Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার ১৭ জুলাই ২০১৯, ০২ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৩ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

রোহিঙ্গা হত্যার ১০ বছর সাজার ১ বছর না যেতেই মিয়ানমারের সেনারা মুক্ত

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৭ মে, ২০১৯, ৬:০৯ পিএম

মিয়ানমারে ১০ জন রোহিঙ্গা মুসলমানকে হত্যার দায়ে সাজাপ্রাপ্ত সাত সেনাসদস্য সাজার মেয়াদ শেষের আগেই মুক্তি পেয়েছেন। তাদের প্রত্যেকের ১০ বছর করে কারাদণ্ড হলেও এক বছরেরও কম সময় কারাগারে থাকতে হয়েছে তাদের৷ দু'জন কারাকর্মকর্তা, দুই কারাবন্দী ও এক সেনাসদস্যের বরাত দিয়ে আজ (সোমবার) এ তথ্য জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স৷

সাত সেনাকে মুক্তি দেওয়া হয়েছে গত নভেম্বরে৷ তবে বিষয়টি এতদিন চেপে রেখেছিল দেশটির সরকার।

২০১৭ সালে রাখাইনের ইন দিন গ্রামে নিরপরাধ ১০ সংখ্যালঘু রোহিঙ্গা মুসলমানকে লাইন ধরে বসিয়ে ঠান্ডা মাথায় গুলি করে হত্যা করা হয়। ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করে ও গুলির মাধ্যমে তাদের হত্যার পর গণকবর দেওয়া হয়। এ হত্যাকাণ্ডে সেনাবাহিনীর পাশাপাশি বৌদ্ধ প্রতিবেশীরাও অংশ নেন।

বিষয়টি রয়টার্সের অনুসন্ধানে উঠে আসলে তোলপাড় সৃষ্টি হয়। এরপর সাত সেনাকে ১০ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়। ওই ঘটনার অনুসন্ধান চালিয়ে সংবাদ প্রকাশের কারণে সাজা হয়েছিল রয়টার্সের দুই সাংবাদিকের৷ ওই দুই সাংবাদিক ১৬ মাস জেল খাটলেও হত্যার দায়ে সাজাপ্রাপ্তদের এক বছরও কারাগারে থাকতে হয়নি৷

আন্তর্জাতিক চাপের মুখে মিয়ানমারের প্রেসিডেন্টের ক্ষমায় গত ৭ মে দুই সাংবাদিক ছাড়া পেয়েছেন৷ কিন্তু তার আগেই মুক্তি পেয়ে গেছেন খুনি সেনা সদস্যরা।

মিয়ানমারের সেনাবাহিনী ও উগ্রপন্থীদের হামলায় এ পর্যন্ত অসংখ্য রোহিঙ্গা মুসলমান প্রাণ হারিয়েছেন। কিন্তু এসব হত্যাকাণ্ডের কোনো বিচার হয় নি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: রোহিঙ্গা


আরও
আরও পড়ুন