Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার ১৭ জুলাই ২০১৯, ০২ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৩ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

গৎবাঁধা সমালোচনা করে হাসির পাত্র হবেন না

বিএনপিকে তথ্যমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১ জুন, ২০১৯, ১২:০৫ এএম

তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন,দেশের মানুষ ও বিশ্ব দেশের বিস্ময়কর উন্নয়নের প্রশংসা করলেও বিএনপি›র চোখে তা ধরা পড়ে না। প্রতিদিন অকারণ সমালোচনা করাই তাদের অভ্যাসে পরিণত হয়েছে। আমি বলবো, এরকম গৎবাঁধা সমালোচনা করে নিজেদের হাস্যস্পদ করে তুলবেন না।
গতকাল শুক্রবার বিশ্ব তামাকমুক্ত দিবস উপলক্ষে জাতীয় প্রেসক্লাবে মাদকবিরোধী সংগঠন মানস আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি একথা বলেন। মন্ত্রী বলেন, গঠনমূলক সমালোচনার প্রয়োজন আছে, আমরা সমালোচনাকে সমাদৃত করি, কিন্তু অন্ধ ও অসদুদ্দেশ্যমূলক সমালোচনা কখনো মঙ্গল বয়ে আনেনা। একটা গোষ্ঠী সবসময় সমালোচনা করার জন্যই সমালোচনা করে। যার কোনো অর্থ নেই। গতকাল মীর্জা ফখরুল বলেছেন, বাংলাদেশে নাকি দুর্নীতি-দুঃশাসন চলছে। প্রকৃতঅর্থে সুশাসন আছে বলেই দেশ আজ অর্থনৈতিক-সামাজিক সকল সূচকে পাকিস্তানসহ বহুদেশকে এমনকি কিছুক্ষেত্রে ভারতকেও পেছনে ফেলে এগিয়ে গেছে। স্বল্পোন্নত থেকে আমরা আজ মধ্যম আয়ের কাতারে।

ড. হাছান মাহমুদ বলেন, সাড়ে সাত বছর বয়সে তিনি তার বাবার কাছে জীবনে ধূমপান না করার যে শপথ নিয়েছিলেন, তা আজীবন অক্ষুন্ন রেখেছেন। এসময় তিনি সকল শিশু-কিশোর-তরুণদের আজীবন ধূমপান থেকে বিরত থাকার আহবান জানান। ড. হাছানের হাতে এসময় মানস এর বিশেষ সম্মাননা তুলে দেন ডা. অরূপরতন চৌধুরী। ‹মানস› প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ডা. অরূপরতন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আলোচনায় বক্তব্য রাখেন সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ, আকবর হোসেন পাঠান এমপি (চিত্রনায়ক ফারুক) এবং যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব মোঃ জাফর উদ্দীনের হাতে এসময় মানস সম্মাননা স্মারক তুলে দেন তথ্যমন্ত্রী।
চট্টগ্রামে তথ্যমন্ত্রী
চট্টগ্রাম ব্যুরো জানায়, তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, আমাদের আচরণে যাতে কেউ বিরক্ত না হয় সেদিকে অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে। আমাদের কর্মকান্ডে যদি মানুষ বিরক্ত হয় তাহলে অনেক উন্নয়ন করার পরও জনগণ সমর্থন করবে না। গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যায় চট্টগ্রাম নগরীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে চট্টগ্রাম উত্তর জেলা যুবলীগের সংবর্ধনা, ইফতার ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

ড. হাছান মাহমুদ বলেন, পৃথিবীতে যদি মিথ্যা কথা বলার জন্য কোন পুরস্কার দেয়া হতো তাহলে প্রথম পুরস্কার বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর পেতেন। মিথ্যা বলার ক্ষেত্রে তিনি প্রতিদিন নিজের রেকর্ড ভাঙছেন। মির্জা ফখরুল প্রতিদিন একই রেকর্ড বাজাচ্ছেন। একই রেকর্ড এতো বেশি বাজিয়েছেন এখন তার রেকর্ডটাই ভেঙ্গে গেছে।

মোহাম্মদ মিজানুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এ বি এম ফজলে করিম চৌধুরী এমপি, সাধারন সম্পাদক ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এম এ সালাম, যুবলীগ নেতা মো. সেলিম উদ্দিন, সাবেক যুবলীগ নেতা মঞ্জুরুল ইসলাম, মহানগর যুবলীগের আহবায়ক ফরিদ মাহমুদ, উত্তর জেলা যুবলীগের সভাপতি সীতাকুন্ড উপজেলা চেয়ারম্যান এস এম আল মামুন, সাধারন সম্পাদক হাটহাজারী উপজেলা চেয়ারম্যান এস এম রাশেদুল ইসলাম।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: তথ্যমন্ত্রী


আরও
আরও পড়ুন