Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৩১ ভাদ্র ১৪২৬, ১৫ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী।

পূর্ব এশিয়ার জন্য অভিন্ন মুদ্রা ব্যবস্থার প্রস্তাব

সমঝোতার ব্যর্থতা সামরিক সংঘাত ডেকে আনতে পারে : মাহাথির

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১ জুন, ২০১৯, ১২:০৫ এএম

পূর্ব এশিয়ার দেশগুলোকে একটি স্বর্ণভিত্তিক অভিন্ন মুদ্রা-ব্যবস্থার আওতায় আসার পরামর্শ দিয়েছেন মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ। তিনি মনে করছেন, পদক্ষেপটি বাস্তবায়ন করা গেলে এই অঞ্চলের দেশগুলো ডলার নির্ভরতা থেকে বেরিয়ে আসতে সক্ষম হবে। বাণিজ্য খাতেও গতি বাড়বে। জাপানের রাজধানী টোকিওতে দ্য ফিউচার অব এশিয়া সম্মেলনে যোগ দিয়েছেন মাহাথির। ইম্পেরিয়াল হোটেলে আয়োজিত ওই সম্মেলনে এশীয়-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রনেতা, রাজনীতিবিদ, অর্থনীতিবিদ, গবেষক ও তাত্তি¡করা যোগ দিয়েছেন। সম্মেলনে মাহাথির বলেছেন, ‘পূর্বাঞ্চলে আমরা যদি পরস্পরের কাছাকাছি আসতে চাই, তাহলে আমাদের একটি অভিন্ন মুদ্রা ব্যবস্থার দিকে যেতে হবে। স্থানীয়ভাবে সেই মুদ্রা ব্যবহার করা নয়, অঞ্চলগত বাণিজ্যে তা ব্যবহার করা যেতে পারে।’ মাহাথির আরও বলেন, ‘এই মুহূর্তে বাণিজ্যিক লেনদেনে আমাদের ডলার ব্যবহার করতে হয়। তবে ডলারের মুদ্রামান স্থিতিশীল নয়। সুতরাং আমি যে মুদ্রা ব্যবস্থার প্রস্তাব করছি, তার ভিত্তি হওয়া উচিত স্বর্ণ। কেননা স্বর্ণ অনেক বেশি স্থিতিশীল।’ জাপানি স¤প্র্রচারমাধ্যম নিকেই আয়োজিত ‘দ্য ফিউচার অব এশিয়া’কে এ অঞ্চলের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ আন্তর্জাতিক সম্মেলন বিবেচনা করা হয়। অপর এক খবরে বলা হয়, মালয়েশিয়া যত বেশি সম্ভব হুয়াওয়ের টেকনোলজি ব্যবহার করবে বলে জানালেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ। বৃহস্পতিবার প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে মালয়েশিয়ার শীর্ষস্থানীয় সংবাদপত্র দ্য স্টার অনলাইন জানায়, জাপানের টোকিওতে অনুষ্ঠিত ফিউচার অব এশিয়া কনফারেন্সে তিনি একথা জানান। যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের মধ্যকার চলমান বাণিজ্য উত্তেজনা যখন চরম পর্যায়ে, ঠিক তখনই এমন কথা জানালেন মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী। জাপানের সংবাদপত্র নিক্কেই এশিয়ান রিভিউ জানায়, যখন জাপান ও অস্ট্রেলিয়াসহ একাধিক দেশ হুয়াওয়ের পণ্যের ব্যবহার এড়িয়ে চলছে, তখন এই চীনা কোম্পানিকে ত্যাগ করার কোনও ইচ্ছা নেই মালয়েশিয়ার। নিক্কেই আয়োজিত এই কনফারেন্সে মাহাথির বলেন, মালয়েশিয়ার সক্ষমতার চেয়ে হুয়াওয়ের গবেষণা অনেক বড়। আমেরিকান টেকনোলজির তুলনায় হুয়াওয়ে অনেক এগিয়ে। তাই আমরা তাদের টেকনোলজি যত বেশি সম্ভব ব্যবহার করার চেষ্টা করবো। তিনি জানান, গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগগুলো নিয়ে মোটেও উদ্বিগ্ন না কারণ তারা একটি খোলা বইয়ের মতো। তিনি উভয় দেশকে সতর্ক করে বলেন, এক্ষেত্রে সমঝোতার ব্যর্থতা সামরিক সংঘাত ডেকে আনতে পারে। মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী বলেন, হুয়াওয়ের শক্তিশালী গবেষণা এবং উন্নয়ন সক্ষমতার কথা যুক্তরাষ্ট্রকে অবশ্যই স্বীকার করতে হবে। আর এই কারণেই পূর্বাঞ্চলের দেশগুলোতে হুয়াওয়ের ব্যবহার দেখা যেতেই পারে। তিনি বলেন, যদি আমি এগিয়ে না থাকতে পারি, তবে যুদ্ধজাহাজ পাঠাবো। এটা প্রতিযোগিতা নয়। এটা হুমকি। তবে তিনি দক্ষিণ চীন সাগরে বেইজিংয়ের যুদ্ধজাহাজ অবস্থানের বিরুদ্ধে কথা বলেন। তিনি বলেন, যখন দুটি বিশাল শক্তি যুদ্ধে জড়িয়ে পড়ে, তখন ক্ষুদ্র রাষ্ট্রগুলো পদদলিত হয়। রয়টার্স, দ্য স্টার অনলাইন।



 

Show all comments
  • Ali Ahmed Bepul ১ জুন, ২০১৯, ২:৩৭ এএম says : 0
    পরিকল্পনাটা ভালো কিন্ত আমেরিকা মানতে রাজি হবে না।
    Total Reply(0) Reply
  • Sheikh Sadi ১ জুন, ২০১৯, ২:৩৮ এএম says : 0
    এটা ভাল প্রস্তাব। এতে করে পূর্ব এশিয়াতে অামেরিকা অর্থনৈতিক ভাবে বড় ধরনের একটি ধাক্কা খাবে।
    Total Reply(0) Reply
  • Sadiq Khan ১ জুন, ২০১৯, ২:৩৮ এএম says : 0
    সাবাই মানলেও ভারত মানবে না। গ্যারান্টি
    Total Reply(0) Reply
  • Mahbub Shawkot ১ জুন, ২০১৯, ২:৩৮ এএম says : 0
    ইউই যদি অভিন্ন মুদ্রা ইউরো করতে পারে, পূর্ব এশিয়ার দেশগুলির জন্যেও অভিন্ন মুদ্রা ব্যবস্থা হতে পারে।
    Total Reply(0) Reply
  • OG Redoy ১ জুন, ২০১৯, ২:৩৮ এএম says : 0
    india and bangadesh will not agree...surely
    Total Reply(0) Reply
  • Shanto Islam ১ জুন, ২০১৯, ২:৩৮ এএম says : 0
    খুব চমৎকার প্রস্তাব , কিন্তু আম্রিকা তো এক্সট্রা এমসি, ওরা মানতে চাইবো না
    Total Reply(0) Reply
  • Abu Dastagir - Salim ১ জুন, ২০১৯, ২:৩৯ এএম says : 0
    মুখে বলছে ঠিক আছে কিন্তু বাস্তবায়ন করতে গেলে গাদ্দাফীর মত নিজের দেশের কুলাংগারগের হাতে মরতে হবে!
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মালয়েশিয়া


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ