Inqilab Logo

ঢাকা মঙ্গলবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৭ আশ্বিন ১৪২৭, ০৪ সফর ১৪৪২ হিজরী

কী নাটক অপেক্ষা করছে আজ

চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনাল

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১ জুন, ২০১৯, ১২:০৫ এএম

বিশ্বকাপ ক্রিকেটে ক্রীড়ামদিরা এতটাই বুদ হয়ে আছেন যে তারা হয়ত ভুলেই গেছেন ইউরোপিয়ান ফুটবল মৌসুমের সবচেয়ে কাক্ষিখত ম্যাচটাই এখনো বাকি। ঠিকই ধরেছেন, উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনালের কথাই বলা হচ্ছে। প্রতিক্ষার সেই ম্যাচে মাদ্রিদের স্তাদিও মেট্রোপলিতানোয় আজ মুখোমুখি হচ্ছে প্রিমিয়ার লিগের দুই প্রতিদ্ব›দ্বী লিভারপুল ও টটেনহাম হটস্পার।

ইতিহাসে প্রথমবারের মত এবারই ইউরোপিয়ান ক্লাব ফুটবলের শীর্ষ দুই প্রতিযোগিতাই হচ্ছে অল ইংলিশ ফাইনাল। ইউরোপা লিগের ফাইনালে আর্সেনালকে হারিয়ে শিরোপা জিতেছে চেলসি। এবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ট্রফিও লিভারপুলে যাক কিংবা লন্ডনে, ইংল্যান্ডেই থাকছে।

এবারের চ্যাম্পিয়ন্স লিগ একের পর এক চমক উপহার দিয়ে চলেছে। বিশেষ করে নকআউট পর্বের ভাগ্য নির্ধরণী ম্যাচগুলো ছিল শ্বাসরুদ্ধকর আর অবিশ্বাস্য নাটকীয়তার মোড়কে জড়ানো। সান্তিয়াগো বার্নাবুতে টানা তিনবারের চ্যাম্পিয়ন রিয়াল মাদ্রিদকে উড়িয়ে প্রথম চমক উপহার দেয় আয়াক্স। এখানেই থেমে থাকেনি নেদারল্যান্ডসের দলটি। শেষ আটে আসরের আরেক ফেভারিট জুভেন্টাসকে হারিয়ে সেমিফাইনালে উঠে যায় ডাচ চ্যাম্পিয়নরা। শেষ চারে টটেনহামের মাঠ থেকে ১-০ গোলে জিতে ফেরার পর ঘরের মাঠে প্রথমার্ধে ২-০ গোলে এগিয়ে ফাইনাল ছিল তাদের নাগালেই। দুই লেগ মিলে তখন তারা ৩-০ গোলে এগিয়ে। কিন্তু এরপরই পাল্টে যায় দৃশ্যপট। ম্যাচের অন্তিম সময়ে লুকাস মৌরার হ্যাট্রিক পূর্ণ করা গোলে অবিশ্বাসের জন্ম দেয় স্পার্সরা। নিজেরে ফুটবল ইতিহাসে প্রথমবারের মত উঠে যায় ফাইনালে।

লিভারপুলের ফাইনাল যাত্রাটা অবিশ্বাসে রূপ নেয় সেমিফাইনালের দ্বিতীয় লেগে এসে। প্রথম লেগে বার্সেলোনার মাঠে ৩-০ গোলে পিছিয়ে থাকায় ঘরের মাঠে অবিশ্বাস্য কিছুই করতে হত ক্লপের দলকে। ফুটবল বিশ্বকে চমকে দিয়ে আর লা লিগা চ্যাম্পিয়নদের রক্ষণকে নিয়ে ছেলেখেলা করে গুনে গুনে প্রয়োজনীয় চার গোলই করে বসে ‘অল রেড’ খ্যাত দলটি।

ফাইনালে কী নাটক অপেক্ষা করছে তা হয়ত সময়ই বলে দেবে। তবে ফুটবল বোদ্ধাদের বিশ্লেষণ তো আর থেমে থাকে না। প্রিমিয়ার লিগের প্রথম দল হিসেবে রেকর্ড (৯৭) পয়েন্টে নিয়েও শিরোপা জেতা হয়নি লিভারপুলের। গতবারের চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে ক্লপকে হতাশ করে রিয়াল মাদ্রিদ। সেই ফাইনালে ম্যাচের আধাঘণ্টার মাথায় সার্জিও রামোসের মারাত্মক ফাউলের শিকার হয়ে মাঠ ছাড়েন লিভারপুল তারকা মোহাম্মাদ সালাহ। এবারও মিশরীয় তারকার দিকেই নজর থাকবে বেশি। তবে মিডফিল্ডে ক্লপ পাবেন না জেমস মিলনারকে। আক্রমণে রবার্তো ফিরমিনোকে নিয়ে শংশয় আছে।

এদিকে মাউরিসিও পচেত্তিনোর এটি হতে যাচ্ছে টটেনহামের কোচ হিসেবে শেষ ম্যাচ। এই ঘোষণা তিনি ফাইনাল নিশ্চিত হওয়ার দিনই দিয়ে রাখেন। শেষটা যদি হয় স্বপ্নের শিরোপা দিয়ে তাহলে তো কথাই নেই। এজন্য পূর্ণশক্তির দলকেই পাচ্ছেন আর্জেন্টাইন কোচ। কিছুটা শংশয় রয়েছে ইংলিশ অধিনায়ক হ্যারি কেনকে নিয়ে। গত ৯ এপ্রিলের পর থেকে মাঠের বাইরে দলের সর্বোচ্চ গোলদাতা। যদিও গত সপ্তাহ থেকে এই ফরোয়ার্ড দলের সঙ্গে পুরোপুরিভাবেই অনুশীলন করে যাচ্ছেন। পচেত্তিনো বলেন, ‘হ্যারি কেন গত সপ্তাহ, শুক্রবার, শনিবার দলের সঙ্গে থেকেছে। এটা তার জন্য ইতিবাচক। আমরা তার জন্য শেষ সময় পর্যন্ত অপেক্ষা করব।’

 



 

Show all comments
  • শুভ্র আহমেদ ১ জুন, ২০১৯, ১:৫৭ এএম says : 0
    আমি খালি ভাবতাছি এলিসন উচল গ্লাভস জিতলে আর্জেন্টাইন ব্লাড + স্টেগান ফ্যান বেজ অফ বিডির কি হবে
    Total Reply(0) Reply
  • Rana Ahmed ১ জুন, ২০১৯, ২:০২ এএম says : 0
    Liverpool জিতবে, মোঃ সালাহ জিতাবে
    Total Reply(0) Reply
  • Rubel Hossain ১ জুন, ২০১৯, ২:০২ এএম says : 0
    ইতিহাসের সেরা ম্যাচ
    Total Reply(0) Reply
  • Joy Jony ১ জুন, ২০১৯, ২:০৩ এএম says : 0
    এবারের চ্যাম্পিয়ন্স লিগে সবাইকে অবাক করে দিয়ে ফাইনালে উঠেছে, ইংলিস দুই ক্লাব লিভারপুল আর টটেনহাম হটসপার। উভয় ক্লাবই প্রথম লেগে পিছিয়ে থেকে, দ্বিতীয় লেগে জয়ের মধ্যদিয়ে ফাইনালে ওঠে। সেমিফাইনালে দ্বিতীয় লেগে লিভারপুলের দরকার ছিলো ৪ গোলের জয়। কারন তারা প্রথম লেগে বার্সেলোনার সাথে ৩ গোলে পরাজিত হয়েছিলো। সারা পৃথিবীকে অবাক করে দিয়ে ঘরের মাঠে বার্সেলোনাকে ৪ গোলে পরাজিত করে ফাইনালে ওঠে। আর টটেনহাম প্রথম লেগে নিজ ঘরে ১ গোলে পরাজিতো হয়ে, দ্বিতীয় লেগে ২-৩ গোলে আয়াক্র কে পরাজিত করে প্রথম বারের মতো ফাইনালের টিকিট পায়। দুই ইংলিস ক্লাবের জমজমাট এক ফাইনাল দেখার অপেক্ষায় গোটা ফুটবল বিশ্ব।
    Total Reply(0) Reply
  • mahbubur rahman babu ১ জুন, ২০১৯, ৫:১৭ এএম says : 0
    mohd,salahar jonno shodhu kamona kori liverpool jituk
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: চ্যাম্পিয়ন্স লিগ


আরও
আরও পড়ুন