Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০১৯, ০৩ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৪ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

ভোগান্তি বাড়ছেই

ঈদকে সামনে রেখে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের রূপগঞ্জে দীর্ঘ যানজট

খলিল সিকদার, রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) থেকে | প্রকাশের সময় : ২৮ মে, ২০১৯, ১২:০৩ এএম

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক ও এশিয়ান হাইওয়ে (বাইপাস) সড়কে যানজট নিরসনের লক্ষ্যে উপজেলার ভুলতা ও গোলাকান্দাইল এলাকায় তিন তলা বিশিষ্ট ফ্লাইওভারের কাজ চলমান রয়েছে।
প্রায় দুই মাস আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ওই ফ্লাইওভারের এশিয়ান হাইওয়ে (বাইপাস) সড়কের অংশ উদ্বোধন করেন। বর্তমানে এশিয়ান হাইওয়ে (বাইপাস) সড়কে তেমন কোন যানজট না থাকলেও ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে যানজট এখন নিত্য দিনের সঙ্গী। ঈদকে সামনে রেখে এখন যানজটের ভয়াবহতা প্রতিদিন বাড়ছেই। গতকাল সোমবার সকালে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে প্রায় আট কিলোমিটার এলাকাজুড়ে যানজটের সৃষ্টি হয়।
এ কারণে যাত্রীদের যেন ভোগান্তির শেষ নেই। যানজটে আটকা পড়ে অপেক্ষা করতে হচ্ছে ঘন্টার পর ঘন্টা। যেখানে যেতে সময় লাগার কথা ২০ মিনিট, সেখানে সময় লাগছে ১ থেকে ২ ঘন্টা। এ দীর্ঘ যানযটের প্রধান কারণ ভুলতা ফ্লাইওভার ও রাস্তার নির্মাণ কাজ, যেখানে সেখানে যাত্রী উঠানামা, চালকরা নিয়ম না মেনে গাড়ি চালানো, হাটবাজারে লোড-আনলোড, অবৈধ ফুটপাট, হাইওয়ে পুলিশের বেপরোয়া চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন অব্যবস্থাপনা।
নিত্য দিনের এ যানজটের কারণে স্কুল কলেজের ছাত্রছাত্রী, ব্যবসায়ী, চাকুরিজীবি থেকে শুরু করে সকল শ্রেণি পেশার মানুষকে ভোগান্তিতে পোহাতে হচ্ছে।
পরিবহন চালক, যাত্রী ও পুলিশের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, উপজেলার গোলাকান্দাইল চৌরাস্তা এলাকা দিয়ে ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক ও এশিয়ান হাইওয়ে (বাইপাস) সড়ক অত্রিকম করেছে। বর্তমানে এশিয়ান হাইওয়ে (বাইপাস) সড়কটির অংশের ফ্লাইওভার চালু থাকায় তেমন কোন যানজট নেই। তবে, বাইপাস সড়কের যানবাহনগুলো ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে প্রবেশ করলে ওই চৌরাস্তায় চাপ পড়ে। এতে করে এখনও নিত্যদিনের যানজটে পড়তে হচ্ছে যাত্রীসাধারনের।
এছাড়া পুরো ফ্লাইওভার এলাকায় ভুলতা পুলিশ ফাঁড়ির সামনের এক পাশে সড়ক পারাপারের ব্যবস্থা করে দেয়া হয়েছে। আর এ পারাপারের স্থান দিয়ে শত শত পথচারী পারাপার হচ্ছে। এ কারণেও যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে।
এছাড়া ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক মোটামুটি প্রশস্থ হলেও এশিয়ান হাইওয়ে (বাইপাস) সড়কটি প্রশস্থ অনেকটা কম। এতে এশিয়ান হাইওয়ে (বাইপাস) সড়কে কোন প্রকার যানবাহন বিকল হয়ে পড়লেই তীব্র যানজট সৃষ্টি হচ্ছে।
সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায়, ভুলতা ফ্লাইওভারের কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে। দিন-রাত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন দায়িত্বরত ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানটি। সংশ্লিষ্টরা আশা করছেন শিগগিরই ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের অংশ টুকুও চালু হয়ে যাবে। তাহলে যানজট আর থাকবে না বলে দাবি করেন তারা।
এদিকে, ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের গাউসিয়া মার্কেটকে বাংলাদেশের অন্যতম বৃহৎ পাইকারী কাপড়ের বাজার হিসেবে বিবেচনা করা হয়। এ মার্কেটে পাইকারী ও খুচরাসহ প্রায় সাড়ে ৩ হাজার দোকান রয়েছে। মালামাল আনা নেওয়ার জন্য এখানে প্রতিদিন কয়েকশ’ গাড়ী এখানে রাখা হয়। গাউসিয়া মার্কেটের কোন নিজস্ব পার্কিং ব্যবস্থা না থাকার কারণে বাধ্য হয়েই চালকদেরকে গাড়ী রাস্তায় রাখতে হচ্ছে। রাস্তায় গাড়ী রাখার কারণে রাস্তা অর্ধেকটা দখল হয়ে যাওয়ায় অন্যান্য গাড়ী চলাচল করতে পারছে না। এতে করে সৃষ্টি হচ্ছে দীর্ঘ যানযটের।
এছাড়া গাউসিয়া মার্কেটের সামনে কয়েক হাজার ফুটপাতের দোকান রয়েছে। ফুটপাতে দোকান থাকার কারণে সাধারণ মানুষকে রাস্তা দিয়ে চলাচল করতে হচ্ছে। রাস্তা দিয়ে চলাচল করতে গিয়ে অনেক সময় যাত্রীদেরকে দুর্ঘটনার শিকার হতে হচ্ছে। একই কারণে মহাসড়কে যান চলাচলেও বিঘ্ন ঘটছে। নাম না প্রকাশ শর্তে বেশ কয়েকজন চালক অভিযোগ করে জানান, তাদের গাড়ীর কাগজপত্র ও ড্রাইভিং লাইসেন্স সঠিক থাকার পরও পুলিশকে টাকা না দিলে গাড়ি চলতে দেয় না।
ভুলতা স্কুল অ্যান্ড কলেজ ও গোলাকান্দাইল মজিবুর রহমান ভূঁইয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, এ দীর্ঘ যানজটের কারণে প্রতিদিনই তাদেরকে স্কুলে যেতে অতিরিক্ত সময় লাগে। সময় মতো স্কুলে না পৌঁছাতে পারলে তাদেরকে স্যারদের কাছে জবাব দিহি করতে হয়। এশিয়ান হাইওয়ে (বাইপাস) সড়কের অংশের ফ্লাইওভারটি চালু করার পরেও যানজটের কবলে পড়ে ভোগান্তির শিকার হতে হয় তাদের।
রূপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহমুদুল হাসান বলেন, ঈদকে সামনে রেখে ট্রাফিক পুলিশ ও হাইওয়ে পুলিশের পাশাপাশি রূপগঞ্জ থানা পুলিশও যানজট নিরসনে কাজ চালিয়ে যাচ্ছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: যানজট

৮ জুলাই, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন