Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৯, ০১ কার্তিক ১৪২৬, ১৬ সফর ১৪৪১ হিজরী

মোদি মন্ত্রিসভার শপথগ্রহণ

২৪ মন্ত্রী ৩৩ প্রতিমন্ত্রী

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৩১ মে, ২০১৯, ১২:১৮ এএম

বিমসটেক নেতৃবৃন্দ আর বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট মো. আব্দুল হামিদসহ দেশি-বিদেশি ৮ হাজার অতিথির উপস্থিতিতে গতকাল সন্ধ্যায় দিল্লির রাষ্ট্রপতি ভবনের ফোরকোর্টে দ্বিতীয় মেয়াদে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছেন নরেন্দ্র দামোদর দাস মোদি। প্রেসিডেন্ট রামনাথ কোবিন্দ প্রথমে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং পরে একে একে মন্ত্রিসভার অন্য সদস্যদের শপথবাক্য পাঠ করান। নরেন্দ্র মোদির পর পূর্ণমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেন ২৪ জন। তারা হলেন, যথাক্রমে, রাজনাথ সিং, অমিত শাহ, নীতিন গড়করি, সদানন্দ গৌড়া, নির্মলা সীতারমন, রমাবলাস পাসোয়ান, নরেন্দ্র সিং তোমর, রবিশঙ্কর প্রসাদ, হরসিমরাত সিং বাদল, থাওয়ার চন্দ্র গেহলট, সব্রহ্মণ্যম জয়শঙ্কর, রমেশ পোখরিয়াল নিশান্ত, অর্জুন মুন্ডা, স্মৃতি ইরানি, হর্ষবর্ধন, প্রকাশ জাভড়েকর, পীযুষ গোয়েল, ধর্মেন্দ্র প্রধান, মুক্তার আব্বাস নকভী, পহ্লাদ যোশী, মহেন্দ্রনাথ পান্ডে, অরবিন্দ গণপত সাওয়ান্ত, গিরিবাজ সিং, শেখাওয়াত। এরপর ৩৩ জন প্রতিমন্ত্রী শপথ নেন। তারা হলেন, দেবশ্রী চৌধুরী, কৈলাস চৌধুরী, প্রতাপচন্দ্র সারঙ্গী, রামেশ্বর তেলি, সোমপ্রকাশ, রেণুকা সিং সুরিতা, বি মুরলিধরন, রতনলাল কাটারিয়া, নিত্যানন্দ রাই, সুরেশচন্দ্র বাসাপ্পা, অনুরাগ ঠাকুর, ধোত্রে সঞ্জয়, সঞ্জীব কুমার বালিয়ান, বাবুল সুপ্রিয়, সাধ্বী নিরঞ্জন জ্যোতি, রামদাস আঠাওয়ালে, পুরুষোত্তম রূপালা, জি কৃষ্ণ রেড্ডি, দাদারাও পাটিল দানবে, কৃষ্ণপাল গুজ্জর, জেনারেল ভিকে সিং, অর্জুন কুমার মেঘওয়াল, অশ্বিনীকুমার চৌবে, ফগন সিং কুলস্তে, মনসুখ মান্ডাবিয়া, হরদীপ সিং পুরী, রাজকুমার সিং, প্রহ্লাদ সিং প্যাটেল, কিরণ রিজিজ, জিতেন্দ্র সিং, শ্রীপদ যশো নায়েক, ইন্দ্রজিৎ সিং, সন্তোষকুমার গাঙ্গোয়ার।
পশ্চিমবঙ্গে বিজেপির উত্থানে অবদান রাখায় মন্ত্রিসভায় জায়গা পেয়েছেন মাত্র ২ জন। বাবুল সুপ্রিয় এ নিয়ে দ্বিতীয় বার প্রতিমন্ত্রী হলেন। আর দেবশ্রীকে করা হলো প্রতিমন্ত্রী। এ নিয়ে রাজ্য বিজেপি পড়লো চরম বেকায়দায়। কারণ মাত্র ৪ সদস্য নিয়ে যেখানে একজন প্রতিমন্ত্রী পেয়েছিল সেখানে ১৮ জন নিয়ে মাত্র দু’জন তাও আবার প্রতিমন্ত্রী।
দ্বিতীয় মেয়াদে নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠ ৩০৩ আসন থাকায় জোটের শরিকদের প্রতি তেমন আগ্রহ নেই বিজেপির। তা কাক্সিক্ষত সংখ্যক মন্ত্রণালয় পায়নি অনেক শরিক। যেমন বিহারের নীতিশ কুমারের জেডিইউ প্রার্থিত দু’টি মন্ত্রণালয় না পেয়ে মন্ত্রিসভায় যোগদানে অস্বীকৃতি জানিয়েছে। তারা কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায় না থাকলেও শরিক থাকছে বলে জানিয়েছেন বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতিশ কুমার। এদিকে ডাক পেয়ে প্রথমে ‘রাজনৈতিক সৌজন্য’ প্রদর্শনের খাতিরে যাবার ঘোষণা দিলেও ‘রাজনীতিকরণ ও মিথ্যার আশ্রয়’ গ্রহণের অভিযোগে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দিল্লিতে মোদির শপথ অনুষ্ঠানে যোগদান থেকে বিরত থাকেন।
ওদিকে নরেন্দ্র মোদির প্রথম মন্ত্রিসভার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ এবার মন্ত্রিসভায় নেই। নয়বারের এই পার্লামেন্ট সদস্য এবার লোকসভা নির্বাচনে প্রার্থীই হননি। ৬৭ বছরের এই অভিজ্ঞ পার্লামেন্টারিয়ানের অনীহার কারণেই মন্ত্রিসভায় তাকে রাখা হয়নি বলে গণমাধ্যমে বলা হয়েছে।
এর আগে রাষ্ট্রপতি ভবনে শপথ নিতে যাবার আগে নতুন মন্ত্রিসভার সদস্য হতে ডাক পাওয়াদের নরেন্দ্র মোদির বাসভবনে আমন্ত্রণ জানানো হয়। বিকেল পাঁচটায় নতুন মন্ত্রিসভার সদস্যরা নরেন্দ্র মোদির বাসভবনে হাজির হন। বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ নতুন মন্ত্রিদের নরেন্দ্র মোদির বাসভবনে আমন্ত্রণ জানান। বৃহস্পতিবার শপথের কয়েক ঘণ্টা আগে নতুন মন্ত্রিদের একটি তালিকা প্রকাশ করা হয়।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মোদি

১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ