট্যাবলেট খেয়ে আত্নহত্যা করে।
শার্শা থানার ওসি মশিউর রহমান জানান, এটি হত্যা না আত্ন হত্যা তা ময়না তদন্ত রিপোর্ট ছাড়া বলা যাবে না। হত্যার বিষয়টি রহস্যজনক বলে ধারণা করা হচ্ছে। সর্বশেষ এ ঘটনায় পুলিশ ৩ জনকে গ্রেফতার করেছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আত্মহত্যা


আরও
আরও পড়ুন